শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
জীবন যেখানে দ্রোহের প্রতিশব্দ মৃত্যু সেখানেই শেষ কথা নয়..  » «   শিল্প উদ্যোক্তা ও ক্রীড়া সংগঠক মো: জিল্লুর রাহমানকে  লন্ডনে সংবর্ধনা  » «   ঈদের সামাজিক গুরুত্ব ও বিলাতে ঈদের ছুটি   » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি  প্রসঙ্গে  » «   হজের খুতবা বঙ্গানুবাদ করবেন মাওলানা শোয়াইব রশীদ ও মাওলানা খলিলুর রহমান  » «   হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু, তাবুর শহর মিনায় হাজিরা  » «   ঈদের ছুটি : আমাদের কমিউনিটিতে সবার আগে শুরু হোক  » «   ঈদের দিনে বিলেত প্রবাসীদের মনোবেদনা  » «   বিলেতে ঈদ উৎসব এবং বাঙ্গালী কমিউনিটির অন্তর্জ্বালা  » «   জলঢুপে বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমান কেম্প  » «   তিলপাড়ায় বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   করিমগঞ্জ দিবস  » «   ঈদের ছুটি চাই : একটি সমন্বিত উদ্যোগ অগণিত পরিবারে হাসি ফুটাতে পারে  » «   ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল তিন বন্ধুর  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


এবারও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রাবেল গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

নির্বাচনের পূর্ব পর্যন্ত তিনি ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, পৌরসভার বর্তমান মেয়রও। তবু দলীয় মনোনয়ন পাননি আমিনুল ইসলাম রাবেল। দল মনোনিত না করলেও পৌরবাসী আবারও ভোট দিয়ে তাকে নির্বাচিত করেছে। সিলেটের গোলাপগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচনে টানা দ্বিতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের এই বিদ্রোহী প্রার্থী।

জগ প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হয়েছেন রাবেল। পৌরসভার ৯ কেন্দ্রে রাবেল পেয়েছেন ৫ হাজার ৮৫১টি ভোট।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি জাকারিয়া আহমদ পাপলুও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হন। মোবাইল ফোন প্রতীকে সাবেক এই মেয়র পেয়েছেন ৪৫৫৮টি ভোট।

রাবেলের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতাই গড়ে তুলতে পারেননি আওয়ামী লীগের প্রার্থী। এখানে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. রুহেল আহমদ পেয়েছেন মাত্র ১ হাজার ১৭৫ ভোট। আর ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপির প্রার্থী গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহিন ৪ হাজার ২২২টি ভোট পেয়েছেন।

এরআগে ২০১৮ সালে এই পৌরসভার নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছিলেন রাবেল। সে নির্বাচনেও মেয়র পদে বিজয়ী হন তিনি।

দলীয় সিদ্ধান্ত না মেনে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় নির্বাচনের আগে আমিনুল ইসলাম রাবেলকে বহিস্কার করে জেলা আওয়ামী লীগ। তবু ঠেকানো যায়নি রাবেলের বিজয়। বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় জাকারিয়া আহমদ পাপলুকেও বহিস্কার করা হয়েছিলো।

শনিবার দিনভর এই পৌরসভায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মোট ভোটার ২২ হাজার ৯শ ১৬ জন।

জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা, রিটার্নিং অফিসার ফয়সাল কাদের বলেন, সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল ৪টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে ভোটগ্রহণ। কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন