শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
বিজিবি-বিএসএফ গুলাগুলি:বিএসএফ সদস্য নিহত  » «   বিক্ষোভ-মিছিল-অগ্নিসংযোগ আর আন্দোলনে উত্তাল স্পেনের কাতালোনীয়া  » «   রিভার বাংলা নদী সভা’র কিশোরগঞ্জ জেলা কমিটি গঠিত  » «   আমিরাতের শ্রম মন্ত্রীর সাথে ভিসা নিয়ে বৈঠক করেছেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   কবি দিলওয়ার সুরমাপারের কবি হলেও আর্ন্তজাতিক কবি  » «   গীতিকবি রইস রহমানকে নিয়ে কবিকণ্ঠ’র সাহিত্য আড্ডা অনুষ্ঠিত  » «   ছাত্রসংগঠনকে দলীয় রাজনীতিমুক্ত করুন  » «   নিউইয়র্কে মতবিনিময় সভায় নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি  » «   রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে কাতালোনিয়ার ৯ নেতার কারাদণ্ডাদেশ  » «   জলবায়ু পরিবর্তন, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও নিরস্ত্রীকরণ ইস্যুতে বক্তব্য রাখেন নুরুল ইসলাম নাহিদ  » «   প্রধানমন্ত্রীর সাথে আবরারের পরিবারের সদস্যরা  » «   প্রবাসীদের জাতীয় পরিচয়পত্র সরবরাহের কাজ শুরু হচ্ছে শিঘ্রই  » «   গ্রীসে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে মতবিনিময়  » «   আবরার হত্যায় ফ্রান্স ও সুইজারল্যান্ডের বিস্ময় ও দুঃখপ্রকাশ  » «   বুয়েট ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের কক্ষ সিলগালা  » «  

কিশোরগঞ্জে ‘আন্তর্জাতিক তথ্য জানার অধিকার দিবস ২০১৮’ পালিত



কিশোরগঞ্জ, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৮: ‘উত্তম আইনের সঠিক প্রয়াস, টেকসই উন্নয়ন মুক্ত সমাজ’ -এ শ্লোগানকে সামনে রেখে আজ জাকজমকপূর্ণভাবে পালন করা হলো ‘আন্তর্জাতিক তথ্য জানার অধিকার দিবস ২০১৮’। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিলো ‘মুক্ত সমাজের জন্য উত্তম আইন, টেকসই উন্নয়নে তথ্যে অভিগমন’। জেলা প্রশাসন কিশোরগঞ্জ এর আয়োজনে ও সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) এর সার্বিক সহযোগিতায় সকাল ০৯:০০ টায় জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালির মাধ্যমে কর্মসূচি শুরু হয়। র‌্যালি শেষে জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলোনায়তনে সনাক সভাপতি জনাব সাইফুল হক মোল্লা দুলুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সুশাসন নিশ্চিতের পূর্বশর্ত হলো স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা। স্বচ্ছতা থাকলে জনগণ তথ্য জানতে পারে আর জনগণের জানতে চাওয়ার মাধ্যমে সেবাদানকারী কর্তৃপক্ষ জবাবদিহিতার আওতায় আসে। ফলে দুর্নীতির সুযোগ কমে আসে। আন্তর্জাতিক তথ্য জানার অধিকার দিবসে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী । বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কিশোরগঞ্জ এর পুলিশ সুপার, জনাব মোঃ মাশরুকুর রহমান খালেদ, বিপিএম। সনাক সদস্য স্বপর কুমার বর্মনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় স্বগত বক্তব্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জনাব তরফদার মোঃ আক্তার জামিল তথ্য অধিকার আইনের গুরুত্ব ও তথ্য জানার জন্য কিভাবে আবেদন করতে সে সম্পর্কে বিশদ আলোচনা করেন।

দিবসটি উপলক্ষে আলোচনা সভায় ধারণাপত্রের আলোকে বক্তব্য উপস্থাপন করেন সনাক সদস্য জনাব মোঃ নাসির উদ্দিন ফারুকী। অন্যান্যদরে মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন টিআইবি প্রতিনিধি জনাব নাজমা খানম নাজু, প্রোগ্রাম ম্যানেজার-সিই, টিআইবি, শাহীন খান, সাবেক সভাপতি, কিশোরগঞ্জ প্রেস ক্লাব, সনাক সদস্য প্রফেসর আবদুল গনি, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার জনাব আবদুল্লাহ আল মাসউদ। তথ্যের অবাধ প্রবাহ নিশ্চিত করার মাধ্যমে জনগণকে ক্ষমতায়িত করার লক্ষ্যে ‘আন্তর্জাতিক তথ্য জানার অধিকার দিবস’কে কেন্দ্র করে সনাক এর আয়োজনে, ও জেলা প্রশাসন কিশোরগঞ্জ-এর সার্বিক সহযোগিতায় শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গনে দিনব্যাপি তথ্য মেলার আয়োজন করা হয় এবং জেলা প্রশাসক মহোদয় উক্ত মেলার উদ্ভোধন করেন ও ঘুড়ে দেখেন। মেলায় মোট একুশটি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহন করে (২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল কিশোরগঞ্জ , পুলিশ সুপার এর কার্যালয় কিশোরগঞ্জ, জেলা সমাজসেবা কার্যালয়, কিশোরগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি, জেলা রেজিস্টিারের কার্যালয়, জেলা পরিবার পরিকলাপনা অধিদফতর, আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর কিশোরগঞ্জ সদর, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়, কিশোরগঞ্জ সদর, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) কিশোরগঞ্জ, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা এর কার্যালয় কিশোরগঞ্জ সদর, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস, কিশোরগঞ্জ, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর কিশোরগঞ্জ, বি আর টিএ কিশোরগঞ্জ সার্কেল, ইসলামিক ফাউন্ডেশন কিশোরগঞ্জ, উপজেলা প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর কিশোরগঞ্জ সদর, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, নারী মৈত্রী কিশোরগঞ্জ, ইয়েস গ্রুপ, সনাক, কিশোরগঞ্জ, টিআইবি)।

দুদিনব্যাপী আয়োজনে জেলা প্রশাসনরে সার্বিক সহযোগিতায় ইয়েস গ্রুপের সদস্যরা দিবসটি উপলক্ষে তথ্য অধিকার আইন-২০০৯ বিষয়ে প্রচারণা, দুর্নীতিবিরোধী ভিডিও ড্রামা প্রদর্শণীসহ বিভিন্ন কর্মসুচি পালন করা হয়। তথ্য মেলায় শিক্ষার্থীদের কুইজ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে পুরস্কৃত করা হয় এবং মেলায় অংশগ্রহণকারী সকল প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা ক্রেস্ট উপহার দেয়া হয়। সর্বশেষে ইয়েস গ্রুপের পরিবেশনায় বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন ছিলো। কার্যক্রমে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাবৃন্দ, সাংবাদিক, সাধারণ জনগণ, সনাক ও স্বজন সদস্য, ইয়েস গ্রুপের সদস্য, টিআইবি কর্মী ছাড়াও স্কুল কলেজের শিক্ষক ও প্রায় দুই শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণ করেন।