সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
জলঢুপ দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি গঠন  » «   নর্থ ইংল্যান্ড বাংলাদেশি টিভি রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন নেবট্রা’র সভা অনুষ্ঠিত  » «   ওমিক্রণ এবং ব্রিটেনের প্রশ্নবোধক স্বাস্থ্য সেবা  » «   যুক্তরাজ্য প্রবাসীর উদ্যোগে খাসাড়ীপাড়া মিনিবার সুপার লীগ ফুটবল টুর্নামেন্ট এর উদ্বোধন  » «   ঢাকাদক্ষিণ হলিসিটি স্কুলের ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ  » «   বীর মুক্তিযোদ্ধা সংগঠক ও সাবেক এমপি মরহুম সিরাজুল ইসলামের স্মৃতি ধরে রাখার উদ্যোগ  » «   এসএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে স্পেন প্রবাসীদের মতবিনিময়  » «   ‘বিয়ানীবাজার সমাজ কল্যাণ সমিতি ইতালী’ গঠন: জয়নাল আহবায়ক, জামিল সদস্য সচিব  » «   সিলেটে প্রকাশনা অনুষ্ঠান ও প্রীতিসম্মিলন  » «   স্পেনে ছাত্রলীগের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত  » «   গোলাপগঞ্জে ফুলবাড়ি ইউনিয়ন সোসাইটি ইউকে’র ফ্রি চক্ষু শিবির অনুষ্ঠিত  » «   বড়লেখা কমিউনিটি ট্রাস্ট ইউকের  সভা অনুষ্ঠিত  » «   জীবন আসলেই সুন্দর  » «   তীব্র ঠান্ডা ও কুয়াশায় যুক্তরাজ্যে জনজীবনে বিপর্যস্ত হওয়ার আশংকা   » «   সাউথওয়েস্ট ইংল্যান্ডের ব্যবসায়ীদের সাথে বিবিসিজিএইচ নেতৃবৃন্দের মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন

ম্যানচেষ্টার সহকারী হাইকমিশনের কর না দেয়ার অভিযোগ:
মিশন কুটনৈতিক নিয়ম-নীতি মেনেই কর প্রদান থেকে বিরত থেকেছে: ভারপ্রাপ্ত সহকারী হাইকমিশনার



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ম্যানচেষ্টারস্থ বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশনের কার্যালয় গত প্রায় পাঁচ বছর আগে ম্যানচেষ্টার সিটি সেন্টার থেকে টেইমসাইড বারা কাউন্সিলে স্থানান্তরিত হয়। পরিচিত ধনাঢ্য ব্যবসায়ী ইকবাল আহমদের সিমার্ক হাউস ভাড়া নিয়ে হাইকমিশন এখন কার্যক্রম চালাচ্ছে। সেই থেকে স্থানীয় কাউন্সিলকে কর না দেয়ার অভিযোগে ম্যানচেষ্টারস্থ বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশন সংবাদ শিরোনাম হয়েছে স্থানীয় ইংরেজী গণমাধ্যমে।

হাইকমিশন শুরু থেকে অর্থাৎ ২০১৬ থেকে এখন পর্যন্ত কোন কাউন্সিল ট্যাক্স প্রদান করে নি। যার পরিমাণ হল এক লাখ ৫৩ হাজার ৪৬ পাউন্ড অর্থাৎ এক কোটি পঁচাত্তর লাখেরও বেশী। সেজন্য টেইমসাইড বারা কাউন্সিলের লীডার ব্রেন্ডা ওয়ারিংটন এতে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। কিন্তু তিনি এ অর্থ উদ্ধারে কোন পদক্ষেপ নেয়ার কথা উল্লেখ করেন নি।

ওল্ডহ্যাম টাইমস এ ২৮ আগষ্ট প্রকাশিত এক রিপোর্টে জানা গেছে , শুধু ম্যানচেষ্টার হাইকমিশন নয়, টেইমসাইডের আরও কিছু প্রতিষ্ঠানের কর এভাবেই টেইমসাইড কাউন্সিল মওকুফ করেছে, যার পরিমান হল অর্ধ মিলিয়ন পাউন্ড। বাংলাদেশী হাইকমিশনের কাছে পাওনা নিয়ে যদিও তিনি বলেছেন ” মোট অনাদায়ী টাকার মধ্যে ১ লাখ ৫৩ হাজার পাউন্ড কাদের কাছে পাওনা, আমরা জানি এরা কারা, কোথায় থাকে, তাহলে কেনো আমরা এই টাকা উদ্ধার করতে পারছি না?” এতে ক্ষুব্ধ হয়েছেন কাউন্সিল লীডার যদিও, কিন্তু তা উদ্ধারে কোন বিকল্প আইনী পথে হাঁটেন নি তিনি। অথচ এ ধরনের টাকা প্রদানে ব্যর্থ হলে ব্রিটেনের আইন অনুযায়ী যে কাউকে কিংবা কোন প্রতিষ্ঠানকে আদালতে দাঁড় করানো যায় ।

এ রিপোর্ট প্রকাশিত হবার পর স্থানীয় কমিউনিটিতে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। অনেকেই এ নিয়ে বিরুপ মন্তব্য করেছেন এবং এটাকে লজ্জাজনক হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

এ নিয়ে ম্যানচেষ্টারে ভারপ্রাপ্ত সহকারী হাইকমিশনার মাহমুদা খানম বলেছেন, ”মিশন কুটনৈতিক নিয়ম-নীতি মেনেই এ কর প্রদান থেকে বিরত থেকেছে। ভিয়েনা কনভেনশন ১৯৬১ ও ৬৩’র  এক অধ্যায় অনুযায়ী যে কোন দেশের কুটনৈতিক মিশন কর প্রদান করতে বাধ্য নয়। সেকারনে এ কর প্রদান করা হয় নি।” শুধু তাই নয়, কুটনৈতিক বিধি-বিধান অনুযায়ী অন্যান্য আইনসঙ্গত সুবিধা এ দেশ থেকে তারা পাচ্ছেন বলেও তিনি উল্লেখ করেন ।

এখানে উল্লেখ করা যায়, বাংলাদেশী কমিউনিটিতে বিভ্রান্তি সৃষ্ঠি করার দায় নিয়ে ম্যনচেষ্টারস্থ সহকারী হাইকমিশনার আবু নাসের মোহাম্মদ আনওয়ারুল ইসলামকে জরুরী ভিত্তিতে গত মাস দুয়েক আগে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেসময় সহকারী হাইকমিশনার কমিউনিটির কাউকে এমনকি তাঁর মিশনের অনেক কর্মকর্তাকেও তার চলে যাবার কথা গোপন রাখেন। আর সেকারনেই ম্যানচেষ্টারে বাংলাদেশী কমিউনিটির অনেকেই বাংলাদেশ হাইকমিশনের এ খবর প্রকাশিত হবার পর মিশ্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •