বুধবার, ১ এপ্রিল ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
করোনা ভাইরাসের সময় পর্তুগাল প্রবাসিদের মানবিক উদ্যোগ  » «   চলমান সংকটে এবার বাড়ি ভাড়া মওকুফের ঘোষণা দিলেন কাতার প্রবাসী মোহাম্মদ আলী  » «   গত ২৪ ঘণ্টায় সৌদি আরবে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৫৭জন  » «   করোনা ভাইরাসের এ সময়ে কেমন আছেন গ্রীসের বাংলাদেশিরা?  » «   ইতালি : জীবন যেখানে থেমে আছে  » «   কুয়েতে মোট ২৮৯ জন করোনা আক্রান্ত তাদের ৫ জন বাংলাদেশি  » «   স্পেনে দ্রুত বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা  » «   আমিরাতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৩ জন আক্রান্ত, ১ জনের মৃত্যু  » «   তবুও সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখুন  » «   আমিরাতের রেসিডেন্স ভিসা ১ মার্চ যাদের শেষ হয়েছে জরিমানা ছাড়াই ৩ মাসের মধ্যে নবায়নের সুযোগ  » «   ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের অসমসহ পাঁচটি রাজ্য এখনও করোনামুক্ত  » «   ইতালি-স্পেনে করোনায় মৃত্যু: ফ্রান্স প্রবাসীরা আতঙ্কিত  » «   করোনার মহাবিপর্যয়ে বিয়ানীবাজারে সিপিবি’র কন্ট্রোল টিম গঠন  » «   করোনায় লকডাউন সময়ে দুস্থদের পাশে মানবিক সংগঠন পারি  » «   স্পেনে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভা্ইরাসে মৃত্যু হয়েছে ৮৩৮ জনের  » «  

যুক্তরাজ্যে সাধারণ ক্ষমার বিষয়টি পার্লামেন্টে উপস্থাপন করার জন্য স্মারকলিপি প্রদান



বৈধকাগজহীন ইমিগ্রান্টদের বৈধতা প্রদানের জন্য কার্যকর পদক্ষেপ নিতে দীর্ঘদিন থেকে সরকারের প্রতি দাবী জানিয়ে আসছে বার্মিংহামের একটি ক্যাম্পেইন গ্রুপ।এ গ্রুপের ধারাবাহিক কার্যক্রমের অংশ হিসাবে গত ৭ আগস্ট বুধবার বেলা ১ ঘটিকায় লেবার দলের বার্মিংহামের ইয়ার্ডলীর এম পি জেস ফিলিপস এর সাথে সাক্ষাৎ করে কাউন্সিলর সাদেক মিয়া সমসু সহ ক্যাম্পেইন গ্রূপের অন্ন্যান্য সদস্য ও কমিউনিটির নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে তার কাছে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয় ।

স্মারকলিপি প্রদান পূর্বে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে কাউন্সিলর সাদেক মিয়া সামসু বলেন যে,নতুন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ক্ষমতা গ্রহণের পর পার্লামেন্টের প্রথম অধিবেশনে লেবার পার্টির এমপি রুপা হকের মতো যেন তিনিও সংসদে বৈধ কাগজহীন যারা ব্রিটেনে আছে তাদের সাধারণ ক্ষমার বিষয়টি আরো জোরালো ভাবে উত্থাপন করার জন্য তাঁর আলোচনায় অনুরোধ করেন ।এসময় কাউন্সিলার উল্লেখ করেন, বৈধ কাগজ-পত্রহীন অভিবাসীরা বৈধতা পেলে ব্রিটেনের বোঝা না হয়ে বরং অর্থনীতিতে ব্যাপক অবদান রাখার পাশা-পাশি আমাদের করি ইন্ডাস্ট্রির স্টাফ সংকটের হাহাকার কাটাতে আমরা সক্ষম হবো ।
ক্যাম্পেইন গ্রূপের রাজু আহমেদ মূল বক্তব্য উপস্থাপনের মাধ্যমে করে স্মারকলিপি এমপির হাতে তুলে দেয়া হয় ।
জেস ফিলিপস এমপি স্মারকলিপি গ্রহণ করে বলেন যে, তিনি বাংলাদেশি কমিউনিটির এ অনুরোধের ভিত্তিতে সাধারণ ক্ষমার বিষয়টি ব্রিটিশ পার্লামেন্টে এবং নতুন ইম্মিগ্রেশন মিনিস্টারের কাছে উত্থাপন করবেন ।

উল্লেখ্য যে, নতুন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ২০০৮ সালে লন্ডন মেয়র থাকাকালীন সময় থেকে বৈধ কাগজহীন অভিবাসী যারা দীর্ঘদিন ধরে বসবাসকারী তাদের সাধারণ ক্ষমার মাধ্যমে বৈধতা দেয়ার পক্ষে তৎপর ছিলেন,এমনকি তিনি মন্ত্রী থাকা অবস্থায় মন্ত্রী পরিষদেও বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছিলেন । প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পার্লামেন্টের প্রথম দিনে রুপা হক এমপি এ ব্যাপারটি তোলে ধরলে প্রধানমন্ত্রী তার আগের অবস্থানই নিশ্চিত করেছেন। এবং তিনি এ বিষয়ে অর্থনীতির সুবিধা-অসুবিধা দেখবেন বলে ঐদিনই মত দিয়েছেন।

ক্যাম্পেইন গ্রূপ থেকে জানানো হয় দশ বছরের বেশি সময় ধরে যেই সমস্ত বৈধ কাগজপত্রবিহীন অভিবাসী ব্রিটেনে রয়েছে তাদের বৈধতা দেয়ার জন্য সরকারের কাছে আবেদন করে পার্লামেন্টের একটি পিটিশন চলমান রয়েছে তাই কমিউনিটির সর্বস্থরের সবাইকে পিটিশনটি সাইন করার জন্য অনুরোধ করা হয় ।

উক্ত স্মারকলিপি প্রদান অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন মিসবাহউর রহমান মিসবা,কামাল আহমেদ,আশিক মিয়া,সাংবাদিক জয়নাল ইসলাম ও ওবায়দুল কবির খোকন, সাজন মিয়া,মারুফ আহমেদ ।