বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
আজীবন সম্মাননা পেলেন সৈয়দ আফসার উদ্দিন এমবিই  » «   লন্ডন বাংলা স্কুলের আয়োজনে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত  » «   লন্ডনবাসী প্রবীণ মুরব্বী জমির উদ্দিন( টেনাই মিয়া)র ইন্তেকাল  » «   কবি সংগঠক ফারুক আহমেদ রনির পিতা মুমিন উদ্দীনের ইন্তেকাল  » «   একসেস ট্যু জাস্টিস নিশ্চিত করা আইনের শাসনের প্রধান স্তম্ভ  » «   বৃহত্তর সিলেট এডুকেশন ট্রাস্টের নির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত  » «   বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে প্যালেষ্টাইনের জনগণের প্রতি উৎসর্গ করে লন্ডনে সমাবেশ  » «   এডভোকেট মোহাম্মদ আব্বাছ উদ্দিন যুক্তরাজ্যে আসছেন  » «   হিলালপুর গ্রামে সড়ক বাতি উদ্বোধন  » «   বিয়ানীবাজার জনকল্যাণ সমিতি ইউকের কার্যকরী কমিটির পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত  » «   পূর্ব মুড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এসএসসিপরীক্ষার্থীদের মধ্যে পরীক্ষা উপকরণ বিতরণ  » «   গুচ্ছ কবিতা ।। আতাউর রহমান মিলাদ  » «   ব্রিটেনের রাজা চার্লস ক্যান্সারে আক্রান্ত  » «   গুচ্ছ কবিতা ।। আবু মকসুদ  » «   মোহাম্মদ এমদাদুল হক চৌধুরী : শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন

শুনো গো দখিন হাওয়া….
দুবাইয়ে ফাগুন উৎসব



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে ফাগুন উৎসবে মেতেছিলো প্রবাসীরা। হলদে বরণ সাজ আর স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি প্রবাসে ভেসে উঠেছে এক টুকরো বাংলাদেশ। এ যেন বিশ্বকবির ‘আজি দখিন-দুয়ার খোলা,এসো হে, এসো হে, এসো হে আমার বসন্ত এসো’ আহবান।

মরুর আকাশে বাতাসেও যেন লেগেছিলো বাংলাদেশের ফাগুন হাওয়া। মহিলাদের হলুদ শাড়ির সাথে তাল মিলিয়ে পুরুষেরাও পরেছিলেন হলুদ রাঙা পান্জাবী। নানা বাহারি পশরায় দেশকে খুঁজে পাবার এর পরম সুখ যেন ছিলো এই উৎসবে।

শুক্রবার দুবাইয়ের মোহাইসানা পন্ড পার্কে এ আয়োজন করেন সংস্কৃতিকর্মী সাইদা দিবা, সিআইপি জেসমিন আক্তার, শাফেয়া আক্তার তুহিন সহ অন্যান্যরা।

অনুষ্ঠানে নারী, পুরুষ আবাল বৃদ্ধ বণিতা সকলের উপস্থিতি প্রাণবন্ত করে বাসন্তী বিকেল। এনআরবি ব্যাংকেরে চেয়ারম্যান সিআইপি মাহতাবুর রহমান নাসের সহ কমিউনিটির অন্যান্য বরেন্য ব্যক্তিরাও এসেছিলেন স্বপত্নীক। প

অনুষ্ঠানে নিজ ঘরে ফাগুনের পিঠা বানিয়েছিলেন অনেকে। সুন্দর পোষাক পরা মহিলাদের থেকে সেরা সুন্দরী এবং ছেলেদের তেকে বসন্তরাজ নির্বাচিত করা হয়। দেয়া হয় পুরস্কারও।

অনুষ্ঠানে আগতরা জানান, সামাজিক এবং রাজনৈতিক অনুষ্ঠানের বাইরেও বাংলাদেশের সার্বজনীন এমন উৎসবের আয়োজনে দেশের আমেজ পাওয়া যায়। এসব আয়োজন অব্যাহত রাখার আহবানও তাদের।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন