শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
জীবন যেখানে দ্রোহের প্রতিশব্দ মৃত্যু সেখানেই শেষ কথা নয়..  » «   শিল্প উদ্যোক্তা ও ক্রীড়া সংগঠক মো: জিল্লুর রাহমানকে  লন্ডনে সংবর্ধনা  » «   ঈদের সামাজিক গুরুত্ব ও বিলাতে ঈদের ছুটি   » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি  প্রসঙ্গে  » «   হজের খুতবা বঙ্গানুবাদ করবেন মাওলানা শোয়াইব রশীদ ও মাওলানা খলিলুর রহমান  » «   হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু, তাবুর শহর মিনায় হাজিরা  » «   ঈদের ছুটি : আমাদের কমিউনিটিতে সবার আগে শুরু হোক  » «   ঈদের দিনে বিলেত প্রবাসীদের মনোবেদনা  » «   বিলেতে ঈদ উৎসব এবং বাঙ্গালী কমিউনিটির অন্তর্জ্বালা  » «   জলঢুপে বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমান কেম্প  » «   তিলপাড়ায় বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   করিমগঞ্জ দিবস  » «   ঈদের ছুটি চাই : একটি সমন্বিত উদ্যোগ অগণিত পরিবারে হাসি ফুটাতে পারে  » «   ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল তিন বন্ধুর  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


বিসিএ’র  সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট এনামুল  হক চৌধুরীর  মৃত্যুতে  দোয়া ও শোক সভা
এনামুল হক চৌধুরী ছিলেন একজন সাদা মনের মানবিক মানুষ



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

ব্রিটেনের বিশিষ্ট ক্যাটারার্স, বাংলাদেশ ক্যাটারার্স এসোসিয়েশন ( বিসিএ)’র  সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট, জালালাবাদ এসোসিয়েশন ইউকে’র কোষাধ্যক্ষ, বিশিষ্ট কমিউনিটি কর্মী ও যুক্তরাজ্যের বাঙালি কমিউনিটির পরিচিত মুখ এনামুল  হক চৌধুরী করোনা আক্রান্ত হয়ে গত ১৯ ফেব্রুয়ারী মৃত্যু বরণ করেছেন।

ব্রিটেনে কারী ইন্ড্রাষ্ট্রির প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন বাংলাদেশ ক্যাটারার্স এসোসিয়েশন (বিসিএ) সংগঠনের  সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট এনামুল হকের পরকালীন শান্তি  ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা কামনা করে এক দোয়া ও আলোচনা সভার আয়োজন করে।

২১ ফেব্রুয়ারি রবিবার  বিসিএর প্রেসিডেন্ট এম  এ মুনিম এর সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারী জেনারেল মিঠু চৌধুরীর সঞ্চালনায় এক ভার্চুয়াল জুম মিটিং এ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সহ যুক্তরাজ্য, যুক্তরাস্ট্র এবং বাংলাদেশের বিশিষ্টজনেরা অংশ নেন।

 

প্রথম পর্বে, বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ মাওলানা আব্দুর  রহমান মাদানীর পরিচালনায় মরহুম এনামুল  হক চৌধুরীর  আত্নার শান্তি কামনা করে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এসময় করোনায় আক্রান্ত বিসিএ’র ভাইস প্রেসিডেন্ট মাসুদ আহমেদ এবং প্রেস এন্ড পাবলিসিটি সেক্রেটারী ফরহাদ হোসেন টিপুর বাবা-মার আশু রোগমুক্তি সহ দেশ- বিদেশে সকল অসুস্থদের জন্যও দোয়া করা হয়।

দ্বিতীয় পর্বে,শোক সভায় বক্তব্য রাখেন বিসিএ’র সাবেক প্রেসিডেন্ট যথাক্রমে  বজলুর রশীদ এমবিই, পাশা খন্দকার এমবিই, মস্তফা কামাল ইয়াকুব, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের স্পিকার কাউন্সিলার আহবাব হোসেন।

বাংলাদেশ থেকে বক্তব্য রাখেন- জালালাবাদ এসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি  ড. এ কে আব্দুল মোবিন ,তত্বাবধায়ক সরকালের সাবেক উপদেষ্টা  রাশিদা কে চৌধুরী, সাস ফাউন্ডেশন এর চেয়ারম্যান  কর্ণেল এম এ ছালাম (অব.) বিপি, প্রফেসর অব  মেডিসিন জিয়া উদ্দিন আহমেদ, জালালাবাদ এসোসিয়েশন এর সাবেক সভাপতি তোফায়েল সামি, সিএফওবি এর চেয়ারম্যান মাহফুজ আহমদ ও জেনারেল সেক্রেটারী নাজ ইসলাম।

 

 

পরিবারে পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন মরহুম এনামুল  হক চৌধুরীর  ভাই মাহবুবুল হক চৌধুরী ও ছেলে মিজানুল হক চৌধুরী।

এছাড়াও আরও বক্তব্য রাখেন,  বিসিএ’র    সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট  যথাক্রমে জামাল উদ্দিন মকদ্দস,মুজাহিদ আলী,ওলি খান, আজাদ মালিক,  সৈয়দ হাসান,  মানিক মিয়া,টিপু রহমান, এম এম ফয়জুল হক, মেম্বারশীপ সেক্রেটারী ইয়ামীন দিদার, প্রেস এন্ড পাবলিসিটি সেক্রেটারী  ফরহাদ হোসেন টিপু, কেন্ট রিজয়নের প্রেসিডেন্ট  এম কে জামান জুয়েল, ডেপুটি সেক্রেটারী জেনারেল মুজিবুর রহমান ঝুনু ,জালালাবাদ এসোসিয়েশন এর প্রেসিডেন্ট মুহিবুর রহমান মুহিব ও সেক্রেটারী আমিনুল ইসলাম জিলু ও প্রেস এন্ড পাবলিসিটি সেক্রেটারী  জাহেদী ক্যারল,  সাংবাদিক মোহাম্মদ জুবায়ের।

বক্তারা বলেছেন,   এনামুল হক চৌধুরী ছিলেন  একজন সাদা মনের  মানবিক মানুষ। কারী ইন্ড্রাষ্ট্রির প্রতিনিধিত্বমূলক  সংগঠন   বিসিএ  তাঁর  লীডারশীপ নেতৃত্ব এবং সাংগঠনিক কর্মদক্ষতার জন্য তিনি ছিলেন সর্বজন শ্রদ্ধেয় ও জনপ্রিয় একজন সংগঠক।

 

কনজারভেটিভ  ফ্রেন্ডস অব বাংলাদেশ এর ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে বাংলাদেশকে তিনি মূলধারার রাজনৈতিক অঙ্গনে পজিটিভভাবে তুলে ধরেছেন। এছাড়াও  তিনি ব্রিটেন ও বাংলাদেশে বিভিন্ন সামাজিক,  মানবিক ও  সেবামূল সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত থেকে  প্রবাসে  ও  মাতৃভুমির জন্য নিরলস  কাজ করেছেন।

বক্তারা বলেন, মরহুম এনামুল হক চৌধুরী সদাহাস্যজ্জল , বন্ধুবৎসল ছিলেন। তবে সততা, ন্যায় ও নেতৃত্বে তিনি কখনও দ্বিমুখী নীতি বা নতজানু স্বভাবের ছিলেন না বলেই   বিসিএ সহ সকল কাজে তার একটি স্পষ্ট অনুকরণীয়  অবস্থান ছিল। যা বর্তমান সময়ে বিরল।

 

ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে অংশ নেন,ভাইস প্রেসিডেন্ট  ফিরুজল হক, আব্দুল সুলেমান জেপি, গোলাম রাব্বানী সুহেল, মেহেরুল ইসলাম,  বিসিএ’র অর্র্গানাইজিং সেক্রেটারী সাইফুল আলম, কালচারাল সেক্রেটারী নাসির উদ্দিন, ডেপুটি সেক্রেটারী জেনারেল হেলাল মালিক ,মিডল্যাড রিজয়নের সেক্রেটারী শেলু মিয়া,  ওয়েলস রিজনের প্রেসিডেন্ট আব্দুল লতিফ কয়সর, চ্যানেল এস এর চেয়ারম্যান আহমেদ উস সাদাদ জেপি,  কাউন্সিলার যথাক্রমে পারভেজ আহমেদ, সুলতান খান, আব্দাল উল্লাহ, ক্যাটারার্স নাজিম উদ্দিন, নাজাম উদ্দিন নজরুল, আবজল হোসেন, আনা মিয়া, জাহিদ খুসনু আলী, ফায়সাল চৌধুরী, আব্দুল করিম বাবুল, ওয়াহিদুর রহমান চৌধুরী, ওয়াহিদুর রহমান বুলু, আবু সুহেল তানজিম,সাংবাদিক জাকির হোসেন, ব্রিটিশ বাংলাদেশ ক্যাটারার্স এসোশিয়েশন এর সেক্রেটারী জেনারেল  তফজ্জুল মিয়া, জুবের লস্কর, শহিদুল হক চৌধুরী, শামসুল আলম খান প্রমুখ।

 

প্রসঙ্গত মরহুম এনামুল হক চৌধুরী দীর্ঘ দেড় মাস থেকে কোভিড-১৯-এ  আক্রান্ত হয়ে যুক্তরাজ্যের সুইন্ডন গ্রেট ওয়েষ্টার্ন  হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। শারিরীক অবস্থার অবনতি হলে কিছুদিন আগে তাঁকে  ইন্টেনসিভ কেয়ারে স্থানান্তর করা হয়।১৯ ফেব্রুয়ারি  শুক্রবার যুক্তরাজ্য সময় বিকাল ৫টায়  তিনি শেষ নিঃশ্বাস  ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬০ বছর।

মরহুম এনামুল হক চৌধুরী  ব্রিটেনবাসী বিশিষ্ট সাংবাদিক, লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাব এর সভাপতি ও সাপ্তাহিক পত্রিকার সম্পাদক মোহাম্মদ এমদাদুল হক চৌধুরীর চাচাতো ভাই। তিনি লন্ডন বাংলা প্রেসক্লাবের একজন লাইফ মেম্বার ছিলেন।

তাঁর পৈতৃক নিবাস সিলেটের জকিগঞ্জ উপজেলার শাহবাগের কচুয়া গ্রামে।১৯৮৬ সালে তিনি ব্রিটেন এসেছিলেন। তিন ছেলের জনক এনামুল হক চৌধুরী  যুক্তরাজ্যের উইল্টশায়ারের রয়েল উটন বাসেট এ সপরিবারে  বসবাস করছিলেন।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন