সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আশ্বিন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
টরেন্টো বাংলা পাড়া ক্লাবের ১ম ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত  » «   ফুটবলের ব্যাখ্যাতিত নায়ক  » «   বিলেতে হালাল ব্যবসায় হাবিবুর রহমানের সাফল্য  » «   ইউ‌কে বাংলা প্রেসক্লা‌বের দোয়া মাহ‌ফিল  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ‘মোবাইল ক্লিনিক’ সেবা উদ্বোধন  » «   লণ্ডনে গ্রেটার পাতন এসোসিয়েশন ইউকের বর্ণাঢ্য অভিষেক  » «   সুনামগঞ্জ জেলা ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউকের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ২০২৩ অনুষ্ঠিত  » «   ইস্টহ্যান্ডস’র আয়োজনে লন্ডনে বাগান প্রেমীদের মিলন মেলা  » «   লন্ডন বাংলা স্কুল এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন  » «   লন্ডনে বইমেলা সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক উৎসব  » «   চ্যানেল এস এর সিনিয়র নিউজ প্রেজেন্টার মুনিরা পারভিনের মাতা শাহানা সুলতানা’র মৃত্যুতে ক্লাব নেতৃবৃন্দের শোক  » «   কানাডায় স্বাগতম ! তবে তার আগে…  » «   ইউ‌কে-বাংলা প্রেসক্লা‌বের সভাপ‌তি রেজা আহমদ ফয়সল চৌধুরীর মাতৃবিয়োগে ৫২বাংলার শোক প্রকাশ  » «   ইউ‌কে-বাংলা প্রেসক্লা‌বের সভাপ‌তি রেজা আহমদ ফয়সল চৌধুরীর মাতৃবিয়োগে শোক প্রকাশ  » «   বৃটেনের শিক্ষার্থীদের জন্য মেয়র লুৎফুর রহমানের অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন

গ্রীসের দুইশততম স্বাধীনতা দিবস উদযাপন



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

সুদীর্ঘ ৪০০ অটোমানদের দ্বারা শাসিত, শোষিত, গণহত্যার শিকার হয়ে ৮ বছর ৬ মাস ২১ দিনের সশস্ত্র সংগ্রামের পর স্বাধীন ভূখন্ড লাভ করে গ্রীস।১৮১৪ সালে বাংলাদেশের মুক্তিবাহিনীর মত গ্রীকরা গড়ে তোলে ” Filiki Etaira ” নামে একটি বিপ্লবী সংগঠন। ১৮২১ থেকে ১৮৩০ পর্যন্ত এ বিপ্লব ও সংগ্রাম দীর্ঘস্থায়ী হয়েছিল।

২৫ শে মার্চের এই দিনটিকে ২০০ বছর পূর্তি উদযাপন করছে গোটা গ্রিক জাতি। তাই ২৫ শে মার্চ সরকারী ছুটির দিন ও গ্রীসের জাতীয় দিবস। গ্রীক নাগরিক ও গ্রীস প্রবাসীদের জাতীয় জীবনে দিনটি যথেষ্ট গুরুত্ব বহন করে। করোনার কারণে দিবসটি উপলক্ষে তাদের সকল কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। শুধু এথেন্সের সামরিক মহড়া ছাড়া আর কোন প্যারেড হয়নি গ্রীসে। শহরের নানা জায়গা জাতীয় পতাকা দিয়ে সুশোভিত করা হয়েছে। সংসদ ভবনকে আলোকসজ্জিত করা হয়েছে। একইসাথে গ্রিসের 200 বছরের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে,গ্রিস পতাকার রঙে রঞ্জিত করা হয়েছে, টরেন্টো, সিডনির অপেরা হাউস, ফ্রান্সের আইফেল টাওয়ার, ব্রাজিলের সাও পাওলো, লন্ডনের ব্রিজ সহ বিভিন্ন ঐতিহাসিক ভাস্কর্যে।

বৃটেন, রাশিয়া, ফ্রান্স গ্রীসকে প্রথম স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে অনুমোদন দেয়৷ তাই মিত্র দেশ হিসেবে প্রিন্স উইলিয়াম, , ফ্রান্সের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ফ্লোরেন্স পারলি, সাইপ্রাসের প্রেসিডেন্ট নিকো আনাসতাসিয়াদি, রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মিখাইল মিচিসটিন উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য ২০০ তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া সত্বেও করোনার প্রাদুর্ভাব এর কারণে তা স্থগিত করা হয়েছে।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন