শুক্রবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
অসুস্থ চারখাই ইউপি চেয়ারম্যান হোসেন মুরাদ চৌধুরীর আশু সুস্থতা কামনায় লন্ডনে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত  » «   আলীনগর ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট ইউকে‘র আত্নপ্রকাশ  » «   অমর একুশে বইমেলার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   তরুণদের উচ্চশিক্ষায় সহায়তা: মেয়র লুৎফুর রহমান এবার চালু করলেন ইউনির্ভাসিটি বার্সারি স্কিম  » «   ‘টি আলী স্যার’কে নিয়ে হবিগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে গানের চিত্রায়ণ  » «   বিবিসিজিএইচ এর বিয়ানীবাজারের মোল্লাপুর-এ বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান  » «   কবিকণ্ঠের সুবর্ণরেখায় শিক্ষাব্রতী শীর্ষক সুহৃদ আড্ডায় বক্তারা- অগণন প্রাণে আলো জ্বেলেছেন মো. শওকত আলী  » «   স্পেন-বাংলাদেশ প্রাতিষ্ঠানিক সম্পর্কের পরিধি বিস্তৃত হচ্ছে  » «   টি আলী স্যারকে নিয়ে লেখা আব্দুল গাফফার চৌধুরী’র গানে সুর দিলেন মকসুদ জামিল মিন্টু  » «   লন্ডনে প্রকাশক ও গবেষক মোহাম্মদ নওয়াব আলীর সাথে মতবিনিময় ও ‘বাসিয়ার বই আলোচনা‘র  মোড়ক উন্মোচন  » «   ঢাকা এন আর বি ক্লাবে – ‘বাঙালীর বিয়েতে বাংলাদেশের পোশাক’ ক্যাম্পেইনের নেটওয়ার্কিং মিটিং  » «   প্রধানমন্ত্রীর সাথে ঢাবি অ্যালামনাই ইন দ্য ইউকে’র সভাপতির সাক্ষাৎ  » «   লন্ডনে গোলাপগঞ্জের কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের সাথে সরওয়ার হোসেনের মতবিনিময়  » «   বিয়ানীবাজার-গোলাপগঞ্জের মানুষের সেবায় আজীবন পাশে থাকবো -সরওয়ার হোসেন  » «   লন্ডনে  EXPLORE BEANIBAZAR প্রদর্শিত হবে ২২ জানুয়ারি  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন

দেশের প্রতি ৬ জনের মধ্যে ১ জন বাংলাদেশীর বাস টাওয়ার হ্যামলেটসে
আদমশুমারির নতুন তথ্য প্রকাশ



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

২০২১ সালের আদমশুমারি অনুযায়ি  টাওয়ার হ্যামলেটসে জাতীয়তা, জাতি, ভাষা এবং ধর্মের সর্বশেষ পরিসংখ্যান প্রকাশ করেছে অফিস ফর ন্যাশনাল স্ট্যাটিস্টিক্স (ওএনএস)।

প্রতি দশ বছর পর পর পরিচালিত আদমশুমারির এবারেরটা গত ২১ মার্চ ২০২১ অনুষ্ঠিত হয়েছিলো। এই শুমারিতে টাওয়ার হ্যামলেটস, লন্ডন এবং ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসের একটি স্ন্যাপশট প্রদান করে। গত জুলাই মাসে শুমারির একটি প্রাথমিক ফল ঘোষণা করা হয়েছিল। আর এখন প্রকাশ করা হলো

পরিসংখ্যানের বিশদ উপাত্ত।

আদমশুমারির উপাত্ত অনুযায়ি  ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস জুড়ে, ২০২১ সালে, বাসিন্দাদের ৮১.৭%     শ্বেতাঙ্গ  ব্যাকগ্রাউন্ডের (২০১১ সালে ৮৬% থেকে কম) এবং ৭৪.৪% শ্বেতাঙ্গ  ব্রিটিশ।

লন্ডন দেশের সবচেয়ে জাতিগতভাবে বৈচিত্র্যময় এলাকা। লন্ডন জুড়ে শ্বেতাঙ্গ  জনগোষ্টির  সংখ্যা  শতকরা হিসেবে ৮.১% হ্রাস পেয়েছে, যা ২০১১ সালে ছিলো ৩.৭ মিলিয়ন (মোট ৪৪.৯%)। ২০২১ সালে এই সংখ্যা কমে দাড়িয়েছে  ৩.২ মিলিয়ন (৩৬.৮%)।

ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসের প্রতি ছয়জন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূতের মধ্যে একজন টাওয়ার হ্যামলেটসে থাকেন। স্থানীয়ভাবে, বাংলাদেশি জনসংখ্যার আনুপাতিক হার হচ্ছে ৩৪.৬ শতাংশ, যা সংখ্যায় ১০৭,৩৩৩। উভয় ক্ষেত্রেই এই সংখ্যা হচ্ছে  গোটা দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি।

টাওয়ার হ্যামলেটসে স্থানীয় বাংলাদেশি জনসংখ্যা স্থানীয় কর্তৃপক্ষের এলাকার মধ্যে পরবর্তী বৃহত্তম জনসংখ্যার প্রায় দ্বিগুণ। টাওয়ার হ্যামলেটসএর পরে, দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বাংলাদেশি জনসংখ্যা রয়েছে    নিউহ্যামে। সেখানে মোট ৫৫,৬৭৭ জন বাংলাদেশি বাসিন্দা বাস করছেন।

টাওয়ার হ্যামলেটসে শ্বেতাঙ্গ ব্রিটিশ জনসংখ্যার শতকরা হার হচ্ছে ২২ দশমিক ৯ শতাংশ, যা নিউহ্যাম, ব্রেন্ট এবং হ্যারোর পরে ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসের মধ্যে চতুর্থ ক্ষুদ্রতম।

২০২১ সালে টাওয়ার হ্যামলেটসে ৪৫,১৮৭ জন সাদা অন্যান্য বাসিন্দা ছিলেন, যা সামগ্রিক স্থানীয় জনসংখ্যার ১৪.৬ শতাংশ, ২০১১ সালের তুলনায় এটি একটি উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি৷

২০২১ সালের আদমশুমারিতে ৬,১৮০ জন বাসিন্দাকে সোমালি বা সোমালিল্যান্ডার হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে, এটি সামগ্রিক জনসংখ্যার ২%।

আফ্রিকার কৃষ্ণাঙ্গ জনসংখ্যাও বেড়েছে। টাওয়ার হ্যামলেটের ৫% বাসিন্দা ব্ল্যাক আফ্রিকান হিসাবে চিহ্নিত যা স্থানীয় জনসংখ্যার ৫% সমগ্র ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসের অনুপাতের দ্বিগুণ (২.৫%) কিন্তু লন্ডনের হারের চেয়ে কম (৭.৯%)।

টাওয়ার হ্যামলেটসের স্থানীয় চীনা জনসংখ্যা (৩.৩%) লন্ডন এবং কেমব্রিজের পরে ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসের তৃতীয় সর্বোচ্চ অনুপাত।

ব্রেন্ট, শেফিল্ড এবং নিউহ্যামের পরে ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসের চতুর্থ বৃহত্তম রোমা জনসংখ্যা টাওয়ার হ্যামলেটস রয়েছে। (টাওয়ার হ্যামলেটসে ২,২২৫ জন রোমা হিসাবে চিহ্নিত)।

এদিকে, জাতীয়ভাবে, প্রথমবারের মতো, আদমশুমারির পরিসংখ্যান অনুযায়ি ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসের অর্ধেকেরও কম বাসিন্দা খ্রিস্টান (৪৬.২%) হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে, যদিও এটি এখনও জাতীয়ভাবে বৃহত্তম একক ধর্ম।

ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস জুড়ে যে কোনও স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এলাকার মুসলিম বাসিন্দাদের সবচেয়ে বেশি অনুপাত রয়েছে টাওয়ার হ্যামলেটসে। এই বারার ৩৯.৯ শতাংশ বাসিন্দা (১২৩,৯১২ জন) রিপোর্ট করেছেন যে তারা মুসলিম। ২০১১ সালের শেষ আদমশুমারির তুলনায় এটি বেশ বৃদ্ধি পেয়েছে, তখন ৩৪.৫% বলেছিলেন যে তারা মুসলিম।

টাওয়ার হ্যামলেটসের বাসিন্দাদের মাত্র ২২.৩% তাদের ধর্মকে খ্রিস্টান বলে উল্লেখ করেছে যা ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসের যেকোন স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এলাকার মধ্যে সর্বনিম্ন অনুপাত।

সবচেয়ে বেশি বৃদ্ধি পাওয়া গেছে যারা ‘কোন ধর্ম নেই’ বলে নিজেদের চিহ্নিত করছেন তাদের মধ্যে। ২০১১ সালে ১৯.১% বাসিন্দা বলেছিলেন যে তাদের কোন ধর্ম নেই।

টাওয়ার হ্যামলেটস এর ৭৩% বাসিন্দা রিপোর্ট করেছেন যে ইংরেজি তাদের প্রধান কথ্য ভাষা এবং অতিরিক্ত ২০.৭% বাসিন্দা বলেছেন যে, যদিও এটি তাদের প্রধান ভাষা নয়, তারা ‘ভাল’ বা ‘খুব ভাল’ ইংরেজি বলতে পারেন। ৬.২ শতাংশ বাসিন্দা ইংরেজি ‘ভাল’ বা একেবারেই বলতে পারে না।

২০১১ এবং ২০২১–এর দশকে কথ্য ইংরেজিতে দক্ষতার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। ২০১১–এর আদমশুমারিতে, শতকরা ৮ ভাগ বাসিন্দা ইংরেজি ভাল বা একেবারেই বলতে পারে না বলে জানিয়েছিলেন। এই হার ২০২১–এর আদমশুমারিতে মাত্র ৬.২ শতাংশ।

ইংরেজির পরে, বাংলায় কথা বলেন সবচেয়ে বেশি টাওয়ার হ্যামলেটসের সবচেয়ে বেশি বাসিন্দা, এই হার মোট জনসংখ্যার ১১ শতাংশ। এর পরে রয়েছে ইতালীয় (২.২%) এবং স্প্যানিশ (১.৭%)

ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসে, ৯০.৩% বাসিন্দা ২০২১ সালে কমপক্ষে একটি যুক্তরাজ্যের জাতীয় পরিচয় (ইংরেজি, ওয়েলশ, স্কটিশ, উত্তর আইরিশ, ব্রিটিশ এবং কর্নিশ) চিহ্নিত করা হয়েছে যা ২০১১ সালে ছিলে ৯২%। অর্থাৎ খুব সামান্য হ্রাস পেয়েছে।

টাওয়ার হ্যামলেটসে, মাত্র ৭৩.৫% বাসিন্দা কমপক্ষে একটি যুক্তরাজ্যের জাতীয় পরিচয় এবং ২৬.৫% অ–যুক্তরাজ্য জাতীয় পরিচয় দিয়ে নিজেদের চিহ্নিত করেছে।

এই আদমশুমারি পূর্ণাঙ্গ তথ্য পাবেন: ওএনএস(Office for National Statistics) এর ওয়েবসাইটে।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন