বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
জীবন যেখানে দ্রোহের প্রতিশব্দ মৃত্যু সেখানেই শেষ কথা নয়..  » «   শিল্প উদ্যোক্তা ও ক্রীড়া সংগঠক মো: জিল্লুর রাহমানকে  লন্ডনে সংবর্ধনা  » «   ঈদের সামাজিক গুরুত্ব ও বিলাতে ঈদের ছুটি   » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি  প্রসঙ্গে  » «   হজের খুতবা বঙ্গানুবাদ করবেন মাওলানা শোয়াইব রশীদ ও মাওলানা খলিলুর রহমান  » «   হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু, তাবুর শহর মিনায় হাজিরা  » «   ঈদের ছুটি : আমাদের কমিউনিটিতে সবার আগে শুরু হোক  » «   ঈদের দিনে বিলেত প্রবাসীদের মনোবেদনা  » «   বিলেতে ঈদ উৎসব এবং বাঙ্গালী কমিউনিটির অন্তর্জ্বালা  » «   জলঢুপে বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমান কেম্প  » «   তিলপাড়ায় বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   করিমগঞ্জ দিবস  » «   ঈদের ছুটি চাই : একটি সমন্বিত উদ্যোগ অগণিত পরিবারে হাসি ফুটাতে পারে  » «   ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল তিন বন্ধুর  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


বড়লেখা পৌরসভার সুপেয় পানির প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

মৌলভীবাজারের বড়লেখা পৌরসভার প্রতিটি বাড়িতে সুপেয় পানি সরবরাহ ও স্যানিটেশন নিশ্চিতকরণের প্রকল্প বাস্তবায়ন কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। শনিবার (৮ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টায় পৌরসভার বারইগ্রাম এলাকায় এই প্রকল্প কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন এমপি।

জানা গেছে, দেশের ৩০টি পৌরসভায় সুপেয় পানি সরবরাহ ও স্যানিটেশন প্রকল্পের আওতায় বড়লেখায় জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর কাজটি বাস্তবায়ন করছে। জিওবি, বিশ্বব্যাংক ও এশিয়ান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংকের (এআইআইবি) অর্থায়নে ১৮ মাসের মধ্যে প্রকল্পের কাজটি বাস্তবায়ন করা হবে। প্রথম পর্যায়ে পানি সরবরাহ কাজে ব্যয় হবে ১০ কোটি ৮০ লাখ ৪৫ হাজার ৩২৪ টাকা। কাজটি করছে মেসার্স জিলানী ট্রেডার্স-মেসার্স আদেল এন্টারপ্রাইজ (জেবি)। অন্যদিকে, একই প্রকল্পের আওতায় পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় ৩ হাজার ৬২১ মিটার ড্রেনও নির্মাণ করা হবে। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ১১ কোটি ৮৩ লাখ টাকা।

এ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বড়লেখা পৌরসভার মেয়র আবুল ইমাম মো. কামরান চৌধুরী। কাউন্সির রেহান পারভেজ রিপনের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর মৌলভীবাজারের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. খালেদুজ্জামান। এসময় বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খন্দকার মুদাচ্ছির বিন আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সুন্দর, বড়লেখা উপজেলার উপ সহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ্য) মঈন উদ্দিন, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর মৌলভীবাজারের প্রাক্কলনিক জাহাঙ্গীর আলম, বড়লেখা পৌরসভার প্যানেল মেয়র আলী আহমদ চৌধুরী জাহেদ ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মালিক আদেল হোসেন প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিবেশ মন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে এই সরকার মানুষের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করছে। পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে সরকার ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। সরকারের লক্ষ্য হচ্ছে একটু যারা পেছনে আছে তাদের টেনে তোলা। আমারা যারা এগিয়ে আছি, তাদের সাথে পিছিয়ে পড়াদের তুলতে পারলে দেশ উন্নত হয়ে যাব। সেই লক্ষ্যে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। লক্ষ্যে বাস্তবায়ন করলে ২০৪১ সালে উন্নত দেশ হবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘সরকার পৌর নাগরিকদের সুযোগ সুবিধা দেওয়ার জন্য একসাথে বড়লেখায় প্রায় ২৩ কোটি টাকার কাজ দিয়েছে। এগুলো দেশের ৩০টি পৌরসভায় দেওয়া হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে সকল পৌরসভায় দেওয়া হবে। পৌরসভা ছাড়ও বড়লেখায় যে ১০টি ইউনিয়ন আছে সেগুলো পানি সরবরাহ দেওয়ার জন্য চিন্তা করছে। কিছু কিছু ছোট প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। যে এলাকায় টিউবেল হয়না সেখানে সাপ্লাই দেওয়ার চিন্তা আছে। বিশেষ করে বড়লেখার দুর্গম এলাকা ও হাওর অঞ্চলে এগুলো দেওয়া হবে।’


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন