শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
কেসি সলিসিটর্সের দশক পূর্তি উদযাপন  » «   বঙ্গবন্ধু স্কলারশিপ আন্তর্জাতিক অঙ্গণে বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রতিচ্ছবি  » «   লীলা নাগের স্মৃতি রক্ষায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উদ্যোগ নেবে  » «   ফুসফুস-ক্যান্সার পরীক্ষার জন্য মাইল এন্ড লেজার সেন্টারে স্থাপন করা হচ্ছে বিশেষ ‘স্ক্রিনিং মেশিন’  » «   অলি-মিঠু-টিপু প্যানেলের পরিচিতি ও ইশতেহার ঘোষণা  » «   ২০ নভেম্বর লন্ডনের রয়েল রিজেন্সিতে ৫ম বেঙ্গলী ওয়েডিং ফেয়ার  » «   একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির যুক্তরাজ্য শাখা গঠিত  » «   টি আলী স্যার ফাউন্ডেশন সম্মাননা পেলেন সিলেটের ২৪গুণী শিক্ষক  » «   নওয়াগ্রাম প্রগতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ফুল, ফল ও ঔষধি বৃক্ষরোপণ  » «   আলোকিত মানুষ শিক্ষক মো. সমছুল ইসলাম এর ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী  » «   সিলেটের বিয়ানীবাজারে একটি পরিত্যক্ত কূপে তাজা গ্যাসের মজুদ আবিষ্কৃত  » «   বাংলাদেশী কারী  ব্রিটেনের প্রবৃত্তি ও খাবার সংস্কৃতিতে অনন্য  অবদান রাখছে  » «   পুরুষতান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থায় নারীবাদের প্রতিবন্ধকতা  » «   রিষি সুনাক এশিয়ান বংশদ্ভোত, কনজারভেটিভ এবং ধনীদের বন্ধু  » «   গোলাপগঞ্জ প্রেসক্লাব নিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টিকারীদের ব্যাপারে সতর্ক থাকার আহবান  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


বিয়ানীবাজারে বাড়ীতে গিয়ে করোনার নমুনা সংগ্রহ



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

বিয়ানীবাজার (সিলেট) উপজেলায় কোনও ব্যক্তির করোনা ভাইরাসের লক্ষণ দেখা দিলে তাকে আর সিলেট কিংবা ঢাকায় যেতে হবে না। আজ থেকে আক্রান্ত হওয়ার উপসর্গ রয়েছে এমন ব্যক্তির বাড়িতে গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করবে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তাররা। হাসপাতালে না এসে হটলাইন নম্বরে ফোন করে জানালেই বাসায় গিয়ে তারা নমুনা সংগ্রহ করবেন।

শুক্রবার (৩ এপ্রিল) এ কার্যক্রম শুরু হয়েছে জানিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোয়াজ্জেম আলী খান চৌধুরী বলেন, বাড়ি বাড়ি গিয়ে করোনা সন্দেহভাজনদের নমুনা সংগ্রহ করতে আমরা প্রস্তুত রয়েছি। এক্ষেত্রে রোগী প্রথমে আমাদের হটলাইন নম্বরে ফোন করে বিস্তারিত জানাবেন। এরপর উপসর্গ পর্যালোচনা করে প্রয়োজন অনুযায়ী আমাদের একটি টিম সন্দেহজনক রোগীর বাড়িতে গিয়েই নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে আসবে।

অন্যদিকে, করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের সেবা দিতে ইতোমধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৯ বেডের একটি আইসোলেশন ওয়ার্ড ও দুটি কেবিন প্রস্তুত রেখেছেন দায়িত্বশীলরা। তবে এখন পর্যন্ত আইসোলেট করার মতো কোন রোগীর সন্ধান না পাওয়ায় অনেকটা স্বস্তি প্রকাশ করেছেন সংশ্লিষ্টরা।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন