রবিবার, ৩ জুলাই ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
বিলেতে কারী শিল্পে ঈদের ছুটি সময়ের দাবি  » «   ঈদের ছুটি  » «   ইউরোপে জ্বালানি সংকট চরমে, বিকল্প ভাবতে হচ্ছে ইউরোপকে  » «   হাইডে প্রবীণদের স্মরণে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল  » «   ঈদের দিন হোক সবার উৎসবের দিন  » «   ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হসপিটাল সিলেটের সার্টিফিকেট বিতরণী অনুষ্ঠিত  » «   নেদারল্যান্ডস বাংলাদেশী সমিতি’ ইউকে’র যাত্রা শুরু  » «   ব্রিটেন প্রবাসে ঈদ ছুটি নিয়ে ভাবনা ও আমাদের করণীয়  » «   ঈদে ছুটি নাই  » «   কমিউনিটি ও পরিবারের স্বার্থকে প্রাধান্য দিলে ঈদের ছুটি নিয়ে দ্বি-মত থাকবে না- শায়খ আব্দুল কাইয়ুম  » «   ব্রিটেনে ঈদ হলিডে : আকাঙ্ক্ষা ও বাস্তবতা  » «   দয়া নয়, ঈদের ছুটি শ্রমজীবি মুসলমানদের অধিকার  » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি নিয়ে কমিউনিটি ও মানবাধিকার নেতারা যা বলেন  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃক বন্যা দুর্গতদের চিকিৎসার্থে বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   যুক্তরাজ্যে ঈদের ছুটির দাবীতে  আলতাব আলী পার্কে সমাবেশ অনুষ্ঠিত  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


প্রয়াত আরফান আলী’র স্মরণে দোয়া ও ইফতার মাহফিল



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক প্রয়াত আরফান আলী’র ৩৬তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বার্সেলোনায় দোয়া ও ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

১৫ই মে বার্সেলোনার শাহ জালাল জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয় এ মাহফিল। এতে বার্সেলোনায় বসবাসরত সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ ছাড়াও শতাধিক ধর্মপ্রান মুসল্লী উপস্থিত ছিলেন।

প্রয়াত আরফান আলী’র কনিষ্ট পূত্র বার্সেলোনা জালালাবাদ এ্যাসোসিয়েশনের আহবায়ক কামরুজ্জামান কামরুলের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় এ অনুষ্ঠান।

ইফতারপূর্ব দোয়া মাহফিলে বিশ্ব মুসলিম উম্মার শান্তি কামনার পাশাপাশি মুরহুম এবং উনার পরিবারের জন্য বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন শাহ জালাল জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা ইসমাইল হোসেন।

উল্লেখ্য- প্রয়াত আরফান আলী সিলেট জেলা জুরী বোর্ডের সদস্য, সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাকালিন সহ সভাপতি, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামিলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, বালাগঞ্জ ও গোলাপগঞ্জ উপজেলার মুক্তিযুদ্ধের সমন্বয়ক, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা ও গোবিনপুর সিমান্তের যুদ্ধকালিন আনসার কামান্ডার, মুক্তিযোদ্ধাদের পরিচয় প্রদানকারী মুক্তিযোদ্ধা কামান্ডার ছাড়াও ঘিলাছড়া দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয় এবং ঘিলাছড়া হাফিজিয়া মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন