বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
ফ্রান্সে পররাষ্ট্রমন্ত্রী  ড.এ কে আব্দুল মোমেন সংবর্ধিত  » «   শাবির বেগম সিরাজুন্নেসা হলের নতুন প্রভোস্ট জাফরিন আহমেদ  » «   বিয়ানীবাজার আদর্শ মহিলা কলেজে কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত  » «   হাইড বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ারের বার্ষিক সাধারন সভা  » «   যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের দুঃখপ্রকাশ  » «   ফেসবুকে মহানবীকে (সা.) কটূক্তির অভিযোগ’র ঘটনা  » «   সাকিবের নেতৃত্বে ক্রিকেটারদের ধর্মঘটের ডাক  » «   সিলেটে ক্রিয়েটর ল্যাব অত্যাধুনিক আইটি শিক্ষা দিচ্ছে  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতাল-এ বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা  » «   স্পেনে ‘হাসিনা: এ ডটার্স টেল’ প্রদর্শিত  » «   দুবাইয়ে বাংলাদেশি মালিকানাধিন তৈয়ুর আল জান্নাহ স্টেশনারির যাত্রা শুরু  » «   কাতালানদের আন্দোলনে বার্সেলোনা কার্যত অচল  » «   স্পেনে এশিয়ান চলচ্চিত্র প্রদর্শনী উৎসবে ‘হাসিনা:এ ডটার্স টেল ‘ প্রদর্শিত  » «   বিজিবি-বিএসএফ গুলাগুলি:বিএসএফ সদস্য নিহত  » «   বিক্ষোভ-মিছিল-অগ্নিসংযোগ আর আন্দোলনে উত্তাল স্পেনের কাতালোনীয়া  » «  

কোমল পানীয়তে ক্যান্সার সহ মৃত্যুঝুকি



প্রচণ্ড গরমে আমরা শরীরকে চাঙ্গা করতে কোমল পানীয় খেয়ে থাকি। প্রায় সব বয়সী মানুষের কাছে এই কোমল পানীয় খুবই জনপ্রিয়। কোমল পানীয় পান করা বর্তমান সময়ে সবার কাছেই স্বভাবে পরিণত হয়েছে। আর এই স্বভাব ডেকে আনছে মারাত্মক সব বিপদ।চিনি দিয়ে বা কৃত্রিম মিষ্টি দিয়ে তৈরি কোমল পানীয় আগাম মৃত্যুর ঝুঁকি অনেক বাড়িয়ে দিচ্ছে। কারণ এসব খাবারের কারণে হৃদরোগ এবং কয়েক ধরণের ক্যান্সারের আশঙ্কা তৈরি হচ্ছে।

হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির টিএইচ চ্যান স্কুল অব পাবলিক হেলথ পরিচালিত নতুন একটি গবেষণায় এ তথ্য বেরিয়ে আসে।
গত ৩০ বছর ধরে চালানো গবেষণাটির ফলাফল গতমাসে প্রকাশিত হয়। সারা বিশ্বের ৩৭ হাজার পুরুষ এবং ৮০ হাজার নারীর ওপর ওই গবেষণাটি পরিচালিত হয়।

এতে দেখা গেছে, চিনি দিয়ে তৈরি কোমল পানীয় পানের কারণে অন্য কোন কারণ ছাড়াই তাদের আগাম মৃত্যুর ঝুঁকি বেড়ে গেছে।কোমল পানীয় খাওয়ার এই অভ্যাস বিভিন্ন রোগ ডেকে আনতে পারে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

কোমল পানীয়তে কেন বিপদ

পুষ্টিবিদদের হিসাব অনুযায়ী, একটি ৩৩০ গ্রাম কোমল পানীয়র বোতলে প্রায় ১০ শতাংশ জুড়ে থাকে শর্করা ও ক্যাফেইন। এর জেরে ওবেসিটি, টাইপ ২ ডায়াবিটিস ও মানসিক অস্থিরতার সমস্যা তৈরি হতে পারে।
নতুন এই সমীক্ষায় কোমল পানীয় নিয়ে যে তথ্য উঠে এসেছে তা রীতিমত আঁতকে ওঠার মতো।

‘আমেরিকান হার্ট অ্যাসোশিয়েশন’-এর নতুন সমীক্ষা থেকে জানা গেছে, ১৮ থেকে ৪০ বছর বয়সি ৩৪ জন সুস্থ মানুষের ওপর তিন দিন গবেষণা চালানো হয়। গবেষণায় দেখা গেছে, প্রতিদিন এক লিটার বা তার বেশি এই ধরনের পানীয় খেলে সুস্থ মানুষের যে রক্তচাপ থাকে, তার চেয়ে অনেক বেশি বেড়ে যায়। এছাড়া হৃদস্পন্দনের গতিও স্বাভাবিক থাকে না।   প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসির অধ্যাপক সচিন এ শাহ তাঁর এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, শুধু ক্যাফেইন নয়, এই ধরনের পানীয়তে টাওরিন (এক ধরনের অ্যামিনো অ্যাসিড),গ্লুকুরোনোল্যাকটোন জাতীয় বহুবিধ উপাদান থাকে। তাই এই পানীয় যত কম পান করা যায় ততই শরীরের জন্য ভালো।