শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
কারী ইন্ড্রাস্টির সংকট মোকাবেলায় দরকার সমন্বিত উদ্যোগ  » «   বিবিসি প্রকাশ করেছে উইঘুর নির্যাতন নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য  » «   মাদ্রিদে বাংলাদেশ দূতাবাসে বাংলা নববর্ষ উদযাপন  » «   মাঙ্কিপক্স সংক্রমণ আরও ২ দেশে: বেলজিয়ামে ২১ দিনের কোয়ারেন্টিন ঘোষণা  » «   শুধুই নারীদের পরিচালনায় প্রথম সৌদি আরবের আকাশে উড়ল ব্যতিক্রমী ফ্লাইট  » «   গোলাপগন্জে চেয়ারম্যান প্রার্থী এলিম চৌধুরী’র মতবিনিময়  » «   দুদকের মামলায় হাজী সেলিম কারাগারে  » «   নিষেধাজ্ঞার মধ্যেও রাশিয়ার মুদ্রা রুবল’র উত্থান  » «   কারী শিল্পের সংকট মোকাবেলায় সিবিআই প্রেসিডেন্টের কাছে  বিসিএ’র পাঁচ দাবী উপস্থাপন  » «   গোলাপগঞ্জে ভোটার হাল নাগাদ শুরু  » «   বার্সেলোনায় মাদারীপুর সমিতির ঈদ পুনর্মিলনী  » «   প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের প্রশংসায় স্পেনের প্রেসিডেন্ট  » «   আব্দুল গাফ্ফার চৌধুরীর চিরবিদায়  » «   ইতালির জেনোভায়‌ প্রবাসীদের কনস্যুলেট সেবা প্রদান  » «   বিয়ানীবাজার থানা জনকল্যাণ সমিতি ইউকে‘র দ্বি-বার্ষিক সাধারণ সভা ও সম্মেলন অনুষ্ঠিত  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন

৩৮তম বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারে রেকর্ড গড়লেন রব্বানী-তৃপ্তি দম্পত্তি



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

৩৮তম বিসিএস শিক্ষা ক্যাডারের ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে গতকাল মঙ্গলবার ৩০জুন।এতে মেধা তালিকায় ১ম ও অষ্টম স্থান অধিকার করে অনন্য রেকর্ড গড়লেন ঢাবির দুই সাবেক শিক্ষার্থী রব্বানী-তৃপ্তি দম্পতি।

প্রথম হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শেখ মোস্তাক রাব্বানী। একই ক্যাডারে অস্টম স্থান অধিকার করেছেন তার স্ত্রী একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী নয়ন তারা তৃপ্তি। তারা দু’জনই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের ২০১০-১১ সেশনের শিক্ষার্থী। অনুপ্রেরণার গল্পে গতকাল মঙ্গলবার সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন এই ভাগ্যবান দম্পতি।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার বিকেলে ৩৮তম বিসিএস পরীক্ষার চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। এতে ২ হাজার ২০৪ জন প্রার্থীকে ক্যাডার পদের জন্য সুপারিশ করা হয়েছে। এছাড়া নন-ক্যাডারে আরও ৬ হাজার ১৭৩ জন প্রার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে।

জানা গেছে, মোস্তাকের বাড়ি ফরিদপুর সদর উপজেলায়। আর নয়ন তারার পাবনার ভাঙুড়া উপজেলায়। শেখ মোস্তাক রাব্বানী সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, বিসিএসে উত্তীর্ণ হওয়ার অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করার মতো না। তার চলার পথের সঙ্গী হয়েছেন তার স্ত্রীও। সত্যিই এটা অন্যরকম অনুভূতি। তিন-চার বছর টানা পরিশ্রমের পর এমন ফলাফল পেয়ে খুব ভাল লাগছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি বলেন, এই অর্জন সম্পূর্ণ আমাদের বোঝাপড়ার জন্য হয়েছে। আমরা পড়ালেখার ক্ষেত্রে সব সময় একে অপরকে সহযোগিতা করেছি। আমরা সাংসারিক কাজেও যেমন পরস্পরকে সহযোগিতা করেছি, ঠিক তেমনি লেখাপড়ার ক্ষেত্রেও করেছি। আমরা একে অপরকে পড়া দিতাম। সেগুলো আবার ধরতামও। এর মাধ্যমে কোথায় কি ভুল হচ্ছে সেটি ধরে সংশোধন করে নিতাম। দেশের শিক্ষায় কিছুটা হলেও অবদান রাখতে চান শেখ মোস্তাক রব্বানী।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন