শনিবার, ২ মার্চ ২০২৪ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
টাওয়ার হ্যামলেটসের নতুন বাজেটে হাউজিং, শিক্ষা, অপরাধ দমন, তরুণ, বয়স্ক ও মহিলাদের জন্য বিশেষ কর্মসূচিতে বিপুল বিনিয়োগ প্রস্তাব  » «   আজীবন সম্মাননা পেলেন সৈয়দ আফসার উদ্দিন এমবিই  » «   লন্ডন বাংলা স্কুলের আয়োজনে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত  » «   লন্ডনবাসী প্রবীণ মুরব্বী জমির উদ্দিন( টেনাই মিয়া)র ইন্তেকাল  » «   কবি সংগঠক ফারুক আহমেদ রনির পিতা মুমিন উদ্দীনের ইন্তেকাল  » «   একসেস ট্যু জাস্টিস নিশ্চিত করা আইনের শাসনের প্রধান স্তম্ভ  » «   বৃহত্তর সিলেট এডুকেশন ট্রাস্টের নির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত  » «   বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে প্যালেষ্টাইনের জনগণের প্রতি উৎসর্গ করে লন্ডনে সমাবেশ  » «   এডভোকেট মোহাম্মদ আব্বাছ উদ্দিন যুক্তরাজ্যে আসছেন  » «   হিলালপুর গ্রামে সড়ক বাতি উদ্বোধন  » «   বিয়ানীবাজার জনকল্যাণ সমিতি ইউকের কার্যকরী কমিটির পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত  » «   পূর্ব মুড়িয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে এসএসসিপরীক্ষার্থীদের মধ্যে পরীক্ষা উপকরণ বিতরণ  » «   গুচ্ছ কবিতা ।। আতাউর রহমান মিলাদ  » «   ব্রিটেনের রাজা চার্লস ক্যান্সারে আক্রান্ত  » «   গুচ্ছ কবিতা ।। আবু মকসুদ  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন

আল কাসিম বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্য ও সাংস্কৃতিক উৎসবে বাঙালি ছাত্রদের অংশগ্রহণ



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

সৌদি আরবের আল কাসিম প্রদেশের আল কাসিম বিশ্ববিদ্যালয়ে বিভিন্ন দেশের ছাত্রদের অংশগ্রহনে ঐতিহ্য ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। ৩ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আজ ৩১ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার ছিল শেষ দিন। ছাত্রদের উৎসাহ দেওয়ার লক্ষ্যে সৌদি আরব বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রেস উইং সচিব ফখরুল ইসলাম মেলায় যোগদান করেন ।

উৎসবে ২০ টি দেশের বিদেশী ছাত্ররা নিজ নিজ দেশের ঐতিহ্য, পোশাক ও খাবারের প্রদর্শন করে। বাংলাদেশ ছাড়াও এ উৎসবে ভারত, পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড, ফিলিপাইন সহ বিভিন্ন আরব ও আফ্রিকান দেশের ছাত্ররা অংশগ্রহণ করেন।

সেখানে অধ্যয়নরত বাংলাদেশী ছাত্ররা তাদের স্টল দেশীয় বিভিন্ন কারুশিল্প, গ্রামীণ ঐতিহ্য, পিঠাপুলি দিয়ে অত্যন্ত আকর্ষণীয় করে তুলে ধরে। তাছাড়া বিভিন্ন দেশের ছাত্রদের নাম বাংলায় লিখে তাদের বাংলা ভাষার সাথে পরিচয় করে দেয় বাঙালী ছাত্ররা । উৎসবে বাড়তি আকর্ষণ হিসেবে একটি রিকশায় করে অতিথিদের উৎসব প্রাঙ্গনে ঘোরানো হয়। ঐতিহ্য হিসেবে পালকি ও রাখা হয়।

এ বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশী ৩০ জন ছাত্র সম্পূর্ণ বৃত্তি নিয়ে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে অধ্যয়ন করছে।

বিশ্ববিদ্যালটিতে বর্তমানে প্রায় ৮০ হাজার ছাত্রছাত্রী পড়াশোনা করছেন। যার মধ্যে প্রায় ৭০ টি দেশের তিন সহস্রাধিক ছাত্র রয়েছে। বাংলাদেশী ছাত্র ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬ জন বাংলাদেশী শিক্ষক কর্মরত রয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরীর সামনে মিলনায়তনে (২৯ জানুয়ারি) ৩ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করা হয়।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন