বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
বৃটেনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তাহমিনার অসাধারণ সাফল্য  » «   দুই বঙ্গকন্যা ব্রিটিশ মন্ত্রীসভায় স্থান পাওয়ায় বঙ্গবন্ধু লেখক এবং সাংবাদিক ফোরামের আনন্দ সভা ও মিষ্টি বিতরণ  » «   কেয়ার হোমের লাইসেন্স বাতিলের বিরুদ্ধে আইনী লড়াইয়ে ল’ম্যাটিক সলিসিটর্সের সাফল্য  » «   যুক্তরাজ্যে আবারও চার ব্রিটিশ-বাংলাদেশী  পার্লামেন্টে  » «   আমি লুলা গাঙ্গ : আমার আর্তনাদ কেউ  কী শুনবেন?  » «   বাংলাদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রতিবাদে লন্ডনে ইউনিভার্সেল ভয়েস ফর হিউম্যান রাইটসের সেমিনার অনুষ্ঠিত  » «   লন্ডনে বাংলা কবিতা উৎসব ৭ জুলাই  » «   হ্যাকনি সাউথ ও শর্ডিচ আসনে এমপি প্রার্থী শাহেদ হোসাইন  » «   ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই ইন দ্য ইউকে’র সাথে ঢাবি ভিসি প্রফেসর ড. এএসএম মাকসুদ কামালের মতবিনিময়  » «   মানুষের মৃত্যূ -পূর্ববর্তী শেষ দিনগুলোর প্রস্তুতি যেমন হওয়া উচিত  » «   ব্যারিস্টার সায়েফ উদ্দিন খালেদ টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের নতুন স্পীকার নির্বাচিত  » «   কানাডায় সিলেটের  কাউন্সিলর জাহাঙ্গীর আলমকে সংবর্ধনা ও আশার আলো  » «   টাওয়ার হ্যামলেটসের নতুন লেজার সার্ভিস ‘বি ওয়েল’ এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন মেয়র লুৎফুর রহমান  » «   প্রতিমন্ত্রী শফিকুর রহমান চৌধুরী এমপির সাথে বিসিএর মতবিনিময়  » «   সৈয়দ আফসার উদ্দিন এমবিই‘র ইন্তেকাল  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন

বৃটেনের শিক্ষার্থীদের জন্য মেয়র লুৎফুর রহমানের অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত
টাওয়ার হ্যামলেটসয়ের প্রায় ৩৮ হাজার শিক্ষার্থী পাবে ফ্রি স্কুল মিলস



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

দেশের মধ্যে প্রথম প্রাইমারী ও সেকেন্ডারি স্কুলে বিনামূল্যে খাবার সরবরাহের স্কিম চালু করলেন টাওয়ার হ্যামলেটস-এর নির্বাহী মেয়র লুৎফুর

– প্রায় ৩৮ হাজার শিক্ষার্থী পাবে ফ্রি স্কুল মিলস, বছরে ৫.৭ মিলিয়ন পাউন্ড বরাদ্দ

– ইংল্যান্ডের মধ্যে প্রথম কাউন্সিল হিসেবে টাওয়ার হ্যামলেটস ১৬ বছর বয়স পর্যন্ত সকল প্রাইমারি ও সেকেন্ডারি স্কুল শিক্ষার্থীদের জন্য ইউনিভার্সেল ফ্রি স্কুল মিলস্ চালু করলো।

– ২০১৪ সাল থেকে সকল প্রাইমারি স্কুলে শিশুদের জন্য বিনামূল্যে স্কুলের খাবারের অর্থায়ন করেছে

– স্কিমটি কস্ট-অব-লিভিং অর্থাৎ জীবন-যাত্রার ব্যয় বৃদ্ধির এই সংকটময় সময়ে পরিবারগুলিকে সহায়তা করবে, প্রতিটি শিশুর ক্ষেত্রে বছরে সাশ্রয় হবে ৫৫০ পাউন্ড। এই হিসাবে যে পরিবারে তিনটি শিশু রয়েছে, তারা বছরে ১৬৫০ পাউন্ড পর্যন্ত সাশ্রয় করতে পারবে।

টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল ১৬ বছর বয়স পর্যন্ত সকল শিক্ষার্থীকে বিনামূল্যে স্কুলে খাবার সরবরাহের এক অনন্য কর্মসূচি চালু করেছে। ইংল্যান্ডের মধ্যে প্রথম কাউন্সিল হিসাবে সেকেন্ডারি স্কুল পর্যায়ে এই স্কিম চালু করলো টাওয়ার হ্যামলেটস্ কাউন্সিল।

স্কিমটি আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করা উপলক্ষে বুধবার ৭ সেপ্টেম্বর টাওয়ার হ্যামলেটসের নির্বাহী মেয়র, ডেপুটি মেয়র ও কাউন্সিলের উর্ধতন শিক্ষা কর্মকর্তারা লাঞ্চের সময় উপস্থিত ছিলেন। মধ্যাহ্ন ভোজের সময় মেয়র ও ডেপুটি মেয়র লাইনে দাঁড়িয়ে খাবার সংগ্রহ করেন এবং শিশুদের সাথে বসে লাঞ্চ সারেন।

উল্লেখ্য, লন্ডনের মেয়র যেখানে লন্ডনের সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদের জন্য এক বছরের জন্য বিনামূল্যে স্কুলের খাবারের ব্যবস্থা করছেন, সেখানে টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল বারার সবগুলো প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীকে স্কুলে বিনামূল্যে খাবার সরবরাহের ব্যবস্থা করে আরও এগিয়ে গেলো।

কাউন্সিল ২০১৪ সাল থেকে বারার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুদেরকে বিনামূল্যে স্কুলের খাবারের জন্য অর্থায়ন করেছে।
মাধ্যমিক স্কুল পর্যায়ে ফ্রি মিলস্ স্কিমটি সেপ্টেম্বর ২০২৩ থেকে স্কুলগুলির নিজস্ব প্রস্তুতির ভিত্তিতে পর্যায়ক্রমে চালু করা হচ্ছে, যাতে প্রতিটি স্কুল তাদের নিজস্ব অবকাঠামোগত পরিস্থিতির উপর ভিত্তি করে ডেলিভারির জন্য প্রস্তুত হতে পারে।

এই স্কিম বাস্তবায়নে কাউন্সিল প্রয়োজনীয় নতুন সরঞ্জাম ক্রয় এবং তা স্থাপন করার জন্য স্কুলগুলোতে ৭ লাখ ২২ হাজার পাউন্ড অগ্রিম বিনিয়োগ করেছে।
২০২৪ এর জানুয়ারি মাসের মধ্যে, টাওয়ার হ্যামলেটসের সকল প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রায় ৩৮,০০০ ছাত্র-ছাত্রী তাদের পরিবারের আয় নির্বিশেষে বিনামূল্যে স্কুলের খাবার পাবে।

ইউনিভার্সেল ফ্রি স্কুল মিলস্ স্কিম চালু প্রসঙ্গে টাওয়ার হ্যামলেটসের নির্বাহী মেয়র লুৎফুর রহমান বলেন, “আমি অবিশ্বাস্যভাবে গর্বিত যে টাওয়ার হ্যামলেটস গোটা দেশের মধ্যে প্রথম স্থানীয় কর্তৃপক্ষ হিসেবে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে স্কুলের খাবার সরবরাহ করেছে। আামি প্রাইমারী স্কুলে ফ্রি খাবার সরবরাহের জন্য মেয়র অব লন্ডন-এর এক বছরের তহবিলকে স্বাগত জানাই। তবে আমি আশা করি, টাওয়ার হ্যামলেটস সারা দেশেকে এটা দেখিয়ে দিয়েছে যে ফ্রি স্কুল মিলস স্কিমে স্থায়ীভাবে অর্থায়ন করা এবং মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলিতেও এটি সম্প্রসারিত করা সম্ভব।”

নির্বাহী মেয়র লুৎফুর রহমান বলেন, “এই বারার পরিবারগুলোর জন্য এই স্কিমটি অত্যাবশ্যক আর্থিক সহায়তা প্রদান করে, সেইসাথে স্বাস্থ্য এবং শিক্ষাগত সুফল নিশ্চিত করতে ভূমিকা রাখছে।”
“এই গ্রাউন্ড ব্রেকিং স্কিমটি চালু করার জন্য অত্যন্ত কঠোর পরিশ্রম করায়” বারার সেকেন্ডারি স্কুলগুলোকে মেয়র ধন্যবাদ জানান।

ডেপুটি মেয়র, এবং কেবিনেট মেম্বার ফর এডুকেশন, ইয়ূথ এন্ড লাইফলং লার্নিং, কাউন্সিলর মাইয়ুম তালুকদার বলেছেন: “আজ টাওয়ার হ্যামলেটস-এর জন্য একটি বিশেষ মুহূর্ত, কারণ আমরাই দেশের মধ্যে প্রথম কাউন্সিল যারা মাধ্যমিক বিদ্যালয়েও ফ্রি খাবার সরবরাহ স্কিম চালু করলাম। ইউনিভার্সেল ফ্রি স্কুল মিলস অফার করার কারণে পরিবারগুলোতে খাদ্য নিরাপত্তাহীনতার প্রভাবগুলিকে কিছুটা লাঘব করে এবং যারা আর্থিকভাবে সংগ্রাম করছে ও সামাজিক নিরাপত্তা-বলয়ের বাইরে পড়ে যাওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছে তাদেরকে এটি সহায়তা করছে।”

ডেপুটি মেয়র আরো বলেন, “আমি আগামী মাসগুলিতে প্রকল্পটি মূল্যায়ন করার জন্য এবং বিনামূল্যে স্কুলের খাবার গ্রহণের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা কিভাবে উপকৃত হচ্ছে তা দেখার অপেক্ষায় আছি।”
সোয়ানলি স্কুলে হেডটিচার ব্রান্ডা ল্যান্ডার্স “অনুকরণীয় এই স্কিমটি চালু করায় কাউন্সিলকে বিশেষ করে নির্বাহী মেয়র লুৎফুর রহমানকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানান এবং বলেন, “স্কুলের সকল শিক্ষার্থীর জন্য বিনামূল্যে খাবার সরবরাহ তাদের স্বাস্থ্য ও শেখার ক্ষেত্রে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে।”

গোটা দেশের মধ্যে সর্বাধিক সংখ্যক কমবয়সীদের বাস এই টাওয়ার হ্যামলেটসে এবং এই তহবিল তরুণদের জীবন সম্ভাবনাকে উন্নত করার জন্য কাউন্সিলের প্রচেষ্টার অংশ।
টাওয়ার হ্যামলেটসের ৪৭.৫% শিশু দারিদ্র্যসীমার নীচে বাস করে, যা গোটা যুক্তরাজ্যের মধ্যে সর্বোচ্চ হার। তাই, স্কুলে বিনামূল্যে খাবার সরবরাহের এই প্রকল্পটি জীবনযাত্রার ব্যয়-সংকটের চলমান সময়ে অত্যাবশ্যক সহায়তা প্রদান করছে, এবং এর ফলে পরিবারগুলির প্রতি বছরে গড়ে ৫৫০ পাউন্ড বাঁচিয়েছে। এই হিসাবে যে পরিবারে তিনটি শিশু রয়েছে, তারা বছরে ১৬৫০ পাউন্ড পর্যন্ত সাশ্রয় করতে পারবে।
স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাবার খাওয়া শিক্ষার্থীদের শেখার ক্ষেত্রে সহায়তা করে এবং আচরণ এবং একাডেমিক কৃতিত্বগুলিকে উন্নত করতে ভূমিকা রাখে।

এক গবেষণায় দেখা গেছে, টাওয়ার হ্যামলেটসের প্রায় অর্ধেক শিশু অতিরিক্ত ওজন নিয়ে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে যাচ্ছে, এই স্কিমটি ছেলেমেয়েদের শারীরিক স্বাস্থ্যের উন্নতি এবং একটি স্বাস্থ্যকর বারা গড়ে তোলার কাউন্সিলের অব্যাহত প্রচেষ্ঠার ক্ষেত্রে একটি ইতিবাচক পদক্ষেপ।

বারার সকল প্রাইমারি ও সেকেন্ডারি স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের জন্য ইউনিভার্সেল ফ্রি স্কুল মিলস্ অর্থাৎ পারিবারিক আয় নির্বিশেষে সকল শিক্ষার্থীকে বিনামূল্যে খাবার সরবরাহ করতে কাউন্সিলের ২০২৩/২৪ অর্থবছরের বাজেটে ৫.৭ মিলিয়ন পাউন্ডের তহবিল বরাদ্দ রাখা হয়।
এই তহবিল বারার কম বয়সীদের কল্যানে কাউন্সিলের ব্যাপক বিনিয়োগের অংশ, যার মধ্যে রয়েছে:
– ইয়ূথ সার্ভিস অর্থাৎ কিশোর তরুণ বয়সীদের উপযোগী পরিষেবা নিশ্চিত করতে ১৩.৭ মিলিয়ন পাউন্ড বিনিয়োগ।
– শিক্ষা রক্ষণাবেক্ষণ ভাতা এবং বিশ্ববিদ্যালয় বার্সারি পুনরায় চালু করতে ১.১ মিলিয়ন পাউন্ড বরাদ্দ।
– বিশেষ শিক্ষাগত এবং অতিরিক্ত চাহিদাযুক্ত শিশুদের (এসইএন্ডডি বা সেন্ড) জন্য ১.১ মিলিয়ন পাউন্ড ।

বৃটেনের শিক্ষার্থীদের জন্য মেয়র  লুৎফুর রহমানের অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত। এনিয়ে রয়েছে চৌধুরী মুরাদের রিপোর্টে বিস্তারিত-


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন