রবিবার, ৫ এপ্রিল ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২২ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
https://blu-ray.world/ download movies
সর্বশেষ সংবাদ
সিলেটের ফার্মিস আক্তার কোয়ারেন্টাইনে দুস্থ্যদের পাশে  » «   বার্সেলোনায় করোনা আক্রান্তদের পাশে দাড়িয়েছে স্বেচ্ছাসেবী বাংলাদেশিরা  » «   করোনার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে ৭২ হাজার ৭৫০ কোটির আর্থিক প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা  » «   বিয়ানীবাজারে সিপিবি’র ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত  » «   নভেল করোনা ও বিশ্বজনীন সমস্যা  » «   দুবাইয়ে আজ থেকে ২ সপ্তাহের জন্য ২৪ ঘণ্টার নিষেধাজ্ঞা  » «   ক্লাপ ফর কেয়ারার্স মানবিক ব্রিটেনের প্রতিচ্ছবি  » «   পর্তুগালে পাঁচ বাংলাদেশি সহ মোট ৯৮৮৬ জন করোনা আক্রান্ত  » «   ফেইসবুকে এক লাখ ৫২বাংলাপরিবার  » «   বিয়ানীবাজারে বাড়ীতে গিয়ে করোনার নমুনা সংগ্রহ  » «    কানাডা প্রবাসি বড়লেখার সৈয়দ মাছুম আহমদ টুনুর ইন্তেকাল  » «   আমিরাতে করোনা আক্রান্ত প্রথম বাংলাদেশির মৃত্যু  » «   গত ২৪ ঘণ্টায় সৌদি আরবে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৫৪জন  » «   আমিরাতে নতুন করে আক্রান্ত ২১০,সুস্থ হয়েছেন ৩৫ জন  » «   করোনায় করুন চিকিৎসা  » «  

ভারত সরকারের দখলে কাশ্মীরি ব্যাংক



ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের মাধ্যমে জম্মু-কাশ্মীর ব্যাংকের সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ চলে যাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে। এতদিন ধরে ব্যাংকটি তাদের কার্যক্রম পরিচালনায় বিশেষ স্বাধীনতা পেয়ে আসছিল। এবার ব্যাংকের নেতৃত্বে পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে ভারতের অর্থ মন্ত্রণালয়।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, রাজ্যসভার পর লোকসভায় ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের প্রস্তাবটি পাস হলেই এবং রাষ্ট্রপতি তাতে স্বাক্ষর করলেই জম্মু-কাশ্মীর ব্যাংকের সম্পূর্ণ মালিকানা নিজেদের দখলে নিয়ে নেবে কেন্দ্রীয় সরকার।

বর্তমানে জম্মু-কাশ্মীর ব্যাংকের ৬০ শতাংশ মালিকানা আছে কাশ্মীরের রাজ্য সরকারের হাতে। কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে অন্তর্র্ভূক্ত হওয়ার পর ওই মালিকানা হবে কেন্দ্রীয় সরকারের।

কেন্দ্রীয় সরকাররে কাছে ব্যাংকের মালিকানা চলে আসার পরপরই সেটিকে সরকারি প্রতিষ্ঠান হিসেবে তার কার্যক্রম পরিচালনা করবে। যার ফলে কেন্দ্রীয় সরকার ব্যাংকের সব ক্ষমতা পেয়ে যাবে। ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং পরিচালনা পর্ষদসহ সবাইকে নিয়োগ দেয়ার ক্ষমতা স্থানান্তরিত হবে কেন্দ্রে।

সূত্রের বরাত দিয়ে টাইমস অব ইন্ডিয়া বলছে, সরকার ৮১ বছর আগে প্রতিষ্ঠিত ব্যাংকটির বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বহুমুখী পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে। জম্মু-কাশ্মীরে কার্যক্রম পরিচালনা ক্ষেত্রে এতদিন ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার মতো ক্ষমতা ছিল জম্ম-কাশ্মীর ব্যাংকের।

ভারতীয় সংবিধানের ৩৫-ক ধারা অনুযায়ী কাশ্মীরের বাসিন্দা নয়—এমন ভারতীয়দের সম্পদের মালিক হওয়া এবং চাকরি পাওয়ায় বাধা আছে। ৩৭০ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী জম্মু ও কাশ্মীরের এমন এক স্বায়ত্তশাসন রয়েছে, যা ১৯৪৭ সালের পর দক্ষিণ এশিয়ার আর কোনো ‘দেশীয় রাজ্য’ পায়নি।

অনুচ্ছেদ ৩৭০ ভারতীয় রাজ্য জম্মু ও কাশ্মীরকে নিজেদের সংবিধান ও একটি আলাদা পতাকার স্বাধীনতা দেয়। এছাড়া পররাষ্ট্র সম্পর্কিত বিষয়াদি, প্রতিরক্ষা এবং যোগাযোগ বাদে অন্যান্য সকল ক্ষেত্রে স্বাধীনতার নিশ্চয়তাও দেয়।

সূত্র: জাগো নিউজ