সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
জলঢুপ দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি গঠন  » «   নর্থ ইংল্যান্ড বাংলাদেশি টিভি রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন নেবট্রা’র সভা অনুষ্ঠিত  » «   ওমিক্রণ এবং ব্রিটেনের প্রশ্নবোধক স্বাস্থ্য সেবা  » «   যুক্তরাজ্য প্রবাসীর উদ্যোগে খাসাড়ীপাড়া মিনিবার সুপার লীগ ফুটবল টুর্নামেন্ট এর উদ্বোধন  » «   ঢাকাদক্ষিণ হলিসিটি স্কুলের ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ  » «   বীর মুক্তিযোদ্ধা সংগঠক ও সাবেক এমপি মরহুম সিরাজুল ইসলামের স্মৃতি ধরে রাখার উদ্যোগ  » «   এসএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে স্পেন প্রবাসীদের মতবিনিময়  » «   ‘বিয়ানীবাজার সমাজ কল্যাণ সমিতি ইতালী’ গঠন: জয়নাল আহবায়ক, জামিল সদস্য সচিব  » «   সিলেটে প্রকাশনা অনুষ্ঠান ও প্রীতিসম্মিলন  » «   স্পেনে ছাত্রলীগের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত  » «   গোলাপগঞ্জে ফুলবাড়ি ইউনিয়ন সোসাইটি ইউকে’র ফ্রি চক্ষু শিবির অনুষ্ঠিত  » «   বড়লেখা কমিউনিটি ট্রাস্ট ইউকের  সভা অনুষ্ঠিত  » «   জীবন আসলেই সুন্দর  » «   তীব্র ঠান্ডা ও কুয়াশায় যুক্তরাজ্যে জনজীবনে বিপর্যস্ত হওয়ার আশংকা   » «   সাউথওয়েস্ট ইংল্যান্ডের ব্যবসায়ীদের সাথে বিবিসিজিএইচ নেতৃবৃন্দের মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন

‘তবারক হোসেইন-শামসুন্নাহার’ গ্রন্থাগারের উদ্বোধন



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার শাহবাজপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে প্রতিষ্ঠিত ‘তবারক হোসেইন-শামসুন্নাহার’ গ্রন্থাগারের উদ্বোধন করা হয়েছে।

গত শনিবার (৮ জানুয়ারি) বিকেলে গ্রন্থাগারের উদ্বোধন করেন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন।

প্রধান অতিথি মো. শাহাব উদ্দিন বলেন, ‘তবারক হোসেইন ও শামসুন্নাহার যে গ্রন্থাগার স্থাপন করেছেন। বর্তমান যুগে তা একটি ভিন্নতর উদ্যোগ। সরকার যে সকল বিদ্যালয় নির্মাণ করে। সেখানে একটি লাইব্রেরি থাকে। গ্রন্থাগারিক থাকে। সেটা খাতা-কলমে থাকে। শিক্ষক-ছাত্র-ছাত্রী কেউ খোঁজ নেয় না। এত বড় গ্রন্থাগার হয়েছে। এটা একটা সূচনা। দেশের উত্তর-পূর্ব সীমানা থেকে যাতে সারা বাংলাদেশে একটা উদাহরণ সৃষ্টি হয়। ছাত্র, যুবকদের বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তোলা যায়। বই পড়ার জাগরণ সৃষ্টি করা যায়। সেই লক্ষ্যেই গ্রন্থাগারটি গড়ে তোলা হয়েছে। জাতীয় পর্যায়ে যাতে অবদান রাখতে পারে।’

পরিবেশ মন্ত্রী বলেন, ‘এক্ষেত্রে শিক্ষকদের ভূমিকা রাখতে হবে। লাইব্রেরি হচ্ছে জ্ঞানের ভান্ডার। আমরা শস্য ভান্ডার, অর্থ ভান্ডারের খোঁজ করে থাকি। বইয়ের ভান্ডার, জ্ঞানের ভান্ডারের খোঁজ করতে হবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমি আজকে  একটি বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের জিজ্ঞেস করেছিলাম, কিসে তাদের পড়ালেখার ক্ষতি হয়। তারাই বলেছে ফেসবুক, ইউটিউবে। সব সময় ফেসবুক, ইউটিউব ব্যবহার করলে পড়ায় উন্নতি হবে না। সপ্তাহে একদিন যদি লাইব্রেরিতে যাই। একটি বই নিয়ে পড়ি। তাহলে একাডেমিক জ্ঞানের বাইরে জ্ঞানের পরিধি অনেক বাড়বে।’

প্রতিষ্ঠানের জ্যেষ্ঠ শিক্ষক আতিকুল ইসলাম মুক্তা ও প্রতিষ্ঠানের প্রাক্তন শিক্ষার্থী মাহি আবিদের যৌথ সঞ্চালনায় অন্যদের বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান, লেখক ও গবেষক অধ্যাপক ভীষ্মদেব চৌধুরী, মদন মোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ লেখক ও গবেষক আবুল ফতেহ ফাত্তাহ, ভ্রমণ লেখক, নাট্যকার ও নির্মাতা শাকুর মজিদ, মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির উপরেজিস্ট্রার লেখক ও গবেষক মিহির কান্তি চৌধুরী, গ্রন্থাগারের স্থপতি রাজন দাস, উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের  চেয়ারম্যান রফিক উদ্দীন আহমদ, প্রতিষ্ঠানের সাবেক ছাত্র, লেখক ও লোক গবেষক মোস্তফা সেলিম এবং গ্রন্থাগারের প্রতিষ্ঠাতা তবারক হোসেইন।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন শাহবাজপুর উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আব্দুল বাছিত। সবশেষে ছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

শাহবাজপুর উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজের প্রাক্তন কৃতি ছাত্র, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী, বীর মুক্তিযোদ্ধা তবারক হোসেইন ও তাঁর সহধর্মিনী শামসুন্নাহার প্রায় ৭০ লাখ টাকা ব্যয়ে বিদ্যালয়ে গ্রন্থাগার ভবনটি নির্মাণ করে দিয়েছেন।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •