মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
মাসা আমিনির মৃত্যুতে ইরানের ‘নীতি পুলিশ’ এখন আলোচনায়  » «   অনশনে বসতে আ’লীগ কার্যালয়ে ইডেন ছাত্রলীগের ১২ নেত্রী  » «   ইতালিতে জাঁকজমকপূর্ণভাবে বিএনপি’র ৪৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   ইতালির জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এমপি ও সিনেট পদপ্রার্থীদের রোমের বাংলাদেশী কমিউনিটির সাথে মতবিনিময়  » «   রানির প্রস্থান, রাজার আগমন এবং আধুনিক ব্রিটেন  » «   আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় তৃতীয় বাংলাদেশি তাকরিম  » «   ফুটবলার আঁখির বাবার সঙ্গে অসদাচরণ, দুই পুলিশ ক্লোজড  » «   গোলাম কিবরিয়া  : সংগ্রামেই যিনি সাফল্যের উচ্চশিখরে  » «   ফুডেক্স সৌদি মেলায় বাংলাদেশি খাদ্য পন্য নিয়ে চার বৃহৎ কোম্পানি  » «   দশ বছর পর রোমে ইতালী আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত  » «   বিশ্বনেতারা রানির শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে যাবেন বাসে চড়ে  » «   আল হাবীব ফাউন্ডেশনের সহাহতায় সফল শিক্ষার্থীদের জন্য ম্যানচেষ্টার মেট্রপলিটন বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়োজন  » «   ইতালিতে সংসদ সদস্য আ ক ম বাহার উদ্দিন বাহারকে সংবর্ধনা দিয়েছে কুমিল্লাবাসী  » «   রানির জীবনাবসানে যুক্তরাজ্যে যা হতে পারে  » «   ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের জীবনাবসান  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


অর্থমন্ত্রীর ‘শুভেচ্ছা’ টাকায় কি সিলেট ১ আসনের ভাগ্য নির্ধারিত ?



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট ১ আসনে (মহানগর ও সদর) কে হচ্ছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী, তা নিয়ে আলোচনা উঠেছে অনেক আগেই। বিশেষত ঐ আসনের এমপি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত রাজনীতি থেকে অবসর নেয়ার ঘোষনায় তা আরও ব্যাপকভাবে আলোচনায় আসে। সিলেটের রাজনীতিতে চষে বেড়ানো অনেক নেতাই সিলেটের এই আসনে নির্বাচন করার প্রত্যাশা রাখলেও শেষ পর্যন্ত কার ভাগ্যের সাথে এটা জড়িয়ে আছে, তা এখনও আঁচ করা যাচ্ছে না।তবে অনেকেরই ধারনা অর্থমন্ত্রীর ইচ্ছা আর প্রধানমন্ত্রীর চয়েসই এখানে প্রাধান্য পাবে।
আর তারই আভাস পাওয়া গেছে নির্বাচনী ফরম সংগ্রহকালে গতকাল শুক্রবার।

আগামী সংসদ নির্বাচনে সিলেট-১ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে গত কয়েক বছর ধরেই মাঠে রয়েছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি এ কে আবদুল মোমেন। তিনি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের ছোট ভাই। গতকাল শুক্রবার বিকেলে অর্থমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ‘নির্বাচনী শুভেচ্ছা’ হিসেবে পাওয়া টাকা দিয়েই আবদুল মোমেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। অবশ্য এর কিছুক্ষণ পর অর্থমন্ত্রীর পক্ষে তাঁর ছেলে সাহেদ মুহিত ওই একই আসনের আরেকটি মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।

নবম ও দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-১ আসন থেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে বিজয়ী হন আবুল মাল আবদুল মুহিত। এবারের নির্বাচনকে সামনে রেখে গত প্রায় দুই বছর ধরে তিনি আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবেন না বলে বিভিন্ন সময়ে বলেছেন। এ আসনে তাঁর ছোট ভাই এ কে আবদুল মোমেন নির্বাচনে অংশ নেবেন বলেও জানান। কয়েকদিন আগে অর্থমন্ত্রী তাঁর সিদ্ধান্ত পাল্টে আবার নির্বাচন করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। অর্থমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠজনেরা জানান, দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশেই তিনি দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন।

অর্থমন্ত্রীর পরিবারের সদস্যরা জানান, বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের চেয়ারম্যান হিসেবে এ কে আবদুল মোমেন এক বৈঠকে অংশ নিতে চট্টগ্রামে ছিলেন। ওইদিন বিকেলের দিকে অর্থমন্ত্রী তাঁর ছোট ভাই মোমেনকে ফোন দিয়ে সিলেট-১ আসন থেকে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার বিষয়টি মনে করিয়ে দিয়ে দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করার জন্য বলেন। এ সময় রাতেই তাঁকে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় আসার জন্য নির্দেশনা দিয়ে জানান, মোমেনের দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করার নির্ধারিত ৩০ হাজার টাকা অর্থমন্ত্রী ‘নির্বাচনী শুভেচ্ছা’বাবদ তাঁকে উপহার দেবেন। সে অনুযায়ী গতকাল বিকেলে অর্থমন্ত্রীর বাসভবনে পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতে মোমেনের হাতে তিনি ৩০ হাজার টাকার চেক তুলে দেন।

বড় ভাইয়ের কাছ থেকে উপহার হিসেবে প্রাপ্ত চেক নিয়ে এ কে আবদুল মোমেন দলীয় মনোনয়নপত্র কেনার জন্য দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যান। এ সময় তাঁর সঙ্গে অর্থমন্ত্রী ও পরিবারের সদস্যরা ছাড়াও সিলেটের বিভিন্ন পর্যায়ের আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ও যুবলীগ, ছাত্রলীগের কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এ কে আবদুল মোমেন গতকাল নিজেই বলেছেন,অর্থমন্ত্রী তাঁকে নির্বাচন করার ব্যাপারে উৎসাহিত করেছেন।এবং সে জন্যই মনোনয়নপত্র সংগ্রহের জন্য তাঁকে একটা চেক দিয়ে বলেছেন, “তোমার জন্য গুডলাক উইশ।

উল্লেখ্য যে, একই আসনে মনোনয়নপ্রত্যাশী হিসেবে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের প‌ক্ষে তাঁর ছেলে সাহেদ মুহিত দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এ সময় সাহেদ মুহিত সাংবাদিকদের জানান, তাঁর বাবা (আবুল মাল আবদুল মুহিত) নিজের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করার জন্য দলীয় কার্যালয়ে গিয়েছিলেন। দলের সভানেত্রী শেখ হাসিনাসহ হাইকমান্ডের নির্দেশনা অনুযায়ী অর্থমন্ত্রীর প‌ক্ষে মনোনয়ন ফরম নেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন