শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
জীবন যেখানে দ্রোহের প্রতিশব্দ মৃত্যু সেখানেই শেষ কথা নয়..  » «   শিল্প উদ্যোক্তা ও ক্রীড়া সংগঠক মো: জিল্লুর রাহমানকে  লন্ডনে সংবর্ধনা  » «   ঈদের সামাজিক গুরুত্ব ও বিলাতে ঈদের ছুটি   » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি  প্রসঙ্গে  » «   হজের খুতবা বঙ্গানুবাদ করবেন মাওলানা শোয়াইব রশীদ ও মাওলানা খলিলুর রহমান  » «   হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু, তাবুর শহর মিনায় হাজিরা  » «   ঈদের ছুটি : আমাদের কমিউনিটিতে সবার আগে শুরু হোক  » «   ঈদের দিনে বিলেত প্রবাসীদের মনোবেদনা  » «   বিলেতে ঈদ উৎসব এবং বাঙ্গালী কমিউনিটির অন্তর্জ্বালা  » «   জলঢুপে বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমান কেম্প  » «   তিলপাড়ায় বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   করিমগঞ্জ দিবস  » «   ঈদের ছুটি চাই : একটি সমন্বিত উদ্যোগ অগণিত পরিবারে হাসি ফুটাতে পারে  » «   ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল তিন বন্ধুর  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


স্পেনের বার্সেলোনায় প্রবাসীদের মধ্যে কন্স্যুলার সেবা প্রদান করেছে দূতাবাস



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

বাংলাদেশ দূতাবাস মাদ্রিদ টীম পূর্ব ঘোষনা অনুযায়ী ১৯ ও ২০ ডিসেম্বর শনিবার ও রবিবার বার্সেলোনা শহরের একটি হলরুমে প্রবাসীদের মধ্যে কন্স্যুলার সেবা প্রদান করেছে।

সকাল ৯টা থেকে কাতালোনীয়া রাজ্যের বিভিন্ন স্থান থেকে পূর্ব নির্ধারিত সিরিয়াল অনুযায়ী সেবা নিতে আসেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।
কোভিড ১৯ সংকট সময়ে সকলের জন্য সেবা নিশ্চিতকরণে বার্সেলোনা কমিউনিটির সর্বস্তরের নেতৃবৃন্দের আন্তরিক সহযোগিতার আহ্ববান জানিয়েছে দূতাবাস।

স্পেনে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের রাস্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকারের নির্দেশনায়  দূতাবাসের মিনিস্টার ও মিশন উপ-প্রধান এম হারুন আল রশিদ এর নেতৃত্বে  দূতাবাস টীম দু-দিনের সেবা দিতে বার্সেলোনা আসেন প্রশাসনিক কর্মকর্তা(হিসাব)মো.জাহাঙ্গীর আলম,মো.সাইফুল ইসলাম,ব্যক্তিগত কর্মকর্তা এএসএম রেজাশাহ পাহলভী,অফিস সহকারী মো.শফিক ইসলাম,কম্পিউটার অপারেটর অর্ণব হোসেন।

দূতাবাসের সেবাসমূহের মধ্যে ছিল তিনশত বিশ জন প্রবাসীদের মধ্যে এমআরপি নতুন পাসপোর্ট বিতরণ,দুইশত চল্লিশ জন প্রবাসীর পাসপোর্ট রি-ইস্যু আবেদন গ্রহণ,৪০জন স্প্যানিশ পাসপোর্টদারী প্রবাসীর নো-ভিসা আবেদন গ্রহণ।এছাড়াও শতাধিক প্রবাসীদের প্রয়োজনীয় বিভিন্ন কাগজপত্র সত্যায়ন এবং একশত পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটের আবেদন গ্রহণ ইত্যাদি।
করোনা মহামারী সময়ে দূতাবাস তাদের আন্তরিক সেবা কার্যক্রম নিয়িমিত চালিয়ে যাওয়াতে, স্পেন প্রবাসী বাংলাদেশীরা রাস্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার ও তার দূতাবাস টীমের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন