বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
অপপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে বাংলা প্রেসক্লাব ইতালী  » «   স্পেনে করোনা ভাইরাস : বাংলাদেশিদের জন্য দূতাবাসের নির্দেশনা  » «   স্পেনে ৫২বাংলার প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান  » «   হাউড বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের একুশে পালন  » «   একুশে উপলক্ষে নেপলীতে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের শিশু-কিশোরদের অনুষ্ঠান  » «   মাদ্রিদে স্প্যানিশ বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   স্পেনের ইতিহাসে প্রথম একুশে বইমেলা  » «   পর্তুগালের লিসবনে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   ইতালী আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল উপলক্ষে প্রস্তুতি কমিটি  » «   ইতালিতে অমর একুশে পালিত  » «   স্পেনে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   পরমাণু বিজ্ঞানী ও লেখক ড. ফয়জুর রহমান আল সিদ্দিকর সাথে কথোপকথন  » «   ২১শে ফেব্রুয়ারীতে বইমেলায় মানুষের ঢল  » «   একুশের চেতনা পাকিস্তানেও  » «   লন্ডনে সফলভাবে ‘বঙ্গবীর ওসমানী কাপ ২০২০’ সম্পন্ন  » «  

হাজারো মানুষের উপস্থিতিতে কনস্যুলার সেবা প্রদান করেছে মাদ্রিদ দূতাবাস



বার্সেলোনায় প্রবাসীদের নানা সমস্যা , দুর্ভোগে সহায়তা এবং সরকারের প্রবাসীবান্ধব সেবাগুলো প্রবাসীদের কাছে পৌছে দিতে বাংলাদেশ দূতাবাস মাদ্রিদ বার্সেলোনায় কনস্যুলার সেবা প্রদান করে আসছে প্রতি দুই মাস পর পর ধারাবাহিক ভাবে।

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী গত ২৫ মে শনিবার বাংলাদেশ দূতাবাস মাদ্রিদ টীম বার্সেলোনার কাইয়ে উরখেল ১৪৫ নম্বর সেন্ট্রো সিবিক হলে এই দূতাবাস সেবা প্রদান করে।সকাল ৯টা থেকে বার্সেলোনা সহ এর আশ-পাশের বিভিন্ন এলাকার প্রায় এক হাজার প্রবাসী সেবা নিতে উপস্থিত হোন।

লোকজন বেশী হওয়াতে একদিনের জন্য সেবা দিতে আসা দুতাবাস টীমের নির্ধারিত সময় সন্ধা ৭টার মধ্যে সেবা প্রদান করতে কিছুটা হিমশিম খেতে হলেও তারা তাদের সময়ের আগেই সেবা প্রদান কার্য সফলভাবে শেষ করতে সক্ষম হয়।

সেবা প্রদান দিতে আসেন মাদ্রিদে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের ১ম শ্রম সচিব শরিফুল ইসলাম,অফিস সহকারী সাইফুল ইসলাম সহ মোট চারজন দূতাবাস কর্মকর্তা ।

সেবাসমুহ হচ্ছে মোট ১৪৩ জন প্রবাসীদের মধ্যে পাসপোর্ট বিতরণ,১২ জনের নতুন এমআরপি’র এনরোলমেন্ট,৮০ টি পুরাতন এমআরপি রি-ইস্যু ও ৬ বছরের কম বয়সী বাচ্চাদের এম’আরপি’র আবেদন গ্রহণ,৫৭ টি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদন সত্যায়ন এবং ০২টি ট্রাভেল পাস ইস্যু করা হয়।

এছাড়াও অন্যান্য সেবাসমুহ হচ্ছে মোবাইল ইউনিটের মাধ্যমে নতুন পাসপোর্টের আবেদনকারীর ছঁবি, ফিঙ্গার প্রিন্ট গ্রহণ,স্প্যানিশ পাসপোর্টধারী বাংলাদেশী নাগরিকদের নো-ভিসা আবেদন গ্রহণ,বিভিন্ন কাগজপত্র সত্যায়ন এবং ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের সদস্য হওয়ার আবেদন গ্রহণ ইত্যাদি।

প্রায় ১৫ হাজার বাংলাদেশী অধ্যুষ্যিত বার্সেলোনায় প্রবাসীরা প্রতিমাসে অন্তত দুইদিন সেবা কার্যক্রম পরিচালনার জোর দাবি জানিয়েছেন।