শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
জীবন যেখানে দ্রোহের প্রতিশব্দ মৃত্যু সেখানেই শেষ কথা নয়..  » «   শিল্প উদ্যোক্তা ও ক্রীড়া সংগঠক মো: জিল্লুর রাহমানকে  লন্ডনে সংবর্ধনা  » «   ঈদের সামাজিক গুরুত্ব ও বিলাতে ঈদের ছুটি   » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি  প্রসঙ্গে  » «   হজের খুতবা বঙ্গানুবাদ করবেন মাওলানা শোয়াইব রশীদ ও মাওলানা খলিলুর রহমান  » «   হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু, তাবুর শহর মিনায় হাজিরা  » «   ঈদের ছুটি : আমাদের কমিউনিটিতে সবার আগে শুরু হোক  » «   ঈদের দিনে বিলেত প্রবাসীদের মনোবেদনা  » «   বিলেতে ঈদ উৎসব এবং বাঙ্গালী কমিউনিটির অন্তর্জ্বালা  » «   জলঢুপে বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমান কেম্প  » «   তিলপাড়ায় বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   করিমগঞ্জ দিবস  » «   ঈদের ছুটি চাই : একটি সমন্বিত উদ্যোগ অগণিত পরিবারে হাসি ফুটাতে পারে  » «   ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল তিন বন্ধুর  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


গোলাপগঞ্জের (সিলেট) ভয়াবহ দুর্ঘটনায় আগুনে পুড়ে মারা গেছেন ৪ জন



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

সিলেট-জকিগঞ্জ সড়কের গোলাপগঞ্জ উপজেলার হেতিমগঞ্জে ট্রাক ও মাইক্রোবাসের সংঘর্ষের পর আগুন লেগে যায়। এতে মুহূর্তেই ভস্মীভূত হয়ে যায় মাইক্রোবাসটি। বুধবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে মারা গেছেন ৪ জন।

ভোরে হেতিমগঞ্জ পশ্চিম বাজার এলাকার মোল্লাগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ট্রাককে পেছন থেকে ধাক্কা দেয় যাত্রীবাহী একটি নোহা মাইক্রোবাস। এতে মাইক্রোবাসের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়ে আগুন লেগে যায়। মাইক্রোবাস থেকে আগুনটি ছড়িয়ে পড়ে ট্রাকেও। তবে ট্রাকের আগুন নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হলেও মাইক্রোবাসটি ভস্মীভূত হয়ে যায়।

ফায়ার সার্ভিসের গোলাপগঞ্জ স্টেশনের পরিদর্শক আলাউদ্দিন মনির বলেন, ভোর ৫টা ৪৫ মিনিটে খবর পেয়ে আমাদের একটি টিম ঘটনাস্থলে যায়। তবে তারা যাওয়ার আগেই নোহা গাড়িটি জ্বলে ভস্মীভূত হয়ে যায় এবং ট্রাকের পেছনদিকে আগুন জ্বলছিলো। প্রায় আধা ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গাড়িতে আগুন দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা তাৎক্ষণিক ৯৯৯ এ কল দিয়ে গোলাপগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসকে ডেকে আনেন। তারা এসে নিহতদের উদ্ধার করেন এবং গুরুতর আহত অবস্থায় ৪জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

দুর্ঘটনায় নিহতরা হলেন- বিয়ানীবাজার উপজেলার চারখাই ইউনিয়নের বারইগ্রামের মৃত কুনু মিয়ার ছেলে রাজন আহমদ (২৭), একই গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে ও মাইক্রোবাস চালক সুনাম আহমদ (২৬), নিহত অপর একজনের পরিচয় জানা যায়নি।

এছাড়া মাইক্রোবাসের বিস্ফোরিত সিলিন্ডারের টুকরো পড়ে গিয়ে মেহেদী হাসান (৫) নামে এক শিশু মারা গেছে। সে দুর্ঘটনাস্থলের পাশের বস্তির মঞ্জু মিয়ার ছেলে। দুর্ঘটনার শব্দ শুনে সে ঘর থেকে বেরিয়ে এসেছিলো।

গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হারুনুর রশীদ চৌধুরী বলেন, নিহতদের মরদেহ ওসমানী হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ ও আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন