সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
সৈয়দ আফসার উদ্দিন এমবিই‘র ইন্তেকাল  » «   ছাত্রলীগের উদ্যোগে বিয়ানীবাজারে পথচারী ও রোগীদের মধ্যে ইফতার উপহার  » «   ইস্টহ্যান্ডসের রামাদান ফুড প্যাক ডেলিভারী সম্পন্ন  » «   বিসিএ রেস্টুরেন্ট কর্মীদের মানসিক স্বাস্থ্য সুরক্ষায় এনএইচএস এর ‘টকিং থেরাপিস’ সার্ভিস ক্যাম্পেইন করবে  » «   গ্রেটার বড়লেখা এসোশিয়েশন ইউকে নতুন প্রজন্মদের নিয়ে কাজ করবে  » «   স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বিয়ানীবাজার প্রেসক্লাবের দোয়া ও ইফতার মাহফিল  » «   কানাডা যাত্রায়  ইমিগ্রেশন বিড়ম্বনা এড়াতে সচেতন হোন  » «   ব্রিটিশ রাজবধূ কেট মিডলটন ক্যানসারে আক্রান্ত  » «   যুদ্ধ বিধ্বস্ত গাজাবাসীদের সাহায্যার্থে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই ইন দ্য ইউকের অনুদান  » «   বড়লেখায় পাহাড়ি রাস্তা সম্প্রসারণে বেরিয়ে এলো শিলাখণ্ড  » «   মাইল এন্ড পার্কে ট্রিস ফর সিটিস এর কমিউনিটি বৃক্ষরোপণ  » «   রয়েল টাইগার্স স্পোর্টস ক্লাবের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন  » «   গোলাপগঞ্জ স্যোশাল এন্ড কালচারাল ট্রাস্ট ইউকে’র সাধারণ সভা ও নির্বাচন সম্পন্ন  » «   যুক্তরাজ্যবাসি  সাংবা‌দিক সাইদুল ইসলামের পিতা আব্দুল ওয়াহিদের ইন্তেকাল  » «   ইউকে বাংলা রিপোটার্স ইউনিটি‘র নতুন কার্যকরী কমিটির অভিষেক  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন

আমিরাতের ‘ফ্রাইডে মার্কেট’ দিনরাত জেগে থাকে



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

ফ্রাইডে মার্কেট। নামের সাথেই যেন জুড়ে আছে নানা কৌতুহল। সংযুক্ত আরব আমিরাতের এই ঐতিহ্যবাহী বাজারে কেনাকাটা করার আনন্দ যেন বিশ্বের কোন বৃহত্তম মলের চেয়েও বেশি।

আরব আমিরাতের পাথরঘেরা প্রদেশ ফুজিরাহ দেখতে আশা পর্যটকদের যদি ফ্রাইডে মার্কেট দেখানো না হয়, তাহলে তাদের ফুজিরাহ দেখা ই হয় নি I তাই পর্যটকদের গাড়ি এখানে থামানো কোন আশ্চর্যের ব্যাপার না ।

বাজারটির নাম ফ্রাইডে মার্কেট হলেও এটি প্রতিদিন খোলা থাকে। ভ্রমণ পিপাসুদের জন্য এ মার্কেট রাত দিন জেগে থাকে। এমনকি রাতের মাঝামাঝি রাস্তায় ভ্রমণ করলে আপনার জন্য একটি মিষ্টি কলা বা আপেল বিক্রি করতে কেউ না কেউ জেগে থাকে এ মার্কেটে।

ফ্রাইডে মার্কেটের প্রকৃত উৎস খুবই রহস্যের চাদরে ঢাকা। কিন্তু কিছুটা লোক মুখে জানা গেছে যে কয়েক দশক আগে তিনটি আমিরাতি কৃষক মসজিদে আসতেন এবং জুম্মার নামাজের পর তারা তাদের ট্রাকগুলি আনলোড করতেন এবং রাস্তার পাশের স্টলগুলিতে তাদের চাষ করা পণ্য বিক্রি করতেন ।

ফ্রাইডে মার্কেট কে আরো সুন্দর করে তুলার অনেক নতুন-নতুন প্রদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে । সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বিদ্যুৎ সংযোগ স্থাপন করা হয়েছে এবং পেট্রল স্টেশন ও একটি আধুনিক স্পর্শ যোগ করেছে। ফ্রাইডে মার্কেটে এখন সময়ের সাথে, অনেক কম আমিরাতি কৃষকদের দেখা যায় l এখন বাজারে দেখা যায়, বাংলাদেশী ফল সবজি বিক্রেতা, পাকিস্তানী ও আফগানী কার্পেট বিক্রেতা, এবং ভারতীয় ও মিশরী ক্যাফেঅলাদের l রয়েছে বাংলাদেশীদের সিংহভাগ বিচরণ।

  • এই বাজারটির একটি আকর্ষণীয় দিক হচ্ছে, এখানে আপনি গাছপালা, শাক সবজি থেকে শুরু করে, অনেক ধরণের সরঞ্জাম পাবেন l মলের দেয়ালের বদ্ধ পরিবেশে যারা কেনাকাটা করা পছন্দ করেন না, তাদের জন্যে এটি বিশেষ একটি জায়গা l আপনি যদি চারপাশে তাকান তবে পাহাড় ও খামার দেখতে পাবেন যা মাটির একটি সুদৃঢ় অনুস্মারক এবং এই বাজারের অনেক সামগ্রীই সেখান থেকে এসেছে।

এই বাজারটিতে আজও আছে, দর দাম করার মজা, যা অনেক মলের ফিক্সড প্রাইসের সীলের নিচে হারিয়ে যাচ্ছে l আর এমন ঐতিহ্যবাহী কিছু স্থান কে বাঁচিয়ে রাখতে, আমাদের বার বার ছুটে যাওয়া উচিত, ফুজিরার সেই ওয়াদি গুলোতে, যেখানে এই ‘ফ্রাইডে মার্কেট’ টি অবস্থিত।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন