শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
জীবন যেখানে দ্রোহের প্রতিশব্দ মৃত্যু সেখানেই শেষ কথা নয়..  » «   শিল্প উদ্যোক্তা ও ক্রীড়া সংগঠক মো: জিল্লুর রাহমানকে  লন্ডনে সংবর্ধনা  » «   ঈদের সামাজিক গুরুত্ব ও বিলাতে ঈদের ছুটি   » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি  প্রসঙ্গে  » «   হজের খুতবা বঙ্গানুবাদ করবেন মাওলানা শোয়াইব রশীদ ও মাওলানা খলিলুর রহমান  » «   হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু, তাবুর শহর মিনায় হাজিরা  » «   ঈদের ছুটি : আমাদের কমিউনিটিতে সবার আগে শুরু হোক  » «   ঈদের দিনে বিলেত প্রবাসীদের মনোবেদনা  » «   বিলেতে ঈদ উৎসব এবং বাঙ্গালী কমিউনিটির অন্তর্জ্বালা  » «   জলঢুপে বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমান কেম্প  » «   তিলপাড়ায় বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   করিমগঞ্জ দিবস  » «   ঈদের ছুটি চাই : একটি সমন্বিত উদ্যোগ অগণিত পরিবারে হাসি ফুটাতে পারে  » «   ট্রাক ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাণ গেল তিন বন্ধুর  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতালের বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


ঝালকাঠির বিসিক শিল্প নগরীর কাশবন মানুষের সমাগমে মুখরিত



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

 

ঝালকাঠিতে শরৎ-এর বিদায় বেলায় শহরতলীতে ঢাপড় বিসিক শিল্পনগরি  বিনোদন প্রিয় মানুষের সমাগমে মূখরিত হচ্ছে।

ঝালকাঠি জেলায় বিনোদনের মত আকর্ষনিয় পার্ক বা অন্য কোন স্পট না থাকায় প্রাকৃতিক ভাবে জন্ম নেয়া বিসিক এলাকয় কাশবনকেই বিনোদন এর স্পট হিসেবে বেছে নিয়েছে মানুষ।। দুমাস ধরে বিসিক শিল্পনগরী এলাকায় অব্যবহৃত জায়গায় কাশবনের ফুল ফোটার পর থেকে সব বয়সি মানুষকে আকর্ষন করছে।

সপ্তাহের শুক্র ও শনিবার সরকারি ছুটি থাকায় পরিবারের সদস্যদের নিয়ে এখানে আসেন এবং ঘুরে বেড়িয়ে যান। কাশফুল শ্বেত ও শুভ্রতার প্রতীক হলেও একশ্রেণীর তরুন-তরুনীদের মধ্যে অনাকাঙ্খিত উচ্ছাসের কারনে কিছু  অপ্রীতিকর ঘটনাও ঘটেছে। এখানে আসা বিনোদন প্রিয় মানুষ দাবি করেছে ঝালকাঠিতে দর্শনীয় ও আকর্ষন করা একটি পার্ক নির্মাণ করা হলে মানুষের বিনোদন সংকট লাঘব হতে পারে।

ঝালকাঠিতে ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে ঝালকাঠি জেলা শহর সংলগ ঝালকাঠি-বরিশাল আঞ্চলিক মহাসড়কে নলছিটি উপজেলার ভৈরবপাশা ইউনিয়নে ঢাপড় এলাকায় বিসিক শিল্পনগরীর কাজ শুরু হয়। ১১.০৮ একর মাটি ভরাট করে রাস্তা-বিদ্যুৎ লাইনের সুবিধা রেখে ৭৯ টি প্লট তৈরি করা হয়। প্লট বিক্রির মূল্য অত্যাধিক হওয়ায় আগ্রহী ক্ষুদ্র ও মাঝারী শ্রেণীর শিল্প উদ্যোক্তাদের মধ্যে আগ্রহ সৃষ্টি  হয়নি। পরবর্তীতে বিসিক প্লটের মূল্য কমিয়ে আনায় সারেং ফার্নিচার প্রতিষ্ঠান গড়ে ওঠেছে এবং একই প্রতিষ্ঠানের মালিকানাধীন বিভিন্ন ক্যাটাগরির আরও ৬ টি প্লট বিক্রি হয়েছে ও আরও ৩ জন প্লট কেনার আবেদন করেছে। বিশাল এলাকা খালি থাকায় এখন কাশবনই মানুষের মধ্যে আকর্ষণ বাড়িয়েছে।

আরও দেখুন:

 


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন