বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
জীবন যেখানে দ্রোহের প্রতিশব্দ মৃত্যু সেখানেই শেষ কথা নয়..  » «   শিল্প উদ্যোক্তা ও ক্রীড়া সংগঠক মো: জিল্লুর রাহমানকে  লন্ডনে সংবর্ধনা  » «   ঈদের সামাজিক গুরুত্ব ও বিলাতে ঈদের ছুটি   » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি  প্রসঙ্গে  » «   হজের খুতবা বঙ্গানুবাদ করবেন মাওলানা শোয়াইব রশীদ ও মাওলানা খলিলুর রহমান  » «   হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু, তাবুর শহর মিনায় হাজিরা  » «   ঈদের ছুটি : আমাদের কমিউনিটিতে সবার আগে শুরু হোক  » «   ঈদের দিনে বিলেত প্রবাসীদের মনোবেদনা  » «   বিলেতে ঈদ উৎসব এবং বাঙ্গালী কমিউনিটির অন্তর্জ্বালা  » «   জলঢুপে বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমান কেম্প  » «   তিলপাড়ায় বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   করিমগঞ্জ দিবস  » «   ঈদের ছুটি চাই : একটি সমন্বিত উদ্যোগ অগণিত পরিবারে হাসি ফুটাতে পারে  » «   ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল তিন বন্ধুর  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


ঈদের ছুটি
রেণু লুৎফা



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

ব্রিটেনে ঈদের ছুটি নিয়ে বেশ কয়েক বছর ধরে আন্দোলন হচ্ছে। যদিও সরকারী ভাবে দিনটি ছুটির দিন নয় তবে প্রতিটি বিভাগেই এই দিনে মুসলমান কর্মচারীবৃন্দ ছুটি নিতে পারেন। প্রায় প্রতিটি বিভাগে  বেতন সহ আবার কোন কোন ক্ষেত্রে বেতন ছাড়া। স্কুল কলেজ গুলোতে বেতন সহ তবে তা বছরের শুরুতেই বুক করে রাখতে হয়।

তবে সমস্যা হলো বাংলাদেশী সম্প্রদায়কে নিয়ে। এদের বেশীর ভাগই কাজ করেন কারী ইন্ডাস্ট্রিতে। তারা ঈদে ছুটি পান না। কিছু কিছু ক্ষেত্রে তারা ঈদের নামাজের জন্য টাইম অফ পান, অর্থাৎ নামাজ পড়েই কাজে যেতে হয়।ঈদ হলো খুশীর দিন কিন্তু এরা সেই খুশী থেকে বঞ্চিত হোন।

কিন্তু এই ব্যবসায়ীদের প্রায় ৯৯ ভাগই মুসলমান। এরা দেশে মসজিদ মাদ্রাসা তৈরী করেন। এদেশের বাংলা টিভি তে হুজুরগণ  যখন ওয়াজ নসিহত করেন তখন এরা দেদারসে টাকা দেন।  কিন্তু তার মুসলিম কর্মচারী কে ঈদের খুশীতে শরিক করতে রাজি নন। ঈদের দিনে  ব্যবসায় ছাড় দিতে তারা বুকের হিম্মত রাখেন না।

এখানে দেখা যায় প্রতিটি কর্মচারীরা ঈদের ছুটি চান আবার এরাই যখন মালিকের কাতারে যোগ দেন তখন ছুটি দিতে রাজী হোন না।

বছরভর ব্যবসা করেও একটি দিনের ব্যবসার লোভ তারা ছাড়তে পারেন না। নিজেরা যখন নিজেদের ধর্মের প্রতি এই নূন্যতম শ্রদ্ধা রাখতে ব্যর্থ হয়ে অন্যদের কাছ থেকে দাবী আদায়ের ডাক দেন তখন সে ডাকে সাড়া পাওয়ার কোন আশা থাকে না।আসুন ঈদ মুসলমান দের জীবনে কতটা গুরুত্বপূর্ণ তা মুসলমানদের প্রমাণ করার সময় হয়েছে ।ধর্ম শুধু প্রচার করার বিষয় নয় । আপনার ধর্ম আপনার ব্যবহারে, আচারে, আচরণে প্রকাশ পাবে।

রেণু লুৎফা :  শিক্ষাবিদ ও লেখক,  লন্ডন।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন