সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
প্রধানমন্ত্রীর সাথে আবরারের পরিবারের সদস্যরা  » «   প্রবাসীদের জাতীয় পরিচয়পত্র সরবরাহের কাজ শুরু হচ্ছে শিঘ্রই  » «   গ্রীসে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে মতবিনিময়  » «   আবরার হত্যায় ফ্রান্স ও সুইজারল্যান্ডের বিস্ময় ও দুঃখপ্রকাশ  » «   বুয়েট ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের কক্ষ সিলগালা  » «   মিলানে দূতাবাসের উদ্যোগে বাউল সংগীতের অনুষ্ঠান  » «   জন্মস্থান থেকে ‘রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ফাউন্ডেশনে’র যাত্রা শুরু  » «   নর্থ ওয়েষ্ট ইংল্যান্ডে শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপন  » «   ঢাকায় কাব্যকলার আয়োজনে কেন্দ্রীয় পাঠক সমাবেশে কবিতা ও আড্ডা  » «   পিঠা মেলা সফল করতে লন্ডনে প্রস্তুতি সভা  » «   আমিরাতে কমলগঞ্জ প্রবাসী কল্যাণ সমিতির মতবিনিময়  » «   লন্ডনে বঙ্গবন্ধু কাপ ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত  » «   সাবেক অতিরিক্ত সচিবকে জিএমবিএ’র উদ্যোগে সংবর্ধনা  » «   আবরার হত্যার আগে ম্যাসেঞ্জারে ছাত্রলীগ নেতার নির্দেশনা  » «   আওয়ামী লীগ সাউথ লন্ডন শাখার সম্মেলন অনুষ্ঠিত  » «  

কবিতা দিয়ে চেতনার বিজয় উৎসব



ব্রিটেনে বেড়ে ওঠা প্রজন্মকে সাথে নিয়ে বাংলাদেশের মহান বিজয় দিবস পালন করেছে চেতনা ইউকে ম্যানচেস্টার। ‘প্রতিরোধ-সংগ্রামে কবিতা,প্রাণের গভীরে কবিতা’ শিরোনামে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান হয়ে গেলো গত ১৬ ডিসেম্বর।

মুক্তিযুদ্ধে রক্ত টগবগিয়ে ওঠা তরুণদের যুদ্ধে যাবার প্রত্যয় কবিতার ছন্দে ঝংকার তুলে ছিলো সেদিন। ৭১ এ শত্রু নিধনে ঝাঁপিয়ে পড়ে ছিল বাঙালি, মুক্তির জন্যে মানুষের আকুতি, ছেলেহারা মায়ের দীর্ঘশ্বাস, তারামন বিবিদের বীরত্ব গাঁথা ধ্বণিত প্রতিধ্বনিত হয়েছিল চেতনার এ অনুষ্ঠানে।

প্রতিবাদ-প্রতিরোধ আর নতুন দেশ গড়ার অঙ্গীকারে উজ্জিবীত হবার শপথ নেয়া এ অনুষ্ঠানটি হয় ম্যানচেস্টারে বার্চ কমিউনিটি সেন্টারে রবিবার সন্ধ্যায়। কবিতার পাশাপাশি ল্যাংগুয়েজ এন্ড কালচার অব বাংলাদেশ এলসিবি ম্যানচেস্টারে শিশু-কিশোর কিশোরীদের গাণ-নৃত্য দিয়ে সাজানো হয় পুরো অনুষ্ঠানটি।

এলসিবি’র শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীদের গাওয়া জাতীয় সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে শুরু হয় এ অনুষ্ঠান। চেতনার সাধারণ সম্পাদক ফারুক যোশী’র স্বাগত বক্তব্যের পর  সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন চেতনার সভাপতি সৈয়দ মাহমুদুর রহমান।

সাবিনা ইয়াসমিন ও আমনিুল হক ওয়েছের উপস্থাপনায়  কবিতা আবৃত্তি করেন নাজমা ইয়াছমিন, ইফফাত শারমীন মিথুল, মীর গোলাম মোস্তফা, তাসাদ্দুক হোসেন বাহার, মুকিত চৌধুরী সিতু, লিয়াকত খান,বাহার উদ্দিন, সালাহ উদ্দিন সুমন, জাওয়েদ ইকবাল মজুমদার, জুবেদ আহমদ, শামিম তালুকদার প্রমূখ।

কবিতার ফাঁকে ফাঁকে চলে শিশু-কিশোর-কিশোরীদের গীতি নাট্য, কবিতা আবৃত্তি। অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে ছিলো গান। নৃত্য আর গানের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের বিজয়কে তুলে ধরা হয় এ অনুষ্ঠানে।

গীতি নাট্য পরিবেশনায় অংশনেন ব্রিটেনে বেড়ে ওঠা লাভিবা, বুশরা রাইদা,আরীফিন, হাবিবা, আমিরা, আদিয়ান, তুষা, তাওসীফ, আবরার, জারীফ, স্বাধীন, আদৃতা, সাফোয়ান, রীশব, লিয়ানা,রাকা, রাইয়ান, আদীব, সাইরা,ইলম, প্রিময়, প্রভাত,ইমতিয়াজ। এছাড়া ছিল বিজয় নিয়ে তরুনী নাহদার আবেগময় নৃত্য।

অনুষ্ঠানে দেশাত্ববোধক গান পরিবেশন করেন মিছবাহ উদ্দিন এবং বাউল গানে ছিলেন সৈয়দ মাহমুদুর রহমান ও তারা মিয়া। এ ছাড়া গান পরিবশেন করেন মীর গোলাম মোস্তফা ও নাজমা ইয়াছমীন। কবিতা ও গানে যন্ত্র সঙ্গীতে ভিন্ন আবহ তোলেন তুলসী ভৌমিক।

 

 

কণ্ঠ: তিশা সেন