বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
ফ্রান্সে পররাষ্ট্রমন্ত্রী  ড.এ কে আব্দুল মোমেন সংবর্ধিত  » «   শাবির বেগম সিরাজুন্নেসা হলের নতুন প্রভোস্ট জাফরিন আহমেদ  » «   বিয়ানীবাজার আদর্শ মহিলা কলেজে কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত  » «   হাইড বাংলাদেশ ওয়েলফেয়ারের বার্ষিক সাধারন সভা  » «   যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের দুঃখপ্রকাশ  » «   ফেসবুকে মহানবীকে (সা.) কটূক্তির অভিযোগ’র ঘটনা  » «   সাকিবের নেতৃত্বে ক্রিকেটারদের ধর্মঘটের ডাক  » «   সিলেটে ক্রিয়েটর ল্যাব অত্যাধুনিক আইটি শিক্ষা দিচ্ছে  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতাল-এ বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা  » «   স্পেনে ‘হাসিনা: এ ডটার্স টেল’ প্রদর্শিত  » «   দুবাইয়ে বাংলাদেশি মালিকানাধিন তৈয়ুর আল জান্নাহ স্টেশনারির যাত্রা শুরু  » «   কাতালানদের আন্দোলনে বার্সেলোনা কার্যত অচল  » «   স্পেনে এশিয়ান চলচ্চিত্র প্রদর্শনী উৎসবে ‘হাসিনা:এ ডটার্স টেল ‘ প্রদর্শিত  » «   বিজিবি-বিএসএফ গুলাগুলি:বিএসএফ সদস্য নিহত  » «   বিক্ষোভ-মিছিল-অগ্নিসংযোগ আর আন্দোলনে উত্তাল স্পেনের কাতালোনীয়া  » «  

বাংলা গানে বিশ্ব মাতাতে চান আমিরাত প্রবাসি শিহাব সুমন



কথায় আছে- প্রতিটি প্রবাসি প্রাণ যেন নিঃসন্দেহের দেশপ্রেমিক। আবার প্রতিটি প্রবাসি প্রাণ যেন একেটি মরমি শিল্পী সত্বা। আরব আমিরাত প্রবাসি কণ্ঠশিল্পী শিহাব সুমনের বেলায় কথা দুটো বাস্তবে মিল পাই। তার গানে যেমন আছে দেশের প্রতি মমত্ববোধ তেমনি দরদমাখা কণ্ঠে সুর তুলেন প্রবাসের যাপিত জীবন নিয়ে। কাজের অবসরে গানের সারেগামায় নিচক আনন্দ পেতে তার এ আয়োজন।

সাত সাগর আর তেরো নদী পেরিয়ে জীবনের ঘাত প্রতিঘাতে গুনগুন করে প্রতিটি প্রবাসি যেন নিজের মনের কিছু কথা বলে বেড়ায়। দীর্ঘশ্বাস আর প্রিয়জনের বিরহে গুনগুন হয়ে ওঠে জীবনের গান। প্রতিপ্রাণে কবিসত্বার সাথে গায়কসত্বাও থাকে। কেউ তা প্রকাশ করতে পারে, কেউ পরে না। যারা পারে তাদের দলে শিহাব সুমন। তিনি বাংলা গানের পাখি হয়ে বাঁচতে চান দেশ বিদেশে। ‘বাংলায় গান গাই’ এই বাংলা গান নিয়েই যেন তিনি বিশ্ব মাতাতে চান এমন মনোবল চোখেমুখে।

স্বাধীনতার স্বপক্ষের কণ্ঠযোদ্ধা শিহাব সুমন গেয়েছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে নিয়েও গান। একজন মৌলিক শিল্পীর জাতির প্রতি যে কমিটমেন্ট সেটি পাওয়া যায় শিহাব সুমনের ব্যক্তি জীবনেও। একাত্তর সালে প্রাণ দিয়েছেন কণ্ঠযোদ্ধারা। আবার দুর্দিনে কণ্ঠ ছেড়ে জাগিয়েছেন বিশাল জনগোষ্ঠি। দেশের প্রতি দায়বোধ আর মহান মুক্তিযুদ্ধের অপ্রতুল চেতনা তার বুকের গহিনে। অনেকটা পূর্বসূরিদের দেখানো পথে যেন তিনি নোঙর ফেলতে চান গানের দরিয়ায়।

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার ছেলে শিহাব সুমন। দেড় যুগ আগে নিজের স্বপ্ন বিনির্মাণে পাড়ি জমান আরব আমিরাতে। দেশটির রাজধানী আবুধাবীর আল আইনে নিজের ব্যবসা করে যাচ্ছেন তিনি। শখের বশে গান করে বের করেছেন দুটো এলবামও। ২০১৫ সালে ‘তোমাকে মনে পড়ে’ এবং ২০১৮ সালে ন্যান্সির সাথে ‘ইশারায় দিয়েছি বলে’ এলবাম বের করে কুড়িয়েছেন সুনাম। মৌলিক গান যেন তার প্রেরণা। করেছেন ১০০টিরও উপরে কাভার গান। বাংলার পাশাপাশি তিনি হিন্দিতেও গেয়েছেন। তবে বাংলা যেন তার কাছে অমৃত সুধার সুখ এনে দেয়।

আগামি জীবনেও আরো ভালো গান করে দেশ ও দশের মাঝে বাঁচার ইচ্ছে তার। প্রবাসের যাপিত জীবন নিয়ে কোন গান করার পরিকল্পনা আছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন—যেহেতু আমি প্রবাসি অবশ্যই প্রবাসির জীবনধারা নিয়ে গান করবো। তার এগিয়ে চলাতে সকলের দোয়া ও সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি।