শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
জীবন যেখানে দ্রোহের প্রতিশব্দ মৃত্যু সেখানেই শেষ কথা নয়..  » «   শিল্প উদ্যোক্তা ও ক্রীড়া সংগঠক মো: জিল্লুর রাহমানকে  লন্ডনে সংবর্ধনা  » «   ঈদের সামাজিক গুরুত্ব ও বিলাতে ঈদের ছুটি   » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি  প্রসঙ্গে  » «   হজের খুতবা বঙ্গানুবাদ করবেন মাওলানা শোয়াইব রশীদ ও মাওলানা খলিলুর রহমান  » «   হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু, তাবুর শহর মিনায় হাজিরা  » «   ঈদের ছুটি : আমাদের কমিউনিটিতে সবার আগে শুরু হোক  » «   ঈদের দিনে বিলেত প্রবাসীদের মনোবেদনা  » «   বিলেতে ঈদ উৎসব এবং বাঙ্গালী কমিউনিটির অন্তর্জ্বালা  » «   জলঢুপে বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমান কেম্প  » «   তিলপাড়ায় বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   করিমগঞ্জ দিবস  » «   ঈদের ছুটি চাই : একটি সমন্বিত উদ্যোগ অগণিত পরিবারে হাসি ফুটাতে পারে  » «   ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল তিন বন্ধুর  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


বার্সেলোনার শহীদ মিনারটিকে রং দিয়ে ঝাপসা করে দিয়েছে দুষ্কৃতকারীরা



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

ভাষার মাসে বার্সেলোনায় অবস্থিত একমাত্র শহীদ স্মৃতিফলককে(শহীদ মিনার) ঢেকে দেয়ার উদ্দেশ্যে রং লেপন করার অপচেষ্টা করেছে দুষ্কৃতকারী। ১৬ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার শহরের প্লাসা পেদ্রোতে অবস্থিত শহীদ স্মৃতি ফলকটিকে কে বা কারা রঙ স্প্রে করে ঢেকে দেয়ার অপচেষ্টা করেছে। ভাষা শহীদদের উদ্দেশ্য করে লেখা শব্দমালাকে অস্পষ্ট করে দেয়ার উদ্দেশ্যে পরিকল্পনা করে এটা করা হয়েছে বলে ধারণা করছে স্থানীয় বাংলাদেশী কমিউনিটি।

মহান ভাষা দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের মাস হিসেবে ফেব্রুয়ারী মাসটি যেখানে গুরুত্বপূর্ণ এবং একুশের প্রহর আসার ঠিক ১ সপ্তাহ আগে পুর্বপরিকল্পিতভাবে এই অপচেষ্টা করা হয়েছে বলে মনে করছে বাঙ্গালী কমিউনিটি। সারা স্পেনের মধ্যে একমাত্র বার্সেলোনা শহরেই বাংলাদেশী কমিউনিটির বহু পরীশ্রমে মধ্যি দিয়ে জায়গা এবং এই স্মৃতিফলকটি বসানোর দাবী আদায় করেছে শহরের স্থানীয় প্রশাসনের কাছ থেকে। অমর একুশের কাছাকাছি সময়ে স্মৃতিসৌধের উপর এই রং দিয়ে কালিমা লেপনে স্থানীয় বাংলাদেশী কমিউনিটির মানুষ ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এ নিয়ে কেউ কেউ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দিয়ে দুঃখ প্রকাশ করে অপরাধীকে শাস্তির আওতায় আনার দাবি করেছেন এবং শহীদ স্মৃতি ফলকের ক্ষতিগ্রস্ত অংশটি আবারও মেরামতের অনুরোধ জানাচ্ছেন ।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন