শুক্রবার, ৫ জুন ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
সাভারে বিক্রি হচ্ছে করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট,আটক দুইজন  » «   সিলেটে বিনা চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুতে ক্ষুব্ধ পররাষ্ট্রমন্ত্রী  » «   বিয়ানীবাজার-লন্ডন থেকে আমেরিকা: পরিবারের বিস্ময়কর পুনর্মিলনের গল্প  » «   মৃত হামিদা বেগমের স্বজনদের সন্ধানে লেবানন দূতাবাস  » «   কারী শিল্পের মূল্য সংযোজন কর ৫% করার দাবী করেছে বিসিএ  » «   অসমে ভূমিধসে তিন জেলায় মৃত্যু ২১জনের  » «   একটি লাশের দাফন ও ছাত্রলীগের ‘ওরা ৪১ জন’  » «   করোনা সংকটে বিয়ানীবাজার উপজেলার কসবা-খাসা গ্রামে পাশে দাড়ানো ব্যক্তি ও সংগঠন  » «   যদি কিছু মনে না করেন  » «   এক দিনে ২২৭ কর্মকর্তাকে চাকুরিচ্যুত করল প্রাইম লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানি  » «   আদর্শের বিপরীতেই দাঁড়িয়ে যাচ্ছে আদর্শ  » «   করোনায় সৌদি প্রবাসী বাংলাদেশিদের অসহায়ত্ব  » «   সোয়া ছয় কোটি মানুষের হাতে সরকারের ত্রাণ  » «   শারজাহর মসজিদগুলিতে পরিচ্ছন্নকরণ অব্যাহত  » «   ‘আলোকিত ৯৫ মাদারীপুর’ এর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ২০২০ উদযাপন  » «  

ডাকসুর কোষাধ্যক্ষ অপসারন ও ৩৪ জনের ছাত্রত্ব বাতিলের দাবীতে ভিপি’র চিঠি



ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ব্যাংকিং অ্যান্ড ইনস্যুরেন্স বিভাগের মাস্টার অব ট্যাক্স ম্যানেজমেন্ট প্রোগ্রামে “চিরকুটের” মাধ্যমে ভর্তি হওয়া ৩৪ জন শিক্ষার্থীর ছাত্রত্ব বাতিল এবং ডাকসুর কোষাধ্যক্ষ ও ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের অপসারণের দাবি করে ঢাবি উপাচার্য ড. মো আখতারুজ্জামানকে চিঠি দিয়েছেন ঢাকসু ভিপি নুরুল হক নুর।

চিঠিতে উপাচার্যকে বলা হয়, আপনি অবগত আছেন যে, দীর্ঘ ২৮ বছর ৪ দেশের ২য় পার্লামেন্ট খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনের পূর্বে ছাত্রত্ব দেখানাের নিমিত্তে নিয়ম লঙ্ঘন করে ১১ই ফেব্রুয়ারি তফসিল ঘােষণার পর ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ব্যাংকিং এন্ড ইনস্যুরেন্স বিভাগে কোন ধরণের ভর্তি পরীক্ষা ছাড়াই ৩৪ জন শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়েছে। যা সান্ধ্যকালীন কোর্স তথা বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম পরিপন্থী।

চিঠিতে অনিয়মের মাধ্যমে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের তালিকা দেয়া হয় যার মধ্যে ডাকসুর সদস্য- নজরুল ইসলাম, মুহাঃ মাহমুদুল হাসান, রাকিবুল হাসান রাকিব, নিপু ইসলাম তন্বী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মােঃ আরিফ ইবনে আলী, স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক সাদ বিন কাদের চৌধুরি, ক্রীড়া সম্পাদক শাকিল আহমেদ শাকিল ও স্যার এ. এফ. রহমান হলের ভিপি আব্দুল আলীম খানও রয়েছে।

চিঠিতে আরও বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ে যে সব বিভাগে সান্ধ্যকালীন কোর্স চালু রয়েছে সেখানে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে লিখিত পরীক্ষা ও ভাইভার মাধ্যমে একাডেমিক ফলাফল, কাজের অভিজ্ঞতা ও ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল বিবেচনা সাপেক্ষে ভর্তি করা হয়ে থাকে। অতএব, নিয়ম বহির্ভূতভাবে ভর্তি হওয়া ৩৪ জনের ছাত্রত্ব বাতিল করে অভিযুক্তদের ডাকসু ও হল সংসদের পদ শূন্য ঘােষণা করা এবং ডাকসুর কোষাধ্যক্ষ ও ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের অপসারণে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণে আপনার সু-মর্জি প্রত্যাশা করছি।

চিঠির কপি

উল্লেখ্য, গত ১১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত ডাকসু নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর ছাত্রলীগের ৩৪ জন সাবেক ও বর্তমান নেতা ছাত্রত্ব টিকিয়ে রাখতে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ব্যাংকিং অ্যান্ড ইনস্যুরেন্স বিভাগের মাস্টার অব ট্যাক্স ম্যানেজমেন্ট প্রোগ্রামে ভর্তি হন। নির্বাচন করতে আগ্রহী এই ৩৪ জনের মধ্যে কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের সম্পাদক ও সদস্য পদে নির্বাচনে আটজন অংশ নেন, বিজয়ী হন সাতজন। এ ছাড়া দুটি হল সংসদের ভিপি পদে অংশ নেন দুজন।

ভর্তির নীতিমালা অনুযায়ী, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলেই কেবল ওই প্রোগ্রামে ভর্তি হওয়া যায়। কিন্তু তাঁদের কেউই তাতে অংশ নেননি। ভর্তির বিষয়ে তারা গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন ভর্তি পরীক্ষার বদলে তারা ভর্তি হয়েছিলেন ঢাবি উপাচার্য ও ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডীন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের বিশেষ সুপারিশের (চিরকুট) মাধ্যমে।