বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
ঈদে ছুটি নাই  » «   কমিউনিটি ও পরিবারের স্বার্থকে প্রাধান্য দিলে ঈদের ছুটি নিয়ে দ্বি-মত থাকবে না- শায়খ আব্দুল কাইয়ুম  » «   ব্রিটেনে ঈদ হলিডে : আকাঙ্ক্ষা ও বাস্তবতা  » «   দয়া নয়, ঈদের ছুটি শ্রমজীবি মুসলমানদের অধিকার  » «   ব্রিটেনে ঈদের ছুটি নিয়ে কমিউনিটি ও মানবাধিকার নেতারা যা বলেন  » «   বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃক বন্যা দুর্গতদের চিকিৎসার্থে বিনামূল্যে ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল ক্যাম্প  » «   যুক্তরাজ্যে ঈদের ছুটির দাবীতে  আলতাব আলী পার্কে সমাবেশ অনুষ্ঠিত  » «   পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে স্পেনে দূতাবাসের বিশেষ আয়োজন  » «   পদ্মা সেতুর স্মারক নোট বাজারে আসবে রবিবার  » «   পদ্মা সেতুর জন্য অভিনন্দন বিশ্বব্যাংক প্রতিনিধির  » «   অদম্য বাংলাদেশ, খুলল পদ্মার দ্বার  » «   আছে শুধু ভালোবাসা, দিয়ে গেলাম তাই: প্রধানমন্ত্রী  » «   রেমিটেন্স প্রেরণে উদ্বুদ্ধকরণে মাদ্রিদে মতবিনিময় সভা’ অনুষ্ঠিত  » «   বিশ্বনাথে মায়ের কোল থেকে ভেসে গেল শিশু, ৫ জনের মৃত্যু  » «   লন্ডনে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র ইউকের বিশ বছরপূর্তি উদযাপন  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন


করোনা ভাইরাস এড়াতে প্রবাসীদের দেশে না ফেরার আহবান



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

বাংলাদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, বাংলাদেশি যারা বিদেশে চাকরি করেন, নেহাত জরুরি না হলে এখন দেশে আসা এড়াতে হবে। কারণ আমরা চাই না আমাদের দেশ আক্রান্ত হোক। নিশ্চয়ই প্রবাসী বাংলাদেশিরাও চান না তাদের মাধ্যমে দেশের মানুষ কিংবা পরিবারের কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হোন। দেশ ও পরিবারের স্বার্থেই এখন বিদেশে গমনাগমন বন্ধ রাখতে হবে।

মঙ্গলবার (৩ মার্চ) বিকেলে সচিবালয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিস্থিতি সম্পর্কে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

উল্লেখ্য, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এক কোটি প্রবাসী বাংলাদেশি রয়েছেন। বর্তমানে বিশ্বের ৬০টি দেশে করোনাভাইরাস দেখা দিয়েছে। সেসব দেশে অনেক বাংলাদেশি কাজ করেন। মধ্যপ্রাচ্য ও ইতালিতেও অনেকেই কাজ করেন। সেখানেও করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস সর্বোচ্চ মাত্রায় ছড়িয়ে পড়ছে। জেনেভায় এক সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বলেন, দক্ষিণ কোরিয়া, ইতালি, ইরান এবং জাপানের পরিস্থিতি এখন সবচেয়ে উদ্বেগজনক। তবে দক্ষিণ কোরিয়া নিবিড় নজরদারি চালু করেছে বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে।

করোনাভাইরাসে শুধুমাত্র চীনের মূল ভূখণ্ডেই আক্রান্তের সংখ্যা ৮০ হাজার ১৫১ এবং মৃত্যু হয়েছে দুই হাজার ৯৪৩ জনের। অপরদিকে ইতালিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫২ জনে। সেখানে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ৩৬। এদিকে, লাটভিয়া, সৌদি আরব, সেনেগাল এবং মরক্কোতে প্রথমবারের মতো করোনায় আক্রান্তের খবর নিশ্চিত করা গেছে।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন