বুধবার, ৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
বেশ্যাবিদদের ‘এলিট সিস্টেম’!  » «   কিং চার্লস ও কুইন কনসোর্ট বাংলা টাউন আসছেন  » «   অসুস্থ চারখাই ইউপি চেয়ারম্যান হোসেন মুরাদ চৌধুরীর আশু সুস্থতা কামনায় লন্ডনে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত  » «   আলীনগর ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট ইউকে‘র আত্নপ্রকাশ  » «   অমর একুশে বইমেলার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী  » «   তরুণদের উচ্চশিক্ষায় সহায়তা: মেয়র লুৎফুর রহমান এবার চালু করলেন ইউনির্ভাসিটি বার্সারি স্কিম  » «   ‘টি আলী স্যার’কে নিয়ে হবিগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে গানের চিত্রায়ণ  » «   বিবিসিজিএইচ এর বিয়ানীবাজারের মোল্লাপুর-এ বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান  » «   কবিকণ্ঠের সুবর্ণরেখায় শিক্ষাব্রতী শীর্ষক সুহৃদ আড্ডায় বক্তারা- অগণন প্রাণে আলো জ্বেলেছেন মো. শওকত আলী  » «   স্পেন-বাংলাদেশ প্রাতিষ্ঠানিক সম্পর্কের পরিধি বিস্তৃত হচ্ছে  » «   টি আলী স্যারকে নিয়ে লেখা আব্দুল গাফফার চৌধুরী’র গানে সুর দিলেন মকসুদ জামিল মিন্টু  » «   লন্ডনে প্রকাশক ও গবেষক মোহাম্মদ নওয়াব আলীর সাথে মতবিনিময় ও ‘বাসিয়ার বই আলোচনা‘র  মোড়ক উন্মোচন  » «   ঢাকা এন আর বি ক্লাবে – ‘বাঙালীর বিয়েতে বাংলাদেশের পোশাক’ ক্যাম্পেইনের নেটওয়ার্কিং মিটিং  » «   প্রধানমন্ত্রীর সাথে ঢাবি অ্যালামনাই ইন দ্য ইউকে’র সভাপতির সাক্ষাৎ  » «   লন্ডনে গোলাপগঞ্জের কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের সাথে সরওয়ার হোসেনের মতবিনিময়  » «  
সাবস্ক্রাইব করুন
পেইজে লাইক দিন

ইউরোপের স্লোভেনিয়ায় প্রথম মসজিদ হচ্ছে



সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

স্লোভেনিয়া। মধ্য ইউরোপের একটি দেশ। আগে যুগোস্লাভিয়ার অংশ ছিল দেশটি। দেশটিতে এ প্রথম নির্মিত হচ্ছে একটি মসজিদ। দেখতে অনেক সুন্দর ও দৃষ্টিনন্দন মসজিদটি।এ অঞ্চলে বসবাসরত মুসলিমরা দীর্ঘ প্রায় ৫০ বছর ধরে মসজিদ নির্মাণে প্রচেষ্টা চালিয়ে আসছিল। বিভিন্ন মহলের বিরোধিতার কারণে এতদিন তা নির্মাণ সম্ভব হয়নি।

অবশেষে মুসলমানদের সে চেষ্টায় সফলতার মুখ দেখেছে। মুসলিমরা অর্ধ শতাব্দীর প্রতিক্ষার পর পেয়েছে সে সুযোগ। মসজিদের নির্মাণ কাজও প্রায় শেষের পথে।মধ্য ইউরোপের দেশ স্লোভেনিয়া মসজিদ না থাকার অভিযোগে ২০১৫ সালে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ সিরিয়ার মুসলিম শরণার্থীদের আশ্রয় দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিল।কারণ হিসেবে তারা সে সময় বলেছিল, ‘দেশটিতে মুসলিমদের জন্য কোনো মসজিদ নেই। স্লোভেনিয়ায় তাদের আশ্রয় দিলে তারাই সমস্যার মুখোমুখি হবে।’

সেই স্লোভেনিয়ায় মসজিদ নির্মাণ নিঃসন্দেহে সেসব মুসলিমদের জন্য সুখবর, যারা দীর্ঘদিন ধরে মসজিদের দাবি করে আসছিল; আবার যেসব মুসলিম শরণার্থীরা ইতোমধ্যে আশ্রয় নিয়েছে দেশটিতে তাদের জন্য এটি সুসংবাদ।

৫০ বছরের দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর হলেও স্লোভেনিয়ায় মসজিদের মিনার থেকে উচ্চরিত হবে কালেমার সুমহান আহ্বান।


সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন