শনিবার, ২ মার্চ ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
টাওয়ার হ্যামলেটসের নতুন বাজেটে হাউজিং, শিক্ষা, অপরাধ দমন, তরুণ, বয়স্ক ও মহিলাদের জন্য বিশেষ কর্মসূচিতে বিপুল বিনিয়োগ প্রস্তাব  » «   আজীবন সম্মাননা পেলেন সৈয়দ আফসার উদ্দিন এমবিই  » «   লন্ডন বাংলা স্কুলের আয়োজনে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত  » «   লন্ডনবাসী প্রবীণ মুরব্বী জমির উদ্দিন( টেনাই মিয়া)র ইন্তেকাল  » «   কবি সংগঠক ফারুক আহমেদ রনির পিতা মুমিন উদ্দীনের ইন্তেকাল  » «   একসেস ট্যু জাস্টিস নিশ্চিত করা আইনের শাসনের প্রধান স্তম্ভ  » «   বৃহত্তর সিলেট এডুকেশন ট্রাস্টের নির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত  » «   বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে প্যালেষ্টাইনের জনগণের প্রতি উৎসর্গ করে লন্ডনে সমাবেশ  » «   এডভোকেট মোহাম্মদ আব্বাছ উদ্দিন যুক্তরাজ্যে আসছেন  » «   হিলালপুর গ্রামে সড়ক বাতি উদ্বোধন  » «   বিয়ানীবাজার জনকল্যাণ সমিতি ইউকের কার্যকরী কমিটির পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত  » «   পূর্ব মুড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এসএসসিপরীক্ষার্থীদের মধ্যে পরীক্ষা উপকরণ বিতরণ  » «   গুচ্ছ কবিতা ।। আতাউর রহমান মিলাদ  » «   ব্রিটেনের রাজা চার্লস ক্যান্সারে আক্রান্ত  » «   গুচ্ছ কবিতা ।। আবু মকসুদ  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন

ফ্রান্সে একটি মোরগের কারণে তার মালিক আদালতের কাঠগড়ায়



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

ফ্রান্সে মহিস নামের একটি মোরগের কারণে তার মালিককে আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন তার নিকটতম এক প্রতিবেশী। মোরগটির বিরুদ্ধে অভিযোগ, প্রতিদিন  ভোরে সেটি উচ্চ শব্দে ডেকে আশপাশের  প্রতিবেশী সবার ঘুমের ব্যাঘাত ঘটায়।

মামলাটি   নিয়ে পুরো  ফ্রান্সজুড়ে আলোচনা–সমালোচনার  যেন শেষ নেই। অনেকে এই মামলাকে ফরাসি গ্রামীণ সংস্কৃতির ওপর আঘাত হিসেবে ভাবছেন। তার ওপর মোরগ ফ্রান্সের অন্যতম জাতীয় প্রতীক। ঘটনাটির শুরু ফ্রান্সের পশ্চিমাঞ্চলীয় দ্বীপ ওলেহোঁর হোশফো শহরে। সেখানকার সাঁ-পিয়ে-দোলেহোঁ এলাকার বাসিন্দা কোহিন ফেসুর পোষা মোরগ মহিস। তাঁর ৪০ প্রতিবেশীর মধ্যে মাত্র দুজন মহিসের ডাক নিয়ে অভিযোগ করেছেন।   এই মামলার প্রথম শুনানি অনুষ্ঠিত হয় গত বৃহস্পতিবার। এদিন আদালতের বাইরে মহিসের অনেক সমর্থক উপস্থিত ছিল। অনেক মোরগ–মুরগিও ছিল সেখানে।

এ নিয়ে স্থানীয় গেজাক গ্রামের মেয়র ব্রুনো দিওনিস দু সেজু এক খোলা চিঠিতে লিখেছেন, ‘গ্রামে গির্জার বেল বাজবে, গরু হাম্বা ডাকবে, গাধারা ডাকবে—এই তো ফ্রান্সের ঐতিহ্য। আমি যখন শহরে যাই, তখন তো ট্রাফিক বাতি ও গাড়িঘোড়া সরাতে বলি না।’

ফ্রান্সে গ্রাম ও শহরের মধ্যে ক্রমে সম্পদের তারতম্য বাড়ছে। সেই সঙ্গে কম মজুরি, বেশি করসহ নানা কারণে জনমনে ক্ষোভও জমছে। এরই জেরে গত নভেম্বরে শুরু হয় ‘ইয়েলো ভেস্ট’ আন্দোলন। মহিসও এই আন্দোলনে যোগ দিয়েছে। মোরগটির নিজস্ব একটা ফেসবুক পেজে দেখা যায়, নভেম্বরের শুরুতেই এটি বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছে।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন