বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি যুক্তরাজ্য শাখার প্রতিবাদ সভা  » «   বাহরাইনে শেখ রাসেলের জন্মদিন পালিত  » «   কোম্পানীগঞ্জ তেলিখাল ইউপি নির্বাচনে স্বামী স্ত্রী চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী  » «   সিলেটে মেয়রের বিরুদ্ধে লন্ডন প্রবাসী পরিবারের ৮ কোটি টাকা মূল্যের জায়গা দখলের অভিযোগ!  » «   বানিয়াচংয়ে পিতলের মূর্তি চুরির অভিযোগ : সংসদ সদস্য এডঃ আব্দুল মজিদ খানের পরিদর্শন  » «   পূর্ব লন্ডনের ওয়েস্টফিল্ড স্ট্র্যাটফোর্ডে আগুন  » «   ৩ অক্টোবর ইপসুইচে ‘লেটস বিট ক্যান্সার’ চ্যারেটি রোড শো ও ক্যান্সার এওয়ারনেস কার্যক্রম  » «   ব্রিটে‌নে ছুরিকাঘাতে এম‌পি স্যার ডেভিড অ্যামিসের মৃত্যু  » «   শিশিরকণা ঘাসে বইর মোড়ক উন্মোচণ  » «   ইস্ট লন্ডন মসজিদের উদ্যোগে নবম মুসলিম চ্যারিটি রান ২৪ অক্টোবর  » «   গোলাপগঞ্জ কাঁচাবাজার সঞ্চয় ও ঋন দান সমবায় সমিতি লিমিটেডের ত্রি- বার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন  » «   যুক্তরাজ্য প্রবাসীদের অনন্য অবদানের স্মারক ও গৌরবের প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ সেন্টারকে একটি প্লাটফর্ম হিসেবে গড়ে তুলতে হবে- হাই কমিশনার  » «   নবনির্বাচিত দুই সংগঠনকে জালালাবাদ এসোসিয়েশন ইউকের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন  » «    হাউস অফ লর্ডস এ বিসিএ‘র রেষ্টুরেন্ট অফ দ্যা ইয়ার প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত  » «   শারদীয় দুর্গোৎসব  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন

গোলাপগঞ্জে অশ্লীলতার অভিযোগ তুলে কাশবনে আগুন



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

সিলেটের গোলাপগঞ্জের চৌঘরী এলাকার কাশবনে স্থানীয় লোকজন আগুন লাগিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় কাশবন আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ফেলার ঘটনা ঘটে। এলাকাবাসীর দাবি, কাশবনে অশ্লীল কর্মকাণ্ড হয়। এসব কর্মকাণ্ড এড়াতে তাঁরা কাশবনে আগুন দিয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কাশবনটি সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কের পাশে অবস্থিত। চৌঘরী এলাকার এক বাসিন্দা ব্যক্তিগতভাবে বালু উত্তোলন করে জমিয়ে রেখেছিলেন। বেশ কিছু দিন ধরে ওই এলাকায় জমিয়ে রাখা বালুতে প্রাকৃতিকভাবেই কাশবন হয়। শরৎকালে কাশফুল দেখতে অনেকেই এখানে বেড়াতে আসতেন। কাশবনের খবর সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে দর্শনার্থীর সংখ্যা বাড়তে থাকে।

কাশবনটি রক্ষণাবেক্ষণের জন্য কোনো কর্তৃপক্ষ ছিল না। দর্শনার্থী বাড়তে থাকায় ছোট-খাটো বিষয় নিয়ে কথা–কাটাকাটির ঘটনা ঘটেছে। গতকালও স্থানীয়দের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দর্শনার্থীদের কথা–কাটাকাটি হয়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকার কয়েকজন দাবি করেন, কাশবনে দিন দিন দর্শনার্থীর সংখ্যা বাড়ছিল। কাশবন দেখার নাম করে অনেকেই এলাকায় অশ্লীল–অসামাজিক কর্মকাণ্ড করছেন। যেকোনো সময় বড় ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে পারে। এ জন্য সব দিক বিবেচনা করে কাশবনে আগুন দেওয়া হয়।

আগুন কে বা কারা দিয়েছে তা জানা যায়নি। এ নিয়ে স্থানীয় যুবসমাজের সঙ্গে যোগাযোগ করেও কারা আগুন দিয়েছেন, সেটি জানা যায়নি।

গোলাপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. গোলাম কবির বলেন, কাশবনকে কেন্দ্র করে দর্শনার্থীদের ভিড় ছিল। কাশবনটি পুড়ে যাওয়ার খবর পেয়েছি। কাশবনটি ব্যক্তিমালিকানাধীন জায়গায়। সরকারি জায়গায় হলে সেটি পর্যটন স্পটে রূপান্তর করা যেত।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •