রবিবার, ৩ জুলাই ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
বিলেতে কারী শিল্পে ঈদের ছুটি সময়ের দাবি  » «   ঈদের ছুটি  » «   ইউরোপে জ্বালানি সংকট চরমে, বিকল্প ভাবতে হচ্ছে ইউরোপকে  » «   হাইডে প্রবীণদের স্মরণে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল  » «   ঈদের দিন হোক সবার উৎসবের দিন  » «   ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হসপিটাল সিলেটের সার্টিফিকেট বিতরণী অনুষ্ঠিত  » «   নেদারল্যান্ডস বাংলাদেশী সমিতি’ ইউকে’র যাত্রা শুরু  » «   ব্রিটেন প্রবাসে ঈদ ছুটি নিয়ে ভাবনা ও আমাদের করণীয়  » «   ঈদে ছুটি নাই  » «   কমিউনিটি ও পরিবারের স্বার্থকে প্রাধান্য দিলে ঈদের ছুটি নিয়ে দ্বি-মত থাকবে না- শায়খ আব্দুল কাইয়ুম  » «   ব্রিটেনে ঈদ হলিডে : আকাঙ্ক্ষা ও বাস্তবতা  » «   দয়া নয়, ঈদের ছুটি শ্রমজীবি মুসলমানদের অধিকার  » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি নিয়ে কমিউনিটি ও মানবাধিকার নেতারা যা বলেন  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃক বন্যা দুর্গতদের চিকিৎসার্থে বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   যুক্তরাজ্যে ঈদের ছুটির দাবীতে  আলতাব আলী পার্কে সমাবেশ অনুষ্ঠিত  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


দুবাইয়ে আনসারি এক্সচেঞ্জের ড্রয়ে ১০ লাখ দেরহাম পেলেন এক বাংলাদেশি



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

সংযুক্ত আরব আমিরাতে আল আনসারি এক্সচেঞ্জের গ্রীষ্মকালিন গ্রাহক ড্রয়ে ১০ লক্ষ দেরহাম জিতেছেন ৩০ বছর বয়েসি বাংলাদেশি আবদুল্লাহ আল আরাফাত। তার গ্রামের বাড়ি ফেনী জেলার সোনাগাজীতে। বাবার নাম মোম্মদ মহসিন। মাত্র ২৬১ দেরহাম দেশে পাঠিয়েছিলেন তিনি। তার ফলে ঘুরে গেলো ভাগ্যের চাকা। বৈধপথে টাকা পাঠানোর এ আরেক ফল বলেও মনে করেন তিনি।

মঙ্গলবার দুবাইয়ে আল আনসারি এক্সচেঞ্জের ড্রতে তিনি এ পুরস্কার পেয়ে নিজেকে ভাগ্যবান বলেছেন। আট জন চূড়ান্ত প্রার্থীকে (দুজন আমিরাতী, দুজন ফিলিপিনো, একজন ভারতীয়, একজন পাকিস্তানি, একজন ইন্দোনেশিয়ান এবং আরেকজন বাংলাদেশী) পিছনে ফেলে এই পুরস্কার জিতে নেন। অন্য আটজন চূড়ান্ত প্রতিযোগীদেরও খালি হাতে ফিরতে হয়নি। তাদেরকে ও ১০ হাজার দিরহাম প্রতিজন করে দেয়া হয়েছে।

আব্দুল্লাহ প্রথমবারের মতো বাবা হতে যাচ্ছেন। তার এ প্রাপ্তিতে সন্তানের ভাগ্য জড়ি আছেন বলেও তিনি আবেগাপ্লুত কণ্ঠে জানান।
নয় বছর ধরে দুবাইয়ে বসবাসরত আবদুল্লাহ বলেন-তিনি তার স্ত্রীর কাছে পুরস্কারের কিছু ভাগ বাড়িতে পাঠিয়ে দেবেন। আগামি মাসে তাদের প্রথম সন্তানের জন্ম দেওয়ার প্রত্যাশা করছেন। এবং বাকী অংশটি তিনি নিজের টেইলারিং ও মোবাইল আনুষাঙ্গিক ব্যবসার সম্প্রসারণে বিনিয়োগ করবেন।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন