রবিবার, ৩ জুলাই ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
বিলেতে কারী শিল্পে ঈদের ছুটি সময়ের দাবি  » «   ঈদের ছুটি  » «   ইউরোপে জ্বালানি সংকট চরমে, বিকল্প ভাবতে হচ্ছে ইউরোপকে  » «   হাইডে প্রবীণদের স্মরণে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল  » «   ঈদের দিন হোক সবার উৎসবের দিন  » «   ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হসপিটাল সিলেটের সার্টিফিকেট বিতরণী অনুষ্ঠিত  » «   নেদারল্যান্ডস বাংলাদেশী সমিতি’ ইউকে’র যাত্রা শুরু  » «   ব্রিটেন প্রবাসে ঈদ ছুটি নিয়ে ভাবনা ও আমাদের করণীয়  » «   ঈদে ছুটি নাই  » «   কমিউনিটি ও পরিবারের স্বার্থকে প্রাধান্য দিলে ঈদের ছুটি নিয়ে দ্বি-মত থাকবে না- শায়খ আব্দুল কাইয়ুম  » «   ব্রিটেনে ঈদ হলিডে : আকাঙ্ক্ষা ও বাস্তবতা  » «   দয়া নয়, ঈদের ছুটি শ্রমজীবি মুসলমানদের অধিকার  » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি নিয়ে কমিউনিটি ও মানবাধিকার নেতারা যা বলেন  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃক বন্যা দুর্গতদের চিকিৎসার্থে বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   যুক্তরাজ্যে ঈদের ছুটির দাবীতে  আলতাব আলী পার্কে সমাবেশ অনুষ্ঠিত  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


ডুমুরিয়ার চুকনগরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

খুলনা ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগর যতিন- কাসেম রোডে জেলা পরিষদের উদ্যোগে অবৈধ স্থাপনা অভিযান পরিচালিত হয়। ২৫ই মার্চ সকাল ১০টায় খুলনা জেলা পরিষদের সচিব বিষ্ণু পদ পাল ও সহকারী কমিশনার(ভূমি) রাকিবুল হাসানের পরিচালনায় চুকনগর বাসষ্টান্ড থেকে শুরু করে চুকনগর যতিন কাসেম রোডের দুই পাশে গড়ে ওঠা প্রায় একশত পাঁকা ও আধা পাঁকা সকল স্থাপনা বুলডোজার দিয়ে গুড়িয়ে দেয়া হয়। অনেকে আবার নিজ থেকে সরিয়ে নিচ্ছেন। এর আগে ২৩ মার্চ মঙ্গলবার ডুমুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আঃ ওয়াদুত দোকান মালিকদের ২৪ ঘন্টা সময়ের ভিতর সকল অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেন।

কিন্তু ২৪ ঘন্টা পার হলেও সকল দোকানদার বহাল রেখে দোকান খুলে ব্যাবসা চালিয়ে যায়। আজ সকাল ১০ টায় জেলা পরিষদ নিজ উদ্যেগে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান শুরু করে। এবিষয়ে জেলা পরিষদ সচিব বিষ্ণু পদ পাল ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) রাকিবুল হাসান আমাদের কে বলেন জেলা পরিষদের সকল জায়গা উচ্ছেদ করে বাজারের রাস্তাকে প্রসার করায় মুল লক্ষ্য।

অবৈধ সকল স্থাপনা উচ্ছেদ না হওয়া পর্যন্ত অভিযান অব্যহত থাকবে বলে জানান। এ বিষয়ে খুলনা জেলা আ লীগ’র সহ-সভাপতি এবি এম শফিকুল ইসলাম বলেন রাস্তাটি প্রসার হলে ছোট বড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পাবে জনসাধারণ।
তিনি আরও বলেন উচ্ছেদ অভিযানের ফলে প্রায় চার পাঁচশত লোক বেকার হয়ে পড়েছে। সরকারী সহযোগীতা কামনা করেন।

উচ্ছেদ অভিযানে সহযোগীতা ডুমুরিয়া ফায়ার সার্ভিস স্টোশন অফিসার তানভির হাসান,পল্লী বিদ্যুৎ চুকনগর অভিযোগ কেন্দ্রের ইনচার্জ মোশারফ হোসেন,ও ডুমুরিয়া থানা পুলিশ।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন