শুক্রবার, ১ জুলাই ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৭ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
ব্রিটেন প্রবাসে ঈদ ছুটি নিয়ে ভাবনা ও আমাদের করণীয়  » «   ঈদে ছুটি নাই  » «   কমিউনিটি ও পরিবারের স্বার্থকে প্রাধান্য দিলে ঈদের ছুটি নিয়ে দ্বি-মত থাকবে না- শায়খ আব্দুল কাইয়ুম  » «   ব্রিটেনে ঈদ হলিডে : আকাঙ্ক্ষা ও বাস্তবতা  » «   দয়া নয়, ঈদের ছুটি শ্রমজীবি মুসলমানদের অধিকার  » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি নিয়ে কমিউনিটি ও মানবাধিকার নেতারা যা বলেন  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃক বন্যা দুর্গতদের চিকিৎসার্থে বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   যুক্তরাজ্যে ঈদের ছুটির দাবীতে  আলতাব আলী পার্কে সমাবেশ অনুষ্ঠিত  » «   পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে স্পেনে দূতাবাসের বিশেষ আয়োজন  » «   পদ্মা সেতুর স্মারক নোট বাজারে আসবে রবিবার  » «   পদ্মা সেতুর জন্য অভিনন্দন বিশ্বব্যাংক প্রতিনিধির  » «   অদম্য বাংলাদেশ, খুলল পদ্মার দ্বার  » «   আছে শুধু ভালোবাসা, দিয়ে গেলাম তাই: প্রধানমন্ত্রী  » «   রেমিটেন্স প্রেরণে উদ্বুদ্ধকরণে মাদ্রিদে মতবিনিময় সভা’ অনুষ্ঠিত  » «   বিশ্বনাথে মায়ের কোল থেকে ভেসে গেল শিশু, ৫ জনের মৃত্যু  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


“ফ্রান্সে’র লজ্জা” প্রতিরোধে লিঙ্গ বৈষম্যবিরোধী র‌্যালী



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

পারিবারিক সহিংসতা রোধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার দাবিতে ১০ হাজার বিক্ষোভকারী ফান্সের রাস্তায় নেমে এসেছেন। দেশটির নারীরা ইউরোপের সবচেয়ে বেশী পারিবারিক সহিংসতার শিকার হয়। যাকে প্রেসিডেন্ট ইমানুয়্যেল ম্যাক্রো “ফ্রান্সের লজ্জা” হিসেবে অভিহিত করেছেন।

এ বছরই দেশটিতে ১৩০ জন নারী বর্তমান বা সাবেক সঙ্গীর হাতে নিহত হয়েছে।

প্যারিস পদযাত্রায় সারা ফ্রান্সের ৭০টিরও বেশী সংস্থা অংশগ্রহন করেছে যাদের অধিকাংশই ছিল নারী সদস্য। ফ্রান্সে ১ লাখ এবং সারা দেশে দেড় লাখ মানুষ ফ্রান্সে ইতিহাসে সবচেয়ে বড় লিঙ্গ বৈষম্যবিরোধী র‌্যালীতে অংশ নিয়েছে বলে দাবী করা হয় আয়োজকদের পক্ষ থেকে।

২০১৪ সালে ইউরোপিয় ইউনিয়নের এ সমীক্ষায় দেখা গেছে ফ্রান্সের ২৬% নারীরা তাদের ১৫ বছর বয়সের মধ্যেই কোন না কোন পুরুষ সঙ্গী দ্বারা শারীরিক অথবা যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছিল।

ফ্রান্সের নারীরা প্রতি বছর ২ লাখ ২০ হাজার পারিবারিক সহিংসতার শিকার হয়।
জাতিসংঘ বলছে ২০১৭ সালে ৮৭ হাজার নারী ও শিশু বিশ্বব্যাপী হত্যাকাণ্ডের শিকার হয় যাদের মধ্যে অর্ধেক ভিকটিমরা তাদের সঙ্গী অথবা পরিবারের সদস্যদের হাতে প্রাণ হারান।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন