শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই ইন দ‍্য ইউকে’র দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ১৮ সেপ্টেম্বর  » «   অভিবাসী বাংলাদেশীদের জীবন কাহিনী নিয়ে ব্রিকলেনে নির্মিত হচ্ছে বিশেষ ম্যুরাল  » «   সর্বইউরোপ বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি,  লেখক ও কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব  ডাক্তার ফয়জুল ইসলাম  আর নেই  » «   নেত্রকোণার সীমান্তে বিপুল পরিমাণ ভারতীয় কসমেটিক্স, শাড়ী ও চা পাতা জব্দ  » «   জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক গৃহের ব্যবস্থা করবে সরকার  » «   বিয়ানীবাজার ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট ইউকে’র দ্বি-বার্ষিক সাধারণ সভা ও নির্বাচন সম্পন্ন  » «   একটি সামাজিক উদ্যােগ অসহায় পরিবারকে নতুন করে বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখাচ্ছে  » «   ও আই সি’র নারী উন্নয়ন সংস্থায় বাংলাদেশের যোগদান  » «   স্পেনে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে ক্রিকেট টুর্নামেন্ট : চ্যাম্পিয়ন টাইগার মাদ্রিদ  » «   গোলাপগঞ্জে ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার  » «   গ্রিসে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   বড়লেখায়১ হাজার ৮৭৯ জন চা শ্রমিকের মধ্যে আর্থিক অনুদান বিতরণ  » «   বঙ্গবন্ধুর নামে দেশের তৃতীয় সাফারি পার্ক হবে : জুড়ীতে পরিবেশমন্ত্রী  » «   গোলাপগঞ্জে গণপিটুনিতে ডাকাত নিহত ,ডাকাতের ছোঁড়া গুলিতে আহত ৫  » «   প্রবাসীদের কথা বলার অঙ্গীকার নিয়ে মাসিক বিলেত ও বিলেত টিভির যাত্রা শুরু  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন

  শিশুর সাথে যে কথা বলা উচিত অথবা উচিত না   



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

মানবিক ও আদর্শ  পরিবার ও সমাজ বিনির্মাণে শিশুদের  পজিটিভ চিন্তা ও চেতনায় তৈরী করা জরুরী বলে জ্ঞানীরা সব সময় বলে থাকেন। বলা হয়ে থাকে  একটি আলোকিত সমাজের আয়না হলো কোমলমতি শিশুরা। পরিবার ও সমাজ  নিস্পাপ কোমলমতি শিশুদের চোখে সুন্দর আগামী দেখে।

আপনার শিশুকে বলবেন না:

দেয়ালে দৃশ্য বা ছবি এঁকো না।

বরং তাকে বলুন:

তুমি তোমার খাতায় দৃশ্য বা ছবি আঁকো, আঁকা শেষ হলে দৃশ্য বা ছবিটা দেয়ালে বা ফ্রিজের ওপর বা বোর্ডে ঝুলিয়ে দিবে।

আপনার সন্তানকে বলবেন না:

উঠো! নামাজ পড়ে নাও, না হলে জাহান্নামে যাবে।

বরং তাকে বলুন:

চলো! একসাথে নামাজ টা আদায় করে নি, তাহলে জান্নাতেও একসাথে থাকতে পারবো।

আপনার সন্তানকে বলবেন না:

এই তোমার রোম টা পরিষ্কার করে নাও । ইশ ! খোয়াড় বানিয়ে রেখেছে রোম টাকে।

বরং তাকে বলুন:

তোমার রোম টা কি তুমি একাই গোছাতে পারবে? নাকি আমি সাহায্য করবো? তুমি তো সব সময় একাই সবকিছু গুছিয়ে রাখো।

সন্তানকে বলবেন না:

হয়েছে খেলাধূলা ছেড়ে এবার পড়তে বসো। খেলার চেয়ে পড়ালেখা গুরুত্বপূর্ণ।

বরং তাকে বলুন:

তুমি তাড়াতাড়ি আজকের পড়াটা শেষ করে ফেলো, তাহলে পরে খেলার জন্য অনেক সময় পাবে।

 আপনার সন্তানকে বলবেন না:

এই! দাঁত ব্রাশ করো, আমি না বললে দেখি তুমি দাঁতে হাতই দাও না।

বরং বলুন:

তুমি তো দেখি আমি বলার আগেই দাঁত পরিষ্কার করে ফেলো!

আপনার সন্তানকে বলবেন না:

বাম কাত হয়ে শুয়ো না।

বরং তাকে বলুন:

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আমাদেরকে ডান কাত হয়ে শুতে শিখিয়েছেন।

 আপনার সন্তানকে বলবেন না:

একদম চকলেট খাবে না। সারাদিন শুধু চকলেট আর চকলেট। দাঁতগুলো তো সব এভাবেই যাবে।

বরং তাকে বলুন:

তোমাকে দিনে একবার চকলেট খাওয়ার অনুমিত দেয়া যাবে, কারণ তুমি নিজ দায়িত্বেই প্রতিদিন দাঁত পরিষ্কার করে ফেলো।

কথা ও আচরণে জীবন ব্যক্তিত্বময় হয়ে ওঠে। মানুষ মানুষের চোখে হয় অনন্য । পজিটিভ চিন্তা ও চর্চা- আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে আলোকিত ওঠে গড়ে তুলার কাজটি সহজ করে দিবে পারে  । জীবনের জয় হোক।

সামাজিক যোগাযোগ থেকে নেয়া:

( নামহীন ) লেখকের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও শ্রদ্ধা

সম্পাদনা : আনোয়ারুল ইসলাম অভি । কণ্ঠ : রেজওয়ানা আহমেদ


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •