সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
শারজাহ থেকে সুজন মিয়ার লাশ দেশে প্রেরণ ও দাফন সম্পন্ন  » «   নিউইয়র্কে জালাল স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত  » «   টানা বৃষ্ঠি আর পাহাড়ি ঢলে সিলেট বন্যার সম্ভাবনা  » «   ইতালিতে সড়ক দূর্ঘটনায় এক বাংলাদেশী যুবকের আশঙ্কাজনক অবস্থা  » «    ক্রিকেট ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন বড়লেখা উপজেলা শাখার নতুন কমিটি গঠিত  » «   হায়া সোফিয়া মসজিদ হবেই, কোনও চাপে নড়বেন না এরদোয়ান  » «   বিদেশে গমনকারী সকল বাংলাদেশিকে করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে যেতে হবে  » «   দুবাইতে অনলাইনে পাওয়া যাবে কোরবানির পশু  » «   ১৫ জুলাই থেকে শারজাহ মিউনিসিপলিটির ভার্চুয়াল সেবা শুরু  » «   দুবাই থেকে পালিয়ে গিয়ে গ্রেপ্তার চট্টগ্রামের আজম খান  » «   সাবরিনাকে জিজ্ঞাসাবাদ: চেয়ারম্যান পদ অস্বীকার, দাম্পত্যে ফাটল  » «   বড়লেখায়  ইয়াং স্টার এসোসিয়েশনের লাইটিং কর্মসূচি  » «   হোয়াইচ্যাপেলে তিন তরুণের  উদ্যোগে  ফামোস ক্যাফে‘র যাত্রা  » «   করোনা নেগেটিভ সনদ এবং ভিনদেশে বাংলাদেশ  » «   সংযুক্ত আরব আমিরাতের ভিসা পরিষেবাগুলিতে ফি ও জরিমানা পুনরায় সক্রিয় হচ্ছে  » «  

করোনা মুক্ত হচ্ছে আবুধাবির হাসপাতালগুলি



আবুধাবির স্বাস্থ্য বিভাগ শুক্রবার ঘোষণা করেছে যে, আল আইন এর তাওয়াম হাসপাতাল এখন করোনা মুক্ত হয়েছে এবং এ হাসপাতালে পুনরায় স্বাভাবিক স্বাস্থ্য সেবা শুরু করা হয়েছে ।স্থানীয় কর্তৃপক্ষের তথ্য অনুযায়ী শুক্রবার সর্বশেষ করোনা রোগীকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে ।

এর আগে , আবুধাবির শেখ শেখবুথ মেডিকেল সিটিকে ও করোনা মুক্ত ঘোষণা করা হয় | গত সপ্তাহে, সংযুক্ত আরব আমিরাতের অনেকগুলি মেডিকেলিনিক, অ্যাডনেক ফিল্ড হাসপাতাল এবং তাওয়াম হাসপাতাল সহ আরও অনেক হাসপাতালে সর্বশেষ করোনা রোগীদের ছাড়পত্র দেবার পরে কোভিড মুক্ত ঘোষণা করা হয়েছিল।

হাসপাতালগুলো সম্পূর্ণ Covid-ফ্রি হওয়াতে সকাল ১০টা থেকে -দুপুর ১২ টা এবং বিকাল ৫টা থেকে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য সময় নির্ধারণ করা হয় বলে SEHA কর্তৃপক্ষ থেকে এক টুইট বার্তায় এইসব তথ্য জানানো হয় | এই সময়সূচি ২৮ শে জুন রোববার থেকে কার্যকর হবে |

টুইট বার্তায় আরও বলা হয় যে , একই সাথে দুই এর অধিক দর্শনার্থীর প্রবেশ এর অনুমতি দেয়া হবে না |
এবং দর্শণার্থীদের মুখোশ ও শারীরিক দূরত্ব বজায় সহ হাসপাতাল কর্তৃক বাস্তবায়িত সমস্ত সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাগুলি মেনে চলা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

স্বাস্থ্যখাতের সামঞ্জস্যপূর্ণ প্রচেষ্টা ও জাতীয় স্ক্রীনিং প্রোগ্রাম এর কারণে করোনা রোগীর প্রয়োজনীয় জরুরি চিকিৎসা বহুলাংশে হ্রাস পেয়ে এই মাইলফলকে পৌঁছেছে ।স্বাস্থ্যবিভাগ ও সরকারের সংশ্লিষ্ট সংস্থার সাথে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে এই কর্মসূচি বাস্তবায়িত হয়েছে |