বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
জীবন যেখানে দ্রোহের প্রতিশব্দ মৃত্যু সেখানেই শেষ কথা নয়..  » «   শিল্প উদ্যোক্তা ও ক্রীড়া সংগঠক মো: জিল্লুর রাহমানকে  লন্ডনে সংবর্ধনা  » «   ঈদের সামাজিক গুরুত্ব ও বিলাতে ঈদের ছুটি   » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি  প্রসঙ্গে  » «   হজের খুতবা বঙ্গানুবাদ করবেন মাওলানা শোয়াইব রশীদ ও মাওলানা খলিলুর রহমান  » «   হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু, তাবুর শহর মিনায় হাজিরা  » «   ঈদের ছুটি : আমাদের কমিউনিটিতে সবার আগে শুরু হোক  » «   ঈদের দিনে বিলেত প্রবাসীদের মনোবেদনা  » «   বিলেতে ঈদ উৎসব এবং বাঙ্গালী কমিউনিটির অন্তর্জ্বালা  » «   জলঢুপে বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমান কেম্প  » «   তিলপাড়ায় বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   করিমগঞ্জ দিবস  » «   ঈদের ছুটি চাই : একটি সমন্বিত উদ্যোগ অগণিত পরিবারে হাসি ফুটাতে পারে  » «   ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল তিন বন্ধুর  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


কাঠের তৈরী বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যটি প্রতিবন্ধী সোবাহান প্রধানমন্ত্রীকে দিতে চান



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

কাঠের তৈরী বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যটি প্রধানমন্ত্রীকে দিতে চান প্রতিবন্ধী সোবাহান । বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষন স্মৃতিময় করে রাখার জন্য ভাস্কর্য নির্মান করেছেন কাঠমিস্ত্রি আব্দুস সোবাহান শেখ (৩৫)। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এ ভাস্কর্যটি উপহার দিতে চান। দিন রাত কঠোর শ্রম দিয়ে তৈরী করেছেন এ প্রতিকৃতি। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যটি রোববার( ৭ মার্চ) উপজেলা চত্বরে দর্শকদের জন্য উম্মুক্ত করা হয় ।

সোবাহান শেখ বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের মৃত. আব্দুল আজিজ শেখের ছেলে। ছোট সময়ে তার পিতার কাছে ৭ মার্চের ভাষন ও স্বাধীনতা যুদ্ধের কথা শুনে তিলে তিলে বঙ্গবন্ধুর প্রতি ভালোবাসা জন্ম নেয় তাঁর হৃদয়ের গভীরে। সেই স্বপ্নকে মনে প্রানে লালন করতে থাকেন। সেই স্বপ্ন থেকেই তিনি কাঠ দিয়ে তৈরী করেছেন ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষনের ভাষ্কর্য। দীর্ঘ ১ বছর ৩ মাস ধরে নিজের কায়িক পরিশ্রম দিয়ে তৈরি করেছেন বঙ্গবন্ধুর এ ভাষ্কর্য। প্রতিদিন রাত ২/৩ টা পর্যন্ত তাঁর হাতের নিপুন কাজ ও রং তুলি দিয়ে সাজিয়েছেন এ ভাষ্কর্য।

হতদরিদ্র প্রতিবন্ধী সোবাহান শেখ পেশায় একজন কাঠমিস্ত্রি। প্রতিবন্ধী ভাতা প্রাপ্ত। এ ভাষ্কর্য তৈরি করতে ৮/৯ সিএফটি রেইনট্রি কাঠ ব্যবহার করেছেন। উচ্চতা ৭ ফুট। তিনি এ ভাষ্কর্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে চান। এ প্রতিকৃতি দেখার জন্য দর্শনার্থীরা ভিড় জমায়। উপজেলা পরিষদ , উপজেলা প্রশাসন ও বীর মুক্তিযোদ্ধারা এ বছরে তার তৈরী বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ অর্পণ করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. দেলোয়ার হোসেন সরকারী কিংবা বেসরকারী কোন পৃষ্ঠপোষকতা ছাড়াই বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি তৈরী করার জন্য সোবাহান শেখকে ধন্যবাদ জানান। হাজার হাজার লোক, শিক্ষক, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা এ প্রতিকৃতি দেখে ভূয়সী প্রশংসা করেন। উপজেলা চেয়ারম্যান, জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে অবহিত করা হবে বলে তিনি জানান।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন