শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
জীবন যেখানে দ্রোহের প্রতিশব্দ মৃত্যু সেখানেই শেষ কথা নয়..  » «   শিল্প উদ্যোক্তা ও ক্রীড়া সংগঠক মো: জিল্লুর রাহমানকে  লন্ডনে সংবর্ধনা  » «   ঈদের সামাজিক গুরুত্ব ও বিলাতে ঈদের ছুটি   » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি  প্রসঙ্গে  » «   হজের খুতবা বঙ্গানুবাদ করবেন মাওলানা শোয়াইব রশীদ ও মাওলানা খলিলুর রহমান  » «   হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু, তাবুর শহর মিনায় হাজিরা  » «   ঈদের ছুটি : আমাদের কমিউনিটিতে সবার আগে শুরু হোক  » «   ঈদের দিনে বিলেত প্রবাসীদের মনোবেদনা  » «   বিলেতে ঈদ উৎসব এবং বাঙ্গালী কমিউনিটির অন্তর্জ্বালা  » «   জলঢুপে বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমান কেম্প  » «   তিলপাড়ায় বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   করিমগঞ্জ দিবস  » «   ঈদের ছুটি চাই : একটি সমন্বিত উদ্যোগ অগণিত পরিবারে হাসি ফুটাতে পারে  » «   ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল তিন বন্ধুর  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


উম্মুক্ত হচ্ছে সুন্দরবনের পর্যটক কেন্দ্র



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

দীর্ঘ সাত মাস বন্ধ থাকার পর আজ ১ নভেম্বর থেকে খুলে দেয়া হচ্ছে সুন্দরবনের পর্যটন কেন্দ্রগুলো।বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোঃ বেলায়েত হোসেন। করোনা ভাইরাসের জন্য স্বাস্থ্যবিধি মানার শর্তে আজ ১ নভেম্বর রোববার থেকে খুলে দেওয়া হচ্ছে সুন্দরবনের সব পর্যটন স্পট। সুন্দরবন খুলে দেওয়ার জন্য এরই মধ্যে বন অধিদপ্তর একটি গেজেটও প্রণয়ন করেছে। ইতি মধ্যে এ সংক্রান্ত বার্তাটি পৌঁছে দেওয়া হয়েছে মোংলাসহ বন বিভাগের সকল অফিসে।

এ খবরে মোংলায় বনের পর্যটন খাতে সংশ্লিষ্ট ব্যাবসায়ীরা সকল লঞ্চ ও ট্যুর বোর্ট নতুন সাঝে সজ্জিত করে প্রস্তুত করেছে, পাশাপাশী ভ্রমন পিপাশুদের আনন্দ দিতে সকল পর্যটন ষ্পটগুলো সাজিয়েছে নতুন সাজে।

বিভাগীয় বন কর্মতর্তা জানান, পর্যটন কেন্দ্র খুলে দেয়ার ব্যাপারে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে নির্দেশনা মোতাবেক বন বিভাগকে অবহিত করেন এবং ট্যুর মালিকদের সাথে আলোচনা করে ১ নভেম্বর সুন্দরবন পর্যটন কেন্দ্র খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। একই সাথে আগত পর্যটকদের স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলাচলেরও অনুরোধ জানান তিনি।

মোংলা ট্যুর ব্যাবসায়ীরা বলেন, দেশের সব পর্যটন কেন্দ্র খুলে দিলেও প্রায় সাত মাস সুন্দরবনের পর্যটন কেন্দ্র বন্ধ ছিল। খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত আমরা স্বাগত জানাই। দীর্ঘদিন বিশ্ব মহামারীর কারণে বনের পর্যটন কেন্দ্রগুলো বন্ধ থাকায় আর্থিক ক্ষতির মুখে ট্যুর মালিকরা। মানবেতর জীবন যাপন করেছিল এর সাথে সংশ্লিষ্ট কর্মচারীরাও। তাই সুন্দরবনের পর্যটন খুলে দেওয়ার ফলে কর্মচারীরাও বেচে থাকবে এবং ক্ষতি কিছুটা পুষিয়ে নেয়া সম্ভব বলে মনে করেন এই ব্যবসায়ী। ভ্রমনের সময় মাস্ক ছাড়া কোন পর্যটককে লঞ্চ বা ট্যুর বোটে উঠানো হবেনা বলে মনে প্রানে অঙ্গিকার করেন ট্যুর ব্যাবসায়ীরা।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন