বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
ঈদে ছুটি নাই  » «   কমিউনিটি ও পরিবারের স্বার্থকে প্রাধান্য দিলে ঈদের ছুটি নিয়ে দ্বি-মত থাকবে না- শায়খ আব্দুল কাইয়ুম  » «   ব্রিটেনে ঈদ হলিডে : আকাঙ্ক্ষা ও বাস্তবতা  » «   দয়া নয়, ঈদের ছুটি শ্রমজীবি মুসলমানদের অধিকার  » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি নিয়ে কমিউনিটি ও মানবাধিকার নেতারা যা বলেন  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃক বন্যা দুর্গতদের চিকিৎসার্থে বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   যুক্তরাজ্যে ঈদের ছুটির দাবীতে  আলতাব আলী পার্কে সমাবেশ অনুষ্ঠিত  » «   পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে স্পেনে দূতাবাসের বিশেষ আয়োজন  » «   পদ্মা সেতুর স্মারক নোট বাজারে আসবে রবিবার  » «   পদ্মা সেতুর জন্য অভিনন্দন বিশ্বব্যাংক প্রতিনিধির  » «   অদম্য বাংলাদেশ, খুলল পদ্মার দ্বার  » «   আছে শুধু ভালোবাসা, দিয়ে গেলাম তাই: প্রধানমন্ত্রী  » «   রেমিটেন্স প্রেরণে উদ্বুদ্ধকরণে মাদ্রিদে মতবিনিময় সভা’ অনুষ্ঠিত  » «   বিশ্বনাথে মায়ের কোল থেকে ভেসে গেল শিশু, ৫ জনের মৃত্যু  » «   লন্ডনে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র ইউকের বিশ বছরপূর্তি উদযাপন  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


আমিরাতের ‘ফ্রাইডে মার্কেট’ দিনরাত জেগে থাকে



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

ফ্রাইডে মার্কেট। নামের সাথেই যেন জুড়ে আছে নানা কৌতুহল। সংযুক্ত আরব আমিরাতের এই ঐতিহ্যবাহী বাজারে কেনাকাটা করার আনন্দ যেন বিশ্বের কোন বৃহত্তম মলের চেয়েও বেশি।

আরব আমিরাতের পাথরঘেরা প্রদেশ ফুজিরাহ দেখতে আশা পর্যটকদের যদি ফ্রাইডে মার্কেট দেখানো না হয়, তাহলে তাদের ফুজিরাহ দেখা ই হয় নি I তাই পর্যটকদের গাড়ি এখানে থামানো কোন আশ্চর্যের ব্যাপার না ।

বাজারটির নাম ফ্রাইডে মার্কেট হলেও এটি প্রতিদিন খোলা থাকে। ভ্রমণ পিপাসুদের জন্য এ মার্কেট রাত দিন জেগে থাকে। এমনকি রাতের মাঝামাঝি রাস্তায় ভ্রমণ করলে আপনার জন্য একটি মিষ্টি কলা বা আপেল বিক্রি করতে কেউ না কেউ জেগে থাকে এ মার্কেটে।

ফ্রাইডে মার্কেটের প্রকৃত উৎস খুবই রহস্যের চাদরে ঢাকা। কিন্তু কিছুটা লোক মুখে জানা গেছে যে কয়েক দশক আগে তিনটি আমিরাতি কৃষক মসজিদে আসতেন এবং জুম্মার নামাজের পর তারা তাদের ট্রাকগুলি আনলোড করতেন এবং রাস্তার পাশের স্টলগুলিতে তাদের চাষ করা পণ্য বিক্রি করতেন ।

ফ্রাইডে মার্কেট কে আরো সুন্দর করে তুলার অনেক নতুন-নতুন প্রদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে । সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বিদ্যুৎ সংযোগ স্থাপন করা হয়েছে এবং পেট্রল স্টেশন ও একটি আধুনিক স্পর্শ যোগ করেছে। ফ্রাইডে মার্কেটে এখন সময়ের সাথে, অনেক কম আমিরাতি কৃষকদের দেখা যায় l এখন বাজারে দেখা যায়, বাংলাদেশী ফল সবজি বিক্রেতা, পাকিস্তানী ও আফগানী কার্পেট বিক্রেতা, এবং ভারতীয় ও মিশরী ক্যাফেঅলাদের l রয়েছে বাংলাদেশীদের সিংহভাগ বিচরণ।

  • এই বাজারটির একটি আকর্ষণীয় দিক হচ্ছে, এখানে আপনি গাছপালা, শাক সবজি থেকে শুরু করে, অনেক ধরণের সরঞ্জাম পাবেন l মলের দেয়ালের বদ্ধ পরিবেশে যারা কেনাকাটা করা পছন্দ করেন না, তাদের জন্যে এটি বিশেষ একটি জায়গা l আপনি যদি চারপাশে তাকান তবে পাহাড় ও খামার দেখতে পাবেন যা মাটির একটি সুদৃঢ় অনুস্মারক এবং এই বাজারের অনেক সামগ্রীই সেখান থেকে এসেছে।

এই বাজারটিতে আজও আছে, দর দাম করার মজা, যা অনেক মলের ফিক্সড প্রাইসের সীলের নিচে হারিয়ে যাচ্ছে l আর এমন ঐতিহ্যবাহী কিছু স্থান কে বাঁচিয়ে রাখতে, আমাদের বার বার ছুটে যাওয়া উচিত, ফুজিরার সেই ওয়াদি গুলোতে, যেখানে এই ‘ফ্রাইডে মার্কেট’ টি অবস্থিত।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন