বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
কেসি সলিসিটর্সের দশক পূর্তি উদযাপন  » «   বঙ্গবন্ধু স্কলারশিপ আন্তর্জাতিক অঙ্গণে বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রতিচ্ছবি  » «   লীলা নাগের স্মৃতি রক্ষায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উদ্যোগ নেবে  » «   ফুসফুস-ক্যান্সার পরীক্ষার জন্য মাইল এন্ড লেজার সেন্টারে স্থাপন করা হচ্ছে বিশেষ ‘স্ক্রিনিং মেশিন’  » «   অলি-মিঠু-টিপু প্যানেলের পরিচিতি ও ইশতেহার ঘোষণা  » «   ২০ নভেম্বর লন্ডনের রয়েল রিজেন্সিতে ৫ম বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ার  » «   একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির যুক্তরাজ্য শাখা গঠিত  » «   টি আলী স্যার ফাউন্ডেশন সম্মাননা পেলেন সিলেটের ২৪গুণী শিক্ষক  » «   নওয়াগ্রাম প্রগতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ফুল, ফল ও ঔষধি বৃক্ষরোপণ  » «   আলোকিত মানুষ শিক্ষক মো. সমছুল ইসলাম এর ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী  » «   সিলেটের বিয়ানীবাজারে একটি পরিত্যক্ত কূপে তাজা গ্যাসের মজুদ আবিষ্কৃত  » «   বাংলাদেশী কারী  ব্রিটেনের প্রবৃত্তি ও খাবার সংস্কৃতিতে অনন্য  অবদান রাখছে  » «   পুরুষতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থায় নারীবাদের প্রতিবন্ধকতা  » «   রিষি সুনাক এশিয়ান বংশদ্ভোত, কনজারভেটিভ এবং ধনীদের বন্ধু  » «   গোলাপগঞ্জ প্রেসক্লাব নিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টিকারীদের ব্যাপারে সতর্ক থাকার আহবান  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


ডুমুরিয়ার চুকনগরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

খুলনা ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগর যতিন- কাসেম রোডে জেলা পরিষদের উদ্যোগে অবৈধ স্থাপনা অভিযান পরিচালিত হয়। ২৫ই মার্চ সকাল ১০টায় খুলনা জেলা পরিষদের সচিব বিষ্ণু পদ পাল ও সহকারী কমিশনার(ভূমি) রাকিবুল হাসানের পরিচালনায় চুকনগর বাসষ্টান্ড থেকে শুরু করে চুকনগর যতিন কাসেম রোডের দুই পাশে গড়ে ওঠা প্রায় একশত পাঁকা ও আধা পাঁকা সকল স্থাপনা বুলডোজার দিয়ে গুড়িয়ে দেয়া হয়। অনেকে আবার নিজ থেকে সরিয়ে নিচ্ছেন। এর আগে ২৩ মার্চ মঙ্গলবার ডুমুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আঃ ওয়াদুত দোকান মালিকদের ২৪ ঘন্টা সময়ের ভিতর সকল অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেন।

কিন্তু ২৪ ঘন্টা পার হলেও সকল দোকানদার বহাল রেখে দোকান খুলে ব্যাবসা চালিয়ে যায়। আজ সকাল ১০ টায় জেলা পরিষদ নিজ উদ্যেগে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান শুরু করে। এবিষয়ে জেলা পরিষদ সচিব বিষ্ণু পদ পাল ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) রাকিবুল হাসান আমাদের কে বলেন জেলা পরিষদের সকল জায়গা উচ্ছেদ করে বাজারের রাস্তাকে প্রসার করায় মুল লক্ষ্য।

অবৈধ সকল স্থাপনা উচ্ছেদ না হওয়া পর্যন্ত অভিযান অব্যহত থাকবে বলে জানান। এ বিষয়ে খুলনা জেলা আ লীগ’র সহ-সভাপতি এবি এম শফিকুল ইসলাম বলেন রাস্তাটি প্রসার হলে ছোট বড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পাবে জনসাধারণ।
তিনি আরও বলেন উচ্ছেদ অভিযানের ফলে প্রায় চার পাঁচশত লোক বেকার হয়ে পড়েছে। সরকারী সহযোগীতা কামনা করেন।

উচ্ছেদ অভিযানে সহযোগীতা ডুমুরিয়া ফায়ার সার্ভিস স্টোশন অফিসার তানভির হাসান,পল্লী বিদ্যুৎ চুকনগর অভিযোগ কেন্দ্রের ইনচার্জ মোশারফ হোসেন,ও ডুমুরিয়া থানা পুলিশ।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন