শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
বিজিবি-বিএসএফ গুলাগুলি:বিএসএফ সদস্য নিহত  » «   বিক্ষোভ-মিছিল-অগ্নিসংযোগ আর আন্দোলনে উত্তাল স্পেনের কাতালোনীয়া  » «   রিভার বাংলা নদী সভা’র কিশোরগঞ্জ জেলা কমিটি গঠিত  » «   আমিরাতের শ্রম মন্ত্রীর সাথে ভিসা নিয়ে বৈঠক করেছেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী  » «   কবি দিলওয়ার সুরমাপারের কবি হলেও আর্ন্তজাতিক কবি  » «   গীতিকবি রইস রহমানকে নিয়ে কবিকণ্ঠ’র সাহিত্য আড্ডা অনুষ্ঠিত  » «   ছাত্রসংগঠনকে দলীয় রাজনীতিমুক্ত করুন  » «   নিউইয়র্কে মতবিনিময় সভায় নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি  » «   রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে কাতালোনিয়ার ৯ নেতার কারাদণ্ডাদেশ  » «   জলবায়ু পরিবর্তন, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও নিরস্ত্রীকরণ ইস্যুতে বক্তব্য রাখেন নুরুল ইসলাম নাহিদ  » «   প্রধানমন্ত্রীর সাথে আবরারের পরিবারের সদস্যরা  » «   প্রবাসীদের জাতীয় পরিচয়পত্র সরবরাহের কাজ শুরু হচ্ছে শিঘ্রই  » «   গ্রীসে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে মতবিনিময়  » «   আবরার হত্যায় ফ্রান্স ও সুইজারল্যান্ডের বিস্ময় ও দুঃখপ্রকাশ  » «   বুয়েট ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের কক্ষ সিলগালা  » «  

মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বাবাকে হত্যা, ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার



সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে মেয়েকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে। বুধবার রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই ব্যক্তি মারা যান। দুপুরে উপজেলার পাটগ্রাম এলাকায় হামলার শিকার হন তিনি। পুলিশ অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে।

নিহত ব্যক্তির নাম আবদুর রউফ (৪৫)। গ্রেপ্তার হয়েছেন আমিনুল ইসলাম (২৮)। তিনি কাজিপুর পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক। আমিনুলের দলীয় পরিচয় নিশ্চিত করেছেন, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা একরামুল হক। একরামুল জানিয়েছেন, তিনি জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক (সদ্য সাবেক) থাকা অবস্থায় আমিনুলদের কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়। ওই পৌর কমিটি এখনো বলবৎ আছে।

কাজিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লুৎফর রহমান ও নিহতের স্বজনদের সূত্রে জানা গেছে, সিরাজগঞ্জ সরকারি কলেজের স্নাতক প্রথম বর্ষের ছাত্রী সোনিয়া খাতুনকে ছাত্রলীগ নেতা আমিনুল প্রায়ই উত্ত্যক্ত করতেন। সম্প্রতি সোনিয়ার বাবা আবদুর রউফ বিষয়টি আমিনুলের বাবা-মাকে জানান। এতে আমিনুল আরও বেপরোয়া হয়ে ওঠেন। বুধবার দুপুরের দিকে আবদুর রউফ বাসায় ফিরছিলেন। এ সময় আমিনুল ও তাঁর সহযোগীরা তাঁকে পিটিয়ে ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ফেলে রেখে চলে যান।

স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, হামলার পরপরই স্থানীয়রা মুমূর্ষু অবস্থায় সোনিয়ার বাবাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পুলিশ জানিয়েছে, সেখানেই রাতে রউফের মৃত্যু হয়।

ওসি জানান, এই ঘটনায় আমিনুলসহ কয়েকজনকে আসামি করে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে হত্যা মামলা হয়েছে। কাজিপুর থানা-পুলিশ পাটগ্রাম বাজার থেকে আমিনুলকে গ্রেপ্তার করেছে। অন্য আসামিদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।