শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
অপপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে বাংলা প্রেসক্লাব ইতালী  » «   স্পেনে করোনা ভাইরাস : বাংলাদেশিদের জন্য দূতাবাসের নির্দেশনা  » «   স্পেনে ৫২বাংলার প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান  » «   হাউড বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের একুশে পালন  » «   একুশে উপলক্ষে নেপলীতে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের শিশু-কিশোরদের অনুষ্ঠান  » «   মাদ্রিদে স্প্যানিশ বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   স্পেনের ইতিহাসে প্রথম একুশে বইমেলা  » «   পর্তুগালের লিসবনে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   ইতালী আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল উপলক্ষে প্রস্তুতি কমিটি  » «   ইতালিতে অমর একুশে পালিত  » «   স্পেনে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   পরমাণু বিজ্ঞানী ও লেখক ড. ফয়জুর রহমান আল সিদ্দিকর সাথে কথোপকথন  » «   ২১শে ফেব্রুয়ারীতে বইমেলায় মানুষের ঢল  » «   একুশের চেতনা পাকিস্তানেও  » «   লন্ডনে সফলভাবে ‘বঙ্গবীর ওসমানী কাপ ২০২০’ সম্পন্ন  » «  

আমিরাতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে ৫২বাংলা টিভির দুই বছরে পা

দুই বছরে পা, বিশ্বায়নে বাংলা



আরব আমিরাতে ‘দুই বছরে পা, বিশ্বায়নে বাংলা’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে লন্ডন থেকে প্রচারিত অনলাইন চ্যানেল ৫২বাংলা টিভির বর্ণাঢ্য প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২১ ফেব্রুয়ারি শারজাহের রেডিসন ব্লু পাঁচ তারকা হোটেলে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ৫২ বাংলা টিভির বার্তা সম্পাদক লুৎফুর রহমান ও সংবাদপাঠিকা তিশা সেন। ১৯৪৭ সাল থেকে ১৯৭১ সাল পযন্ত রচিত নানা বিখ্যাত ছড়া দিয়ে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করা হয়। আরব আমিরাত এবং বাংলাদেশের জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে বায়ান্ন থেকে একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে নিহত সকল শহিদ এবং সমপ্রতিকালে ঢাকায় আগুনে নিহতদের স্মরণে দাঁড়িয়ে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দুবাই চিড়িয়াখানার পরিচালক ড. রেজা খান, বাংলাদেশ কনসুলেট দুবাইয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা সবুর হোসেন ও বিমান বাংলাদেশের আঞ্চলিক পরিচালক (দুবাই) দিলীপ কুমার চৌধুরী।

মধ্যপ্রাচ্যের প্রবাসীদের সমস্যা শীর্ষক আলোচনায় প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন সাইফুর রহমান (সাংবাদিকতা) প্রকৌশলী এস এ মোর্শেদ (পেশাদারিত্ব) ও প্রকৌশলী নওশের আলী (প্রবাসীদের স্বার্থরক্ষা)। তাদের প্রবন্ধে সমস্যাগুলো তুলে ধরার পাশাপাশি এর নিরসনে সরকার এবং প্রবাসীদের করণীয় কী সে বিষয়ে ব্যাখ্যা করা হয়।

অনুষ্ঠানে ৫২ বাংলা টিভির দুই বছরে পা উপলক্ষে আরব আমিরাতের বাংলাদেশি দুটো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শেখ জায়েদ বাংলাদেশ ইসলামিয়া স্কুল এন্ড কলেজ আবুধাবী, বাংলাদেশ ইংলিশ প্রাইভেট স্কুল এন্ড কলেজ রাস আল খাইমাকে সম্মাননা এবং বাংলাদেশি দুজন বরেণ্য শিক্ষাবিদ আবুধাবীর জায়েদ বিশ্ববিদ্যালয় আবুধাবীর অধ্যাপক ড. হাবিবুল হক খন্দকারকে আজীবন সম্মাননা ও দুবাইয়ের উলংগং বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. জিনাত রেজাকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। সেই সাথে আরব আমিরাতে আগুন থেকে পাকিস্তানি শিশুর জীবন রক্ষাকারি বাংলাদেশি প্রবাসী ফারুক ইসলামকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। এ সময় ফারুক সকল প্রবাসীকে এমন ভালো কাজে নিজের দেশকে তুলে ধরার আহবান জানান।

সম্মাননা প্রাপ্তদের মধ্য থেকে আবুধাবী বাংলাদেশ স্কুলের অধ্যক্ষ মীর আনিসুল হাসান, ড. জীনাত রেজা নিজেদের অনুভূতি ব্যক্ত করেন। তাঁদের আগামি পথচলায় এ সম্মান দেশের প্রতি পরবাসে দায়বোধ আরো বাড়ালো বলেও তাঁরা উল্লেখ করেছেন।

অনুষ্ঠানে ৫২ বাংলা টিভিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন মাহবুব আলম মানিক, সালেহ আহমদ, হাজী শফিকুল ইসলাম, এম এ বাশার, মহিউদ্দিন ইকবাল, নজরুল ইসলাম চৌধুরী, সাংবাদিক শিবলী আল সাদিক, সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম তালুকদার, সোনিয়া পারভীনসহ অনেকে।

এ সময় আরব আমিরাতের কমিউনিটি নানা সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রবাসীদের কল্যাণে ইতিবাচক সাংবাদিকতার জন্য ৫২ বাংলা টিভি আমিরাত টিমকে ফুলেল শুভেচ্ছায় অভিনন্দিত করা হয়।

মনোমুগ্ধকর এ অনুষ্ঠানে দেশের যে কোন সংবাদমাধ্যমের অনুষ্ঠানে তারকাদের মিলনমেলার মতো ছিলো। আরব আমিরাতে থাকা সকল বাংলাদেশি কণ্ঠ ও নৃত্য শিল্পীদের অনুষ্ঠানে সম্মাননা প্রদান করা হয়। সম্মাননা প্রাপ্ত কণ্ঠশিল্পীরা হলেন – ইয়াসমিন কালাম মেরুনা, জসিম উদ্দিন পলাশ, সামিদা চৌধুরী, জাবেদ আহমদ মাসুম, শম্পা শফিক, সাবরিনা মেহেরুন টুম্পা, আবির ইমরান, বঙ্গ শিমুল, সোনিয়া সামিয়া, সঞ্জয় ঘোষ, ফারাহ শামস, শিপন কর্মকার, সাজেদুল ইসলাম প্রবাল।

অনুষ্ঠানে আগত দর্শকদের হাতে বাংলা ১ থেকে ১০০ সংখ্যার কূপন দেওয়া হয়। ২১, ৫২, ৭১ বাঙালির জাতীয় জীবনে গুরুত্বপূর্ণ এই তিনটি সংখ্যা প্রাপ্ত সাইদা দিবা, ফাহমিদা চৌধুরী ও হাবিবুর রহমানকে মঞ্চে ডেকে নাটকের সংলাপ, কবিতা এবং গান প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয। পরে তাদের তিনজনকেই পুরস্কৃত করা হয়।

‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ গানের মধ্য দিয়ে সাংস্কৃতিক পর্ব শুরু হয়। একে একে পরিবেশন করা হয় ভাষা এবং মুক্তিযুদ্ধের জাগরণী গান। গান পরিবেশন করেন আরব আমিরাতে থাকা সকল প্রবাসী কণ্ঠশিল্পীরা। রবীন্দ্রনাথের একলা চলোরে গানে নৃত্য পরিবেশন করেন ফারাহ শামস। ৫২ বাংলা টিভি নিয়ে যাদু পরিবেশন করেন মো. সানোয়ার।

আরব আমিরাতে এ যাবৎকালের সেরা কোন অনুষ্ঠান এমন মন্তব্য করেছেন অনুষ্ঠানে আসা সুধীজনেরা। সৃজনশীলতা, গুণগত মান এবং মন জাগানি এ অনুষ্ঠান অনেকদিন মন ভাল রাখবে বলেও জানিয়েছেন তারা।

পুরো এ অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন টিম ৫২ আমিরাতের লুৎফুর রহমান, তিশা সেন, জাবেদ আহমদ, আমিনুল হক ও সঞ্জয় ঘোষ। টিম ৫২ আমিরাতের সদস্যদের এ সময় সনদ তুলে দেন কনসুলেটের প্রশাসনিক কর্মকর্তা সবুর হোসেন।

দৃষ্টিনন্দিত এ অনুষ্ঠান পরিচালনা করতে স্বেচ্ছাসেবী ছিলেন অনুপ সেন, রূপশ্রী সেন, লুৎফুর মিছবা, সাইফুর মাহমুদ, তুষার মুহিব ও ইমন খান। অনুষ্ঠানে ৫২ বাংলা টিভির স্টাফ করেসপন্ডেন্ট তিশা সেনকে বর্ষসেরা প্রতিবেদক এর পুরস্কার তুলে দেন কনসুলেটের প্রশাসনিক কর্মকর্তা সবুর হোসেন এবং ৫২বাংলা টিভির পরিচালক ও বার্তা সম্পাদক লুৎফুর রহমান ।

পরে আগত সকল দর্শকদের নিয়ে কেক কেটে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে। অনুষ্ঠানের শেষে আগামিতেও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় পথ চলে প্রবাসীদের পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন ৫২ বাংলা টিভির পরিচালক ও বার্তা সম্পাদক এবং আমিরাত টিমের প্রধান লুৎফুর রহমান।

প্রসঙ্গত, ৫২ বাংলা টিভি লন্ডন থেকে প্রচারিত হয়। বর্ষপূর্তি উপলক্ষে বিশ্বের প্রায় ১৫টি দেশে একযোগে অনুষ্ঠিত হচ্ছে এ বর্ণাঢ্য বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠান। উন্নয়ন সাংবাদিকতা এবং প্রবাসে ইতিবাচক বাংলাদেশকে তুলে ধরতে এ চ্যানেল আগামি দিনও পথ চলবে ।

 

কণ্ঠ: তিশা সেন