বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
গীতাঞ্জলি সম্মাননা পদক-২০১৯ পাচ্ছেন দেশের তিন বরণ্য গুণীজন  » «   ফ্রান্সে পররাষ্ট্রমন্ত্রী  ড.এ কে আব্দুল মোমেন সংবর্ধিত  » «   শাবির বেগম সিরাজুন্নেসা হলের নতুন প্রভোস্ট জাফরিন আহমেদ  » «   বিয়ানীবাজার আদর্শ মহিলা কলেজে কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত  » «   হাইড বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ারের বার্ষিক সাধারন সভা  » «   যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের দুঃখপ্রকাশ  » «   ফেসবুকে মহানবীকে (সা.) কটূক্তির অভিযোগ’র ঘটনা  » «   সাকিবের নেতৃত্বে ক্রিকেটারদের ধর্মঘটের ডাক  » «   সিলেটে ক্রিয়েটর ল্যাব অত্যাধুনিক আইটি শিক্ষা দিচ্ছে  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতাল-এ বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা  » «   স্পেনে ‘হাসিনা: এ ডটার্স টেল’ প্রদর্শিত  » «   দুবাইয়ে বাংলাদেশি মালিকানাধিন তৈয়ুর আল জান্নাহ স্টেশনারির যাত্রা শুরু  » «   কাতালানদের আন্দোলনে বার্সেলোনা কার্যত অচল  » «   স্পেনে এশিয়ান চলচ্চিত্র প্রদর্শনী উৎসবে ‘হাসিনা:এ ডটার্স টেল ‘ প্রদর্শিত  » «   বিজিবি-বিএসএফ গুলাগুলি:বিএসএফ সদস্য নিহত  » «  

আইএস জঙ্গি জঙ্গিকে  ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ



প্যারিসে ২০১৫ সালের ১৩ নভেম্বর   ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলায় যুক্ত আইএস জঙ্গি সালাহ আবদেস সালাম   ক্ষতিপূরণ পেয়েছেন  । কারাগারে তার ব্যক্তিগত গোপনীয়তা লঙ্ঘন করায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত এই আইএস  জঙ্গিকে ৪৫০ পাউন্ড ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ফ্রান্সের একটি আদালত। বাংলাদেশি টাকায়  এর পরিমাণ দাঁড়ায় ৪৭ হাজার ৫৬৭ টাকা। সোমবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মিরর।

আদালতের রায়ে বলা হয়, ২৯ বছরের সালাহ আবদেস সালাম-কে নির্জন কারাগারে বন্দি রাখা হয়েছিল। সেখানে নজরদারি ক্যামেরার মাধ্যমে তার ওপর ২৪ ঘণ্টা নজরদারি করা হয়েছে। এই নজরদারির মাধ্যমে তার ব্যক্তিগত জীবনের অধিকার লঙ্ঘন করেছে কর্তৃপক্ষ।

প্যারিসে ভয়াবহ ওই সন্ত্রাসী হামলায় সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হন ১৩০ জন। পরে হামলার দায় স্বীকার করে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস। এরপর থেকে গ্রেফতারের আগ পর্যন্ত ইউরোপজুড়ে পুলিশের ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ তালিকায় ছিল সালাহ আবদেসসালাম। পরে বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসের সিটি সেন্টার সংলগ্ন একটি ভবন থেকে তাকে গ্রেফতার করে ফ্রান্সের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

বেলজিয়ামের প্রধানমন্ত্রী চার্লস মাইকেল বলেন, তীব্র গোয়েন্দা তৎপরতার মাধ্যমে তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়েছে। এটি একটি বড় ধরনের অর্জন।

ওই সময়েই সালাহ আবদেসসালামকে দ্রুত ফ্রান্সের আদালতের মুখোমুখি করার ঘোষণা দেন তৎকালীন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদ। ২০১৬ সালের এপ্রিলে তাকে রিমান্ডে নেওয়া হয়।

আসামির আইনজীবী ফ্রাঙ্ক বার্টন জানিয়েছেন, আদালতের চোখে দীর্ঘ সময় ধরে তার মক্কেলের ওপর নজরদারির মাধ্যমে তার ব্যক্তিগত গোপনীয়তা লঙ্ঘন করা হয়েছে।

ফ্রাঙ্ক বার্টনের ওপর লেখা এক বইতে ফরাসি সাংবাদিক এলসা ভিগোরিয়াক্স তার বইতে এ ক্ষতিপূরণের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সালাহ আবদেসসালাম এখনও প্যারিসের একটি জেলে নির্জন কক্ষে কারাবাস করছেন বলে জানা যায় ।