বৃহস্পতিবার, ৪ জুন ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
Sex Cams
সর্বশেষ সংবাদ
অসমে ভূমিধসে তিন জেলায় মৃত্যু ২১জনের  » «   একটি লাশের দাফন ও ছাত্রলীগের ‘ওরা ৪১ জন’  » «   করোনা সংকটে বিয়ানীবাজার উপজেলার কসবা-খাসা গ্রামে পাশে দাড়ানো ব্যক্তি ও সংগঠন  » «   যদি কিছু মনে না করেন  » «   এক দিনে ২২৭ কর্মকর্তাকে চাকুরিচ্যুত করল প্রাইম লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানি  » «   আদর্শের বিপরীতেই দাঁড়িয়ে যাচ্ছে আদর্শ  » «   করোনায় সৌদি প্রবাসী বাংলাদেশিদের অসহায়ত্ব  » «   সোয়া ছয় কোটি মানুষের হাতে সরকারের ত্রাণ  » «   শারজাহর মসজিদগুলিতে পরিচ্ছন্নকরণ অব্যাহত  » «   ‘আলোকিত ৯৫ মাদারীপুর’ এর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ২০২০ উদযাপন  » «   পরিবহন কল্যাণ তহবিলের টাকা নিয়ে সিলেটে শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ, ভাঙচুর  » «   আমিরাত নিউজ এজিন্সিতে বাংলা ভাষা সংযুক্ত করা হয়েছে  » «   নিজ খরছে দেশে যেতে ইচ্ছুক প্রবাসীদের তালিকা করা হবে  » «   করোনা থেকে বাঁচতে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার আহ্বান পরিবেশমন্ত্রীর  » «   লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি হত্যা: মানব পাচারকারী চক্রের হোতা হাজী কামাল গ্রেফতার  » «  

স্পেনে দ্রুত বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা



স্পেনে প্রতিদিন যে হারে করোনা আক্রান্ত এবং মৃত্যের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে এ হারে বাড়তে থাকলে আক্রান্তের সংখ্যা ইতালিকেও ছাড়িয়ে যাবে আগামী দু-দিনের মধ্যে ।

করোনা ভাইরাসের কারণে প্রতি ঘন্টায় ঘন্টায় মৃত্যের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে এ যেন লাশের স্তূপে পরিণত হয়েছে স্পেন।গতকাল রাত ১২টার পর থেকে এ পর্যন্ত স্পেনে নতুন করে আরও ৪৭৩ জনের প্রাণ কেড়েছে করোনা ভাইরাস। এছাড়া নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৬ হাজার ৪৬১ জনের বেশি মানুষ।

মঙ্গলবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, স্পেনে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা বেড়ে ৯৪ হাজার ৪১৭ জনে দাঁড়িয়েছে।সোমবার এই সংখ্যা ছিল ৮৫ হাজার ১৯৫ জনে। সংক্রমণ বাড়তে থাকায় দেশটি এখন চীনকেও ছাড়িয়ে ইতালির কাছা কাছি পৌছে যাচ্ছে।
চীনে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা মঙ্গলবার দুপুর দু-টা পর্যন্ত ৮১ হাজার ৫১৮ এবং ইতালিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১১,৭৩৯ জন।

স্পেনে নতুন করে মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত ৪৭৩ জনের প্রাণহানির পর দেশটিতে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার ১৮৯ জনে। এদিকে অনেকে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরছেন ১৯,২৫৯জন।

করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে দেশটির সরকার কঠোর ব্যবস্থা নিলেও এর লাগাম টানতে হিমশিম খেতে হচ্ছে।করোনার প্রাদুর্ভাব কমিয়ে আনতে দেশটির সরকার গতকাল সোমবার থেকে বেশকিছু বিধি-নিষেধ আরোপ করেছে।

এতে বলা হয়েছে, সোমবার থেকে আগামী ৯ এপ্রিল পর্যন্ত দেশটির অপ্রয়োজনীয় কর্মীরা বাড়িতে অবস্থান করবেন। গত ১৪ মার্চ থেকে দেশজুড়ে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়