বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
২১ আগস্টের ঘটনা ছিল গভীর নীলনকশার অংশ : রিজভী  » «   বৃহস্পতিবার প্রত্যাবাসনের জন্য কোন রোহিঙ্গা পাওয়া যায় নি  » «   ২১ আগস্ট নিয়ে সংহতি আমিরাতের প্রতিবাদি কবিতার আয়োজন  » «   রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে বৃহস্পতিবার  » «   শিক্ষার আলো পৌছাতে শিক্ষকের প্রতিদিন ১৮ মাইল ঘোড়ায় চড়া  » «   মাদ্রিদে হবিগঞ্জ এসোসিয়েশন এর আনন্দ ভ্রমণ  » «   কাতালোনিয়া মহিলা সমিতির বনভোজন ও ঈদ পুনর্মিলনী  » «   চামড়া শিল্পের জন্য সহায়ক নীতি প্রয়োজন  » «   উপমহাদেশের এক মহানায়ক হাওরের সন্তান আনন্দমোহন বসু  » «   একশ প্রতিবন্ধীর মুখে হাসি ফুটিয়েছে গোলাপগঞ্জ উপজেলা হেল্পিং হ্যান্ডস ইউকে  » «   চন্দরপুর ফ্রি সেলাই প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্বনির্ভরতার পথ দেখাবে  » «   বার্মিংহামে কসবা-খাসা ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট ইউকে’র প্রীতি সমাবেশ  » «   কাতালোনীয়া সান্তা কলমা আওয়ামী লীগের জাতীয় শোক দিবস পালন  » «   পর্তুগাল আওয়ামী লীগের জাতীয় শোক দিবস  » «   মদিনায় বাস দূর্ঘটনায় নিখোঁজ ১ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে  » «  

পুর্তগালে জাতীয় শোক দিবস পালন করেছে বাংলাদেশ দুতাবাস



 

 

পর্তুগাল, লিসবনে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪ তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করেছে বাংলাদেশ দূতাবাস,লিসবন।

১৫ আগষ্ট, বৃহস্পতিবার সকালে দূতাবাস প্রাঙ্গনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করার মাধ্যমে শোক দিবসের কার্যক্রম শুরু হয়।
বিকাল ৪ টায় দূতাবাস হলরুমে এ উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়ার আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভায় সভাপতি ছিলেন দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মান্যবর রাষ্ট্রদূত রুহুল আলম সিদ্দিকী।

তৃথীয় সচিব আব্দুল আল রাজির পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করে শুনান তৃথীয় সচিব আব্দুল আল রাজি,সামিয়ুল হক,নুরু উদ্দিন ও শাহাবুদ্দিন ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাষ্ট্রদূত রুহুল আলম সিদ্দিকী বলেন, ১৯৭৫ সাল থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত ২১ বছর বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ, মূল ধারার চেতনা সঠিকভাবে উপস্থাপন করা হয়নি। তাই ঐ সময়ের প্রজন্মকে দোষারূপ না করে তাদেরকে সঠিক ইতিহাস জানালে সে প্রজন্মও পথভ্রষ্ট হবেনা। তিনি প্রবাসে নতুন প্রজন্মকে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস তুলে ধরে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানানোর জন্যও গুরুত্ব আরোপ করেন।বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় প্রবাসীদেরও অবদান রাখার আহ্বান জানান তিনি।

আলোচনা সবায় বক্তব্য রাখেন পর্তুগাল আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফরহাদ মিয়া, বক্তব্য রাখেন পর্তুগাল আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মাহাবুব আলম, উপদেষ্টা আবুল বাশার বাদশা,পর্তুগাল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শওকত ওসমান,কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব রানা তাসলিম উদ্দিন,সহ সভাপতি মহসিন হাবিব ভূঁইয়া,সহ সভাপতি মিজানুর রহমান মোল্লা,সহ সভাপতি এম এ খালেক,আওয়ামী লীগ নেতা সাহাদাত হোসেন,দপ্তর সম্পাদক মো জাকির হোসাইন,পর্তুগাল ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রনি হোসাইন,পর্তুগাল ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনসার আলী।

এছাড়াও আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন পর্তুগাল আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি দেলোয়ার হোসেন, সহ সভাপতি আফজল হোসেন, সহ সভাপতি মিজানুর রহমান মাসুদ,প্রচার সম্পাদক রেজাউল বাসিদ, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক শফিউল আলম শফি,অর্থ সম্পাদক আলিম উদ্দিন,ত্রান বিষয়ক সম্পাদক মোরশেদ আজিম,জুয়েল মোল্লা, আনন্দ বডুয়া,হাসানুসজামান,মোহামমদ তারেক,মোসতাক আহমদ,রিয়াদ হোসেন,ছাত্রলীগ নেতা জাহেদ আহমদ সোহাগ সহ আরো অনেকে।

আলোচনা সভা শেষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু সহ সকল শহীদদের প্রতি বায়তুল মোকার্রম জামে মসজিদে মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে সর্ব সাধারণ পর্তুগাল আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
দোয়া ও মিলাদ মাহফিল পরিচালনা করেন বায়তুল মোকার্রাম মসজিদের খতিব অধ্যাপক আবু সাঈদ।মিলাদ শেষে নৈশভোজে আয়োজন করা হয়।